August 17, 2019, 6:18 am

৩৭০ ধারা বাতিলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন

Spread the love

৩৭০ ধারা বাতিলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন

ডিটেকটিভ আন্তর্জাতিক ডেস্ক

জম্মু-কাশ্মিরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ঘোষণা করতে মোদি সরকারের নেওয়া সাম্প্রতিক পদক্ষেপকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দায়ের করেছেন এম.এল শর্মা নামের এক আইনজীবী। তার দাবি, এ ব্যাপারে যে পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়েছে, তা ‘অসাংবিধানিক’। জরুরি ভিত্তিতে ওই মামলার শুনানির আবেদনও করেছেন শর্মা। গত সোমবার (৫ আগস্ট) ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মধ্য দিয়ে কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার কেড়ে নেওয়ার পাশাপাশি জম্মু-কাশ্মিরের প্রশাসনিক ব্যবস্থাকে রাজ্য থেকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করতে রাজ্যসভায় বিল পাস করে বিজেপি সরকার। পরদিন মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) লোকসভায়ও পাস হয় বিলটি। জম্মু-কাশ্মির পুনর্গঠন বিল ২০১৯ নামের এ বিলের আওতায় জম্মু-কাশ্মিরকে দু’ভাগ করে দুটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল পরিণত করার কথা বলা হয়েছে। জম্মু-কাশ্মির ও লাদাখ হবে পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল।

কেন্দ্রীয় সরকারের এমন সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) সর্বোচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হন আইনজীবী শর্মা। তার যুক্তি হলো, ৩৭০ অনুচ্ছেদ খারিজ করতে গেলে জম্মু-কাশ্মিরের বিধানসভায় তা নিয়ে আলোচনা করতে হতো। কিন্তু, তা না করেই একতরফাভাবে ওই অনুচ্ছেদ বাতিল করা হয়েছে বলে দাবি তার। অবশ্য, মোদি সরকারের পাল্টা যুক্তি হলো, ৩৭০ অনুচ্ছেদ অস্থায়ী। তা যে কোনও সময় বাতিল হয়ে যেতে পারে। আর সেই ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে রাষ্ট্রপতিকেই। সরকারের দাবি হলো, জম্মু-কাশ্মিরে এখন আর বিধানসভা নেই। সেখানে রাষ্ট্রপতির শাসন চলছে। তাই রাষ্ট্রপতি ওই নির্দেশিকা জারি করেছেন। সোমবারই সাবেক আইএএস শাহ ফয়সালের তৈরি নতুন দল জম্মু-কাশ্মির পিপলস মুভমেন্ট জানিয়েছিল, তারা ৩৭০ ধারা বাতিলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে যাবে। ওই দিনই দলের নেত্রী শেহলা রশিদ বলেন, ‘রাষ্ট্রপতির নির্দেশিকাকে চ্যালেঞ্জ করে আমরা সুপ্রিম কোর্টে যাব।’ তার আগেই অবশ্য শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন আইনজীবী এমএল শর্মা। বুধবার (৭ আগস্ট) এ নিয়ে শুনানি হতে পারে।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ