September 17, 2019, 1:26 pm

২০ লাখ ম্যাচে ৭ হাজার উইকেট নিয়ে ৮৫ বছরে অবসর!

Spread the love

২০ লাখ ম্যাচে ৭ হাজার উইকেট নিয়ে ৮৫ বছরে অবসর!

ডিটেকটিভ স্পোর্টস ডেস্ক

 

সর্বোচ্চ কত বছর বয়সে সম্পূর্ণ ফিট থেকে কোনো খেলোয়াড় তার ক্যারিয়ার চালিয়ে গেছেন? এমন প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হলে একটু হলেও আপনাকে কষ্ট করতে হবে। এই যেমন, বাংলাদেশের ময়মনসিংহের জীবন্ত কিংবদন্তি রামচাঁদ গোয়ালা ৫৩ বছর বয়সে ঢাকা লিগে খেলেছেন। ৮৩ বছর বয়সে গলফ খেলে যাচ্ছেন কিংবদন্তি গ্যারি প্লেয়ার। কিন্তু সবাইকেই যেন ছাপিয়ে গেছেন সিসিল রাইট। ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জের এই ক্রিকেটার ৮৫ বছর বয়সেও ক্রিকেট খেলে বেড়াচ্ছেন।  ইংলিশ গনমাধ্যম ডেইলি মিররের দাবী, নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে এই ক্যারিবিয়ান ২০ লাখ ম্যাচ খেলেছেন। সংবাদ মাধ্যম থেকে জানা যায়, ১৯৫৯ সালে জ্যামাইকার হয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক হয় সিসিলির। প্রতিপক্ষ বার্বাডোজ দলে ছিলেন কিংবদন্তি স্যার গারফিল্ড সোবার্স।  একই বছর ইংল্যান্ডের ল্যাঙ্কাশায়ারের লিগে ক্রম্পটনের হয়ে খেলা শুরু করেন সিসিল। বর্তমানে ইংল্যান্ডেই স্থায়ী ভাবে বাস করছেন। ইতিহাস বলছে, ইংলিশ লিগের ৫ মৌসুমে ৫৩৮ উইকেট নেন সিসিল। পরিসংখ্যান বলে, প্রতি ২৭ বলে এক উইকেট নিয়েছেন তিনি। ৬০ বছরের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে তার সংগ্রহীত উইকেটসংখ্যা ৭ হাজারের বেশি। বর্তমানে ৮৫ বছর বয়সে  আপারমিলের দ্বিতীয় দলের হয়ে পেনি লিগে খেলছেন। তবে আর বেশি দিন এই ক্রিকেট বিস্ময়কে ক্রিকেটে দেখা যাবে না। আগামি ৭ সেপ্টেম্বর স্প্রিং হেডের বিপক্ষে ম্যাচ খেলে অবসরে যাচ্ছেন এই বিস্ময়কর ক্রিকেটার। অবসর ঘোষণার সময় সিসিলির কাছে সাংবাদিকদের একটাই প্রশ্ন ছিল, কীভাবে ৮৫ বছর বয়সে ফিট রয়েছেন তিনি? কীভাবেই বা বোলিং করছেন, ফিল্ডিং করছেন? জবাবে সিসিলি রহস্যভেদ না করে বলেন, ‘আমি যদি জানতাম আমার লম্বা ক্যারিয়ারের রহস্য! কিন্তু আমি জানি না। যা পাই তাই খাই। কিন্তু আমি পান (মদ্যপান) করি না। এসব কারণে আমি ফিট থাকি। আমি বসে থেকে টিভি দেখতে পছন্দ করি না। এর চেয়ে হাঁটা বা গ্যারেজে কাজ করাই ভালো।’

 

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ