August 21, 2019, 9:07 pm

শিরোনাম :
মানুষের কল্যাণে কাজ করতে গিয়ে বারবার মৃত্যুর সম্মুখীন হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী গ্রেনেড হামলার দায় খালেদা জিয়া এড়াতে পারেন না: তথ্যমন্ত্রী জন্মাষ্টমী ঘিরে কঠোর নিরাপত্তা পরিকল্পনা ডিএমপি’র একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা উচ্চ আদালতে তারেকের সর্বোচ্চ সাজার আবেদন করা হবে: ওবায়দুল কাদের চট্টগ্রামে কাভার্ড ভ্যান থেকে ৫০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার, আটক ৩ গ্রেনেড হামলা মামলার আপিল শুনানি ২-৪ মাসের মধ্যে: আইনমন্ত্রী গ্রেনেড হামলায় জড়িতদের বিচারে উদ্যোগ নেবে সরকার: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী গ্রেনেড হামলার সুষ্ঠু তদন্ত হয়নি, জোর করে তারেকের নাম বলানো হয়েছে: রিজভী ডেঙ্গুতে আক্রান্তের সংখ্যা কমলেও আতঙ্ক কমছে না

হাকিমপুর হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি বন্ধ চালের

Spread the love

মোঃ আল ইমরান,হাকিমপুর(দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ

হাকিমপুর হিলি স্থলবন্দর দিয়ে চাল আমদানি বন্ধ হয়ে গেছে। সরকার ডিউটি শতকরা ২৮ শতাংশ থেকে বাড়ীয়ে ৫৫ শতাংশ করার ঘোষনা দেয়ায় বন্ধ হয়েছে চাল আমদানি। নন-বাসমতি মোটা চাল আমদানি না হলেও সম্পা কাটারি চিকন জাতের চাল আমদানি করছে হিলি স্থলবন্দরের আমদানি কারকেরা। ওদিকে সরকারের বেধে দেয়া শতকরা ২৮ শতাংশ ডিউটি দিয়ে চাল আমদানি করছেন ব্যবসায়ীরা। ফলে, জানুয়ারি থেকে মে মাসের ২২ তারিখ পর্যন্ত ৫ মাসে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে চাল আমদানি হয়েছে ৪৪ হাজার ৬৩০ মেট্রিক টন। যার বিপরিতে সরকারের ঘরে রাজস্ব এসেছে ৪১ কোটি ৩৯ লাক্ষ্য ৭৫ হাজার ৭১৬ টাকা।এর মধ্যে চলতি বছর জানুয়ারি মাসে ১১ হাজার ৮৬৮ মেট্রিক টন, ফেব্রুয়ারি মাসে ৭ হাজার ৯৬৫ মে: টন, মার্চে ৯ হাজার ৬৯৭ মে:টন,এপ্রিল মাসে ৮ হাজার ২১২ মে: টন, মে মাসের ২২ তারিখ পর্যন্ত ৬ হাজার ৮৮৮ মে: টন। এর মধ্যে বেশী চাল আমদানি হয়েছে জানুয়ারি মাসে।এদিকে, হিলি কাষ্টমস এর রাজস্ব কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক জানান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ইতি পুর্বে চাল আমদানির ক্ষেত্রে ডিউটি নির্ধারন ছিলো কাষ্টমস ডিউটি শতকরা ২৫ শতাংশ ও রেগুলেটরি ডিউটি শতকরা ৩ শতাংশ। এবারে নতুন প্রঞ্জাপনে কাষ্টমস ডিউটি করা হয়েছে শতকরা ২৫ শতাংশ এবং রেগুলেটরি ডিউটি নির্ধারন করা হয়েছে শতকরা ২৫ শতাংশ। সর্ব মোট ৫০ শতাংশ। যা গেলো বুধবার থেকে কার্যকর হয়েছে।হিলি স্থলবন্দরের চাল আমদানিকারক মোস্তাক হোসেন মাষ্টার জানান, চিকন জাতের সম্পা কাটারি শুধু ভারতেই চাষা আবাদ হয়ে থাকে। এ চালের ফলন বাংলাদেশে নেই। চিকন চালের ভাত ভালো হয় খেতেও খুবই ভালো, যার ফলে এই সম্পা কাটারির চাহিদাও ছিলো বেশী। আর সে কারনে হিলি স্থল বন্দর দিয়ে এই জাতের চাল বেশী আমদানি হয়েছে।এবারে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে দিনাজপুরে ধানের চাষা আবাদ ভালো হয়েছে। এদিকে কৃষকদের অভিযোগ ধানের দাম পাচ্ছেন না তারা। ধান কাটামাড়ার ভরা মৌসুমে বন্ধ হয়নি ভারত থেকে চাল আমদানি। মোটা চাল বা সর্ণা জাতের চাল আমদানি না হলেও প্রচুর পরিমানে আমদানি হচ্ছে চিকন সম্পা কাটারি চাল। যা বাজারে প্রচুর পরিমানে চাহিদা রয়েছে বলছেন সংশ্লিষ্ট আমদানিকারক ব্যবসায়ীরা।
প্রাইভেট ডিটেকটিভ/ ২৪ মে ২০১৯/ইকবাল
Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ