November 13, 2019, 3:29 pm

শিরোনাম :
আইন মেনে গ্রাম আদালতে বিচারিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে – ইউএনও শারমিন আক্তার লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাচারিতার বিরুদ্ধে ছাত্র-ছাত্রীদের মানববন্ধন ভিডিও কনফারেন্সে গাইবান্ধার ৩টি উপজেলাসহ দেশের ২৩টি উপজেলার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির শতভাগ বিদ্যুৎ কার্যক্রমের উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী বোয়ালমারীতে সরকারি পুকুর দখল করে মাছ ও লাউ চাষ চৌগাছায় ৪০ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক এক যুবক বেনাপোল সীমান্তে স্বর্ণেরবার সহ পাচারকারী আটক শার্শার রামপুর বাজারে সরদার ফুড এন্ড বেকারীতে ভ্রম্যমান আদালতের অভিযান ফতেহপুরে ভাই ভাই সমাজ কল্যাণ সংঘর শিক্ষা উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠিত সংসদীয় কূটনীতি গুরুত্বপূর্ণ -স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী জনগণ ক্ষমা করবে না কটাক্ষকারীদের -সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে নাবিলা

Spread the love

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে নাবিলা

ডিটেকটিভ বিনোদন ডেস্ক

উপস্থাপনা, নাটক ও মডেলিং দিয়ে জনপ্রিয়তা পেলেও নাবিলাকে আজকাল সবাই ‘আয়নাবাজি’র নাবিলা বলেই ডাকেন। এক সিনেমা দিয়েই সাফল্য অর্জন করেছেন তিনি। ২০১৬ সালে অমিতাভ রেজা পরিচালিত এ ছবিটি মুক্তির পর আর কোনো চলচ্চিত্রে দেখা যায়নি এ অভিনেত্রীকে। আয়নাবাজির মতো সিনেমার কোনো প্রস্তাব না থাকায় চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন না তিনি। তবে পূর্ণদৈর্ঘ্য না হলেও স্বল্পদৈর্ঘ্য একটি চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন নাবিলা। নাম ‘বস্নাড রোজ’। তাসনিমুল তাজের রচনায় এটি তৈরি করছেন নির্মাতা রেদওয়ান রনি।

অভিনয়ে তার সুনাম থাকলেও খুব কম কাজ করেন। বছরে হাতেগোনা কয়েকটি নাটকে তাকে দেখা যায়। গেল ভালোবাসা দিবসের একটি ওয়েব সিরিজে কাজ করেছেন নাবিলা। ‘লিলিথ’ শিরোনামের এ সিরিজটি নির্মাণ করেছেন দীপঙ্কর দীপন। এতে নাবিলার সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন চলতি সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা সিয়াম। ভারতের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ভেঙ্কটেশ ফিল্মের পস্ন্যাটফর্ম হইচইয়ের ব্যানারে তৈরি হয়েছে ওয়েব সিরিজটি। এর আগে ‘মন মন্দিরে’ শিরোনামের আরও একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছিলেন নাবিলা। গেল বছরের শেষ সপ্তাহে বায়োস্কোপ অরিজিনালসে এটি প্রকাশ হয়।

এ সময়ে ওয়েব সিরিজে অভিনয় করা প্রসঙ্গে নাবিলা বলেন, ওয়েব সিরিজ বিনোদনের নতুন মাধ্যম। সারাবিশ্বে এটির বেশ জনপ্রিয়তা বাড়ছে। আমাদের দেশেও অনেক তারকা শিল্পী এখন ওয়েব সিরিজে কাজ করছেন।’

২০০৬ সালে বাংলাভিশন ‘এবং ক্লাসের বাইরে’ নামক একটি স্কুল ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানের উপস্থাপনার মধ্য দিয়ে মিডিয়া জগতে নাবিলার পথচলা শুরু হয়। এরপর তিনি এনটিভির লাইভ কুইজ অনুষ্ঠান ‘জানার আছে বলার আছে’ এবং বাংলাভিশনে প্রচারিত আরজে নীরবের সঙ্গে করেন ‘মিউজিক টুগেদার’। সর্বশেষ নাগরিক টিভির ‘বাজল ঝুমুর তারার নূপুর’ অনুষ্ঠানেও উপস্থাপনায় দেখা গেছে নাবিলাকে। উপস্থাপনা নিয়ে তিনি বলেন, ‘উপস্থাপনা ভালো লাগলে করি, না লাগলে করি না। আমি যে কোনো কিছু দর্শকের দৃষ্টি থেকে দেখি। নাটকে গল্প পছন্দ না হলে যেমন কাজ করছি না, তেমনি খুব বড় শো না হলে উপস্থাপনা করি না।’

২০০৬ সালে মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীর পরিচালিত একটি সার্প বেস্নডের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে। এ ছাড়া তিনি ফেয়ার অ্যান্ড লাভলী, বাংলালিংক ফ্রি জি, রবি, ডাবর ভাটিকা হেয়ার অয়েল,আমিন জুয়েলার্সের বিজ্ঞাপনচিত্রে অভিনয় করেন। বেশ কিছু ম্যাগাজিন এবং খবরের কাগজের প্রচ্ছদে তাকে মডেল হিসেবে দেখা গেছে।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ