June 5, 2020, 3:37 pm

শিরোনাম :
বান্দরবান জেলার সেনা রিজিয়নের তত্ত্বাবধানে বান্দরবান, রুমা, অলীকদম এর বিভিন্ন দুর্গম পাহাড়ী এলকায় দুস্থ মানুষের পাশে সেনাবাহিনী কুয়াকাটায় প্রজনন মৌসুমে অমান্য করায় দুই জেলেকে ১০হাজার টাকা জরিমানা বান্দরবানে দূর্গম পাহাড়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অবহ্যত রেখেছে সেনাবাহিনী চৌদ্দগ্রাম পৌর কাউন্সিলর শাহীনসহ ২২ জনের করোনা শনাক্ত চৌদ্দগ্রামে দুই নেতার মঙ্গল কামনায় মসজিদে মসজিদে দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত করোনার ডেঞ্জার জোন হিসাবে আখ্যায়িত হতে যাচ্ছে সিলেট রংপুরে আইনজীবির গলাকাটা লাশ উদ্ধার বার সমিতির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ গ্রেপ্তার ১ কোভিড-১৯ মহামারীর সংক্রমণ থেকে রেহাই পেতে বাসা থেকে কাজ করবেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মীরা ভারতে ২৪ ঘণ্টায় মহামারী মরন ব্যাধী করোনায় আক্রান্ত ৯৮৫১ দেশে মহারী মরন ব্যাধী কোভিড রোগীর সংখ্যা ৬০ হাজার ছাড়াল, মৃত্যু ৮১১

সুন্দরগঞ্জে আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা

Spread the love

আবু বক্কর সিদ্দিক, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভানুষ্ঠিত হয়েছে।
সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ সভা কক্ষে ইউএনও মো. সোলেমান আলীর সভাপতিত্বে এ সভানুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশরাফুল আলম সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান শফিউল আলম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে সালমা। বক্তব্য রাখেন- উপজেলা আ’লীগের আহবায়ক টিআইএম মকবুল হোসেন প্রামাণিক, থানা অফিসার ইনচার্জ এসএম আব্দুস সোবহান, তারাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান মন্ডল, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম, সুন্দরগঞ্জ রিপোটার্স ক্লাবের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিকসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, ইউপি চেয়ারম্যান ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

সুন্দরগঞ্জে অসহায় পরিবারকে জিম্মি করে টাকার দাবি
আবু বক্কর সিদ্দিক, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে দাদন ব্যাবসায়ীর চাপে একটি অসহায় পরিবার জিম্মি হয়ে পড়েছে। জানা যায়, উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের রামভদ্র গ্রামের আব্দুস ছামাদের পুত্র শহিদুল ইসলাম ওরফে শাহীন মিয়াসহ পরিবারের অন্যান্যরা প্রাণভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। এ ব্যাপারে শহিদুল ইসলাম ওরফে শাহীন মিয়া জানান, তার বড় ভাই ফিরোজ মিয়া বিগত ১০/১২ বছর থেকে সৈদি প্রবাসে রয়েছেন। এরপর ২/৩ মাস আগে থেকে প্রতিবেশী আব্দুল জলিলের পুত্র মাইদুল ইসলাম, ফজলুল হকের পুত্র রফিকুল ইসলাম তাদের লোকজনসহ প্রবাসী ফিরোজ মিয়া ও তার স্ত্রীর নিকট মোটা অঙ্কের টাকার দাবী করে অত্যন্ত চাপ সৃষ্টি পূর্বক নানান হুমকি-ধামকি ও ভয়-ভীতি প্রদর্শন করছে। ফলে ফিরোজ মিয়ার স্ত্রী তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করছে। এছাড়া, সাহেব মিয়াসহ পরিবারের অন্যান্যরা বিভিন্নভাবে দিনাতিপাত করছেন। এব্যাপারে মোবাইল ফোনে কথা হলে মাইদুল ইসলাম বলেন, ফিরোজ মিয়ার স্ত্রী একজন দেহ ব্যাবসায়ী। সে বিভিন্ন সময় টাকা নিয়ে এখন বাবার বাড়িতে অবস্থান করছে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে মাইদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় সালিশ হয়েছে। তবে দেহ ব্যাবসার জন্য টাকা দেয়ার কথা এঁড়িয়ে যান। তাদেরকে হুমকি-ধামকি, ভয়-ভীতি প্রদর্শন পূর্বক বাড়িছাড়া করার প্রশ্নের জবাব না দিয়ে মাইদুল ইসলাম বলেন, আরো অনেকের কাছে সে (ফিরোজ মিয়ার স্ত্রী) টাকা নিয়েছে। আর এক প্রশ্নের জবাবে মাইদুল ইসলাম বলেন, প্রয়োজনে সম্পদ আটক করে এ টাকা উদ্ধার করা হবে। এ ব্যাপারে সাহেব মিয়ার পরিবার প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ