September 9, 2019, 9:33 am

শিরোনাম :
মৌলভীবাজার সদর উপজেলার শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান ওয়াহিদ সিদ্দেক উচ্চ বিদ্যালয়ে পবিএ আশুরা পালিত জামালপুরে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদাণ করেছে পাট চাষী ও ব্যবসায়ীরা বোয়ালমারীতে ৭০ কার্টুন নকল মশার কয়েল আটক জৈন্তাপুরে জমকালো আয়োজনে বঙ্গবন্ধ গোল্ডকাপ অনূধ্ব-১৭ উদ্বোধন কুয়াকাটায় সংস্কারের অভাবে ধংস হচ্ছে রাখাইনদের আড়াই’শ বছরের পালতোলা নৌকা চৌদ্দগ্রামে ডেঙ্গু মশা নিধনের  ্ঔষুধ ও মেশিন বিতরণ সাঘাটা থানার সাবেক ওসির বিদায় সংবর্ধনা ও নবাগত ওসির যোগদানে পরিচিতি সভা র‌্যাব-৫ এর প্রতিদিনের চলমান অভিযানে ফেন্সিডিলসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক বোসপাড়া ফাঁড়ির ইনর্চাজ এস আই মনিরের বিরুদ্ধে আরএমপি কমিশনারের কাছে লিখিত অভিযোগ ডিবি পুলিশের অভিযানে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে ২ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ১

সাঘাটা থানার সাবেক ওসির বিদায় সংবর্ধনা ও নবাগত ওসির যোগদানে পরিচিতি সভা

Spread the love

সাঘাটা (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ

সাঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান সাঘাটা থানা থেকে গাইবান্ধা ডিবি’র ওসি হিসেবে বদলী ও ফুলছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মো: বেলাল হোসেনের সাঘাটা থানায় অফিসার ইনচার্জ হিসেবে যোগদান উপলক্ষে থানা পুলিশের আয়োজনে বিদায় ও পরিচিতি অনুষ্ঠান ৮ সেপ্টেম্বর রোববার দিবাগত রাতে থানার হলরুমে অনুষ্ঠিত হয়েছে।বিদায়ী ওসি মোস্তাফিজার রহমান বলেন, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের মাননীয় ডেপুটি স্পিকার, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবং জেলা পরিষদের সদস্যগণ আমাকে সবসময় তাদের পাশে রেখেছে। পরামর্শ দিয়েছে। সহযোগিতা করেছে। স্থানীয় সাংবাদিকগণ ও মুক্তিযোদ্ধা এবং গণ্যমান্যব্যক্তিরা সবসময় আমাকে সহযোগিতা করেছে। তারাও কখনোও আমার কাছে অন্যায় দাবি করেনি। তাদের সবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ।মামলা মোকদ্দমার ক্ষেত্রে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে তদন্ত কর্মকর্তাদের কখনোই পক্ষপাতিত্ব করতে দেইনি। আমার শ্লেগান ছিলো আইন সবার জন্য সমান। কারো অধিকার খর্ব করা যাবেনা। সহকর্মীদের সব সময়ই স্বাধীনভাবে কাজ করার সুযোগ দিয়েছি। মিথ্যা মামলা মোকদ্দমা করতে দেইনি। তদন্তের পর আইনগত ব্যবস্থা নিয়েছি। প্রতিহিংসায় বা লোভে কারো বিরুদ্ধে কোন মামলা বা হয়রানি করিনি।এসব কারণে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি মনের অজান্তেই কখন যেন সাঘাটার মানুষকে মনে প্রাণে ভালবেসে ফেলেছিলাম বুঝতে পারিনাই। আজ বিদায় বেলায় বা বদলীর পরে তা বুঝতে পারছি। কিন্তু কি আর করার মনকে এই বলে সান্তনা দিচ্ছি আমার চাকুরি বদলীযোগ্য। কতটুকু সেবা দিতে পেরেছি তা আপনাদের বিবেকের উপরই ছেড়ে দিলাম। বলতে চাই যেসব অফিসার নিয়ে দীর্ঘদিন এক সাথে কাজ করেছি তারা খুব ভালো মনের। অনেক সময় রাগ করেছি। যতই রাগ করিনা কেনো তারা আমার সকল নির্দেশ মেনে চলতো। সহকর্মীরা আমাকে সহযোগিতা করার জন্যই কখনোই আমার মান সম্মান ক্ষন্ন হয়নাই। সেজন্য তাদের কাছেও আমি কৃতজ্ঞ।এছাড়া সাঘাটার মানুষগুলো খুব ভালো।বেশিরভাগ মানুষই আমাকে সহযোগিতা করেছেন। আপনাদের ভালোবাসা/সহযোগিতা আমার কর্মজীবনের অভিজ্ঞতা হয়ে থাকবে। তার পরেও বলতে চাই আমার দায়িত্বপালন কালে মনের অজান্তেই কারো মনে কোন কষ্ট বা আঘাত দিয়ে থাকলে আপনারা তা মার্জনার দৃষ্টিতে দেখবেন। আমার জন্য দোয়া করবেন।তিনি আরো বলেন, আমাকে আপনারা যেভাবে সহযোগিতা করেছেন। বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জকে আরো বেশি সহযোগিতা করবেন। তিনি খুব ভালো অফিসার। সবশেষে তিনি বলেন, আমার বিশ্বাস আপনাদের ভালোবাসায় শুধু মরা গাছে নয় পাথরেও ফুল ফুটবে।নবাগত অফিসার ইনচার্জ বেলাল হোসেন বলেন, বিদায়ী ওসি স্যারের মত হয়তো হতে পারবো কিনা জানিনা। তবে তার চলার পথ অনুসরণ করে চলবো। আমি ফুলছড়ি থানায় ছিলাম সেখানকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রেখেছিলাম। চেষ্টা করবো সাঘাটা থানাকেও রাখতে। তবে এক্ষেত্রে সমাজের সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা চাই।তিনিও বিদায়ী ওসির সর্বাঙ্গীন মঙ্গল কামনা করেন।অনুষ্ঠানে, সাঘাটা উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির, ভাইস চেয়ারম্যান বিপ্লব, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পারভিন আক্তার, জেলা পরিষদের সদস্য সাখাওয়াত হোসেন, সাঘাটা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ সাইদুর রহমান, সাঘাটা উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান মন্ডল, সাঘাটা ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন সুইট, ঘুড়িদহ ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, হলদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইয়াকুব আলী, জুমারবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান রোস্তম আলী, বোনারপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়ারেছ ,ভরতখালি ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল আজাদ শীতল, কচুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবর রহমানসহ সাঘাটা বাজারের ব্যবসায়ী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ