September 15, 2019, 1:24 am

শিরোনাম :
মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধই আমার মূল লক্ষ; ফরিদ উদ্দিন মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালকে মেডিকেল কলেজ ঘোষণার দাবি জাতীয় সংসদে উত্থাপন কলাপাড়ায় নদীতে পড়ে বার্জ শ্রমিক নিখোঁজ শিবগঞ্জে গুজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন তালায় রুগ্ন গাভী জবাই : মাংস ব্যবসায়ীকে জরিমানা ঝিনাইদহের শৈলকুপায় প্রাথমিক শিক্ষকদের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান পিযুষসহ আটক ৪, অস্ত্র, গুলি, ইয়াবা উদ্ধার কুড়িগ্রামে মুক্তিযোদ্ধাদের জীবনের গল্প নিয়ে স্মৃতিচারণমূলক বীরগাথা শীর্ষক ডকুমেন্টরী ইসলামে আশুরা কেন এত গুরুত্বপূর্ণ দিন রাজারহাটে অটো রিক্সার ধাক্কায় মোটর সাইকেল আরোহির মৃত্যু

সবচেয়ে বেশি খারাপ তামিমেরই লাগছে’

Spread the love

সবচেয়ে বেশি খারাপ তামিমেরই লাগছে’

ডিটেকটিভ স্পোর্টস ডেস্ক

 

তিনটি বিশ্বকাপ খেলার অভিজ্ঞতা নিয়ে ইংল্যান্ডে এসেছেন তামিম। লম্বা ক্যারিয়ারের মালিক হওয়ায় তার কাছে দলের প্রত্যাশা অনেক বেশি। বিশ্বকাপের মঞ্চে শুরুর সেই প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন। প্রথম তিন ম্যাচে তামিম করেছেন ১৬, ২৪ ও ১৯। যা তামিমের নামের সঙ্গেই বেমানান। তাই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে রানে ফিরতে মরিয়া বামহাতি এই ব্যাটসম্যান। সোমবার দলের অনুশীলনে খুব সিরিয়াসও দেখা গেলো তাকে। ব্যাটিং কোচ নিল ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে ঘণ্টা দুয়েক ব্যাটিং নিয়ে কাজও করেছেন সমস্যা উত্তরণে।

মাশরাফির কথাতেও স্পষ্ট হয়ে ধরা দিলো তামিমের ফিরে আসার চেষ্টার কথা, ‘দলের সবাই ভালো করার চেষ্টা করছে। শেষ ৩/৪ বছর ধরে তামিম দলের সেরা ব্যাটসম্যান। কিন্তু গত তিন ম্যাচে আমরা ওর সার্ভিসটা পাইনি। আমি নিশ্চিত, রান না হওয়াতে ওরই(তামিম) সবচেয়ে বেশি খারাপ লাগছে। আমি এটাও নিশ্চিত সে(তামিম) কীভাবে রান পাবে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে। অবশ্য যতই চেষ্টা করুক ভাগ্যে না থাকলে সম্ভব নয়। আশা করি তামিমের ভাগ্য সহায় হবে।’

গত তিন ম্যাচের মধ্যে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে কিছুটা ছন্দহীন মনে হয়েছে মাহমুদউল্লাহকে। প্রথম ম্যাচে অপরাজিত ৪৬ রানের ইনিংস খেলে দলের স্কোরকে সমৃদ্ধ করতে ভূমিকা রেখেছেন। সোফিয়া গার্ডেনসে ২৮ রানের ইনিংস খেললেও সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রান তুলতে পারেননি। লঙ্কানদের বিপক্ষে ম্যাচের আগের দিন মাহমুদউল্লাহর ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠলো। এ ব্যাপারে মাশরাফি বলেছেন, ‘প্রথম ম্যাচে রিয়াদ তার দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করেছে। গত ম্যাচে কেন পারেনি, সেটা ওর সঙ্গে কথা বললে বুঝতে পারবো। দ্বিতীয় ম্যাচেও ও ঠিক পথেই ছিল। যখন রানের চাকা বাড়ানো দরকার তখন আউট হয়ে গেছে।’

লঙ্কানদের বিপক্ষে ভালো করতে হলে সিনিয়রদের বাড়তি দায়িত্ব নিয়ে খেলা উচিত কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মাশরাফি বলেছেন, ‘কেউ গ্যারান্টি দিয়ে খেলতে পারবে না। ম্যাচ জিততে দলীয় পারফরম্যান্সের বিকল্প নেই।’

ইংল্যান্ডের কন্ডিশনে পুরোপুরি মানিয়ে নিতে কিছুটা সময় লাগছে বাংলাদেশের। মাশরাফি মনে করেন, ‘আমার কাছে মনে হয় বিশ্বকাপে কোন ম্যাচেই স্বস্তির সুযোগ নেই। প্রথম তিন ম্যাচে এমন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে খেলেছি, যারা এই কন্ডিশনে শুরু থেকেই সেরা। আমাদের হয়ত একটু সময় লাগবে। প্রথম ম্যাচের পর মনে হয়েছে বাকি দুই ম্যাচের আরেকটা ভালো করতে পারলে ম্যাচটা জিতে জেতাম।’

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ