August 18, 2019, 9:11 pm

শ্রীলঙ্কায় দাঙ্গায় নিহত ১, দেশব্যাপি কারফিউ

Spread the love

শ্রীলঙ্কায় দাঙ্গায় নিহত ১, দেশব্যাপি কারফিউ

ডিটেকটিভ আন্তর্জাতিক ডেস্ক

 

শ্রীলঙ্কায় গির্জায় এবং হোটেলে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার পর থেকে গত কয়েক সপ্তাহে দেশটিতে তৈরি হওয়া মুসলিম বিদ্বেষ দাঙ্গায় পরিণত হয়েছে। দেশটিতে এক মুসলিম যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। এ ছাড়া মসজিদ এবং মুসলিমদের দোকান ভাংচুর করা হয়েছে। এই অবস্থায় দেশব্যাপি কারফিউ জারি করেছে সরকার। এ ছাড়া মুসলিম বিদ্বেষীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছে দেশটির সরকার। বিবিসির অনলাইন এক প্রতিবেদনে এই খবর জানানো হয়েছে।

গত মাসে ইস্টার সানডের দিনে দেশটির গির্জায় এবং হোটেলে হামলার পর থেকে দেশটিতে মুসলিম বিদ্বেষী উত্তেজনা বাড়তে থাকে। ওই হামলায় দেশী বিদেশী মিলে ২৫০ জনের বেশি লোক মারা যান। ক্রমাগত মুসলিম বিদ্বেষ বাড়তে থাকায় সব পক্ষকে শান্ত থাকার আহŸান জানায় সরকার। এর মধ্যে দ্বিতীয় দিনের মতো  গত সোমবার এই হামলার ঘটনা ঘটলো।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশের মারাউয়িলি হাসপাতাল থেকে এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ছুরিকাঘাতে ৪২ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর তার মৃত্যু হয়। নিহতের নাম মোহাম্মদ আমীর মোহাম্মদ সালি।

রাজধানী কলম্বোর উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় তিনটি জেলাতে এই অস্তিরতা তৈরি হয়েছে। সেখানকার কিনিয়ামা নামের একটি শহরের মসজিদের দরজা এবং জানালা ভেঙে ফেলে দঙ্গাকারীরা। এ ছাড়া কয়েকটি ধর্মীয় বই মেঝেতে ছুড়ে ফেলার ঘটনাও ঘটে। এর আগে ফেসবুকে এক ব্যক্তির দেওয়া বিতর্কিত একটি পোস্টের পর খ্রিষ্টান-প্রধান শহর চিলৌতে মুসলিমদের কিছু দোকান ও মসজিদে আক্রমণের ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়া ৩৮ বছর বয়সী সেই মুসলিম ব্যবসায়ীকে খুঁজে বের করে গ্রেফতার করা হয় এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপের মতো ম্যাসেজিং অ্যাপগুলোর ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞাও জারি করা হয়। গত সোমবার শ্রীলঙ্কায় বিভিন্ন শহরে ছড়িয়ে পড়া এই দাঙ্গা দমনে পুলিশ শক্ত অবস্থান নেয়। দাঙ্গাকারীদের সরিয়ে দিতে ফাঁকা গুলি এবং টিয়ার গ্যাসও ছোড়ে পুলিশ। টেলিভিশনে দেয়া এক বিবৃতিতে পুলিশ প্রধান চন্দনা বিক্রমারতনে সতর্ক করে বলেছেন- দাঙ্গাকারীদের দমনে পুলিশ সর্বোচ্চ শক্তি প্রয়োগ করবে।

অন্যদিকে গত সোমবার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংহ সবপক্ষকে শান্ত থাকার আহŸান জানান। তিনি জানান, বর্তমান এই অস্থিতিশীল পরিবেশ গত মাসের হামলার তদন্তে ব্যঘাত ঘটাতে পারে। বৌদ্ধ প্রধান শ্রীলঙ্কায় মোট জনসংখ্যা ২ কোটি ২ লাখ। যার মধ্যে ১০ শতাংশ মুসলিম।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ