July 8, 2020, 8:52 pm

শিরোনাম :
মিঠাপুকরে অবৈধবালু উত্তলনে ২লাখ টাকা জরিমানা, ২টি ড্রেজার মেশিন ও স্কেবেটর জব্দ কুমিল্লায় নারীকে দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা’ পুলিশ সুপারের সঠিক দিক নির্দেশনায় গ্রেপ্তার-৩ জাতীয় সংসদ অধিবেশনে দাঁড়িয়ে রিজেন্ট কেলেঙ্কারিতে জড়িতদের ক্রসফায়ার চান এমপি হারুন পাবনা সদরে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে এক সন্ত্রাসী নিহত’ ২টি অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার শৈলকুপায় ২০ শতক জমির বেগুন গাছ ঔষুধ দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা বিশ্বম্ভরপুরে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা জুয়েল এর রুগ মুক্তিতে দোয়া-মাহফিল মোরেলগঞ্জে কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের মানববন্ধন মাদক বিরোধী অভিযানে কলাপাড়া থানা পুলিশের সাফল্য কেশবপুরে নতুন করে ৬ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এ নিয়ে মোট আক্রান্ত ৫০ জন সুস্থ ২৮ জন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৩১টি নমুনার পরীক্ষা ৮০টি করোনা পজেটিভ

লক্ষ্মীপুরে কথিত মোবাইল চুরির ঘটনায় শিশুর উপর নির্মম নির্যাতন

Spread the love
লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি ঃ
গত ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯  রবিবার লক্ষ্মীপর সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ থানাধীন কুশাখালী ইউনিয়ন এর  শাহাদাত হোসেন তুহিন (১৪) কে কথিত মোবাইল চুরির ঘটনায় বেদম প্রহার করা হয়।স্থানীয় সূত্রে এবং ভিকটিমের পিতার ভাষ্যমতে, গত  ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার  রাতে চন্দ্রগঞ্জ থানাধীন কুশাখালী ইউনিয়নের কাঠালি গ্রামের আবদুল কুদ্দুস এর ঘর থেকে কে বা কাহারা তাহার  মোবাইল ফোন ও চার্জার লাইট চুরি করে নিয়ে যায়। চুরির ঘটনা কেন্দ্র করে একই বাড়ির আবদুল কুদ্দুসের  ছোট ভাই আবু কালামের মেঝো ছেলে শাহাদাত হোসেন তুহিন (১৪) কে গত ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯  রবিবার  প্রথমে একই গ্রামের ইসমাইল ভান্ডারীর বাড়ির সামনে এবং পরে খুরশিদ মাঝির দোকানের সামনে কাঁচা বাশের লাঠি দিয়ে নির্মম নির্যাতন করে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত লোকজন শাহাদাত হোসেন তুনিনকে উদ্ধার করে তার বাবা আবু কালামের কাছে হস্তান্তর করে। পরবর্তীতে শাহাদাত হোসেন তুহিনকে  রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পাঠিয়ে দেয়। পরবর্তীতে  ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ সোমবার  শাহাদাত হোসেন তুহিনের পিতা আবু কালাম এ বিষয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানা একটি অভিযোগ দায়ের করেন। শাহাদাতের বাবা আবু কালাম জানান, ঘটনার দিন রাতে শাহাদাত বাড়িতে ছিল না। সে পাশের নুরুল আমিনের বাড়িতে নুরুল আমিনের ছেলে নোমানের সাথে একই খাটে শোয়া ছিল, যা পরবর্তীতে নোমানও এর সত্যতা জানায়।  এবিষয়ে এলাকার সাধারন মানুষের মনে মিশ্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে, এবং এলাকাবাসী এর দৃষ্টান্ত শাস্তির দাবী করে। এ বিষয় কুশাখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ নুরুল আমিনের সাথে একাধিক বার মোবাইলে চেষ্টা করেও কোন ভাবে যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নাই।চন্দ্রগঞ্জ থানা ডিউটি অফিসার এএসআই মিজান অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে এবং তদন্ত সাপেক্ষে পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানান।
প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯/ইকবাল
Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ