October 9, 2019, 12:06 pm

র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ইয়াবাসহ ৫ মাদক ব্যবসায়ী আটক

Spread the love

 

আব্দুল্লাহ আল মামুন, বিশেষ প্রতিনিধি:  

 

শান্তিপ্রিয় বাঙালীর বাংলাদেশ নামক এই ছোট্ট ভূখন্ডে প্রায়ই বিভিন্ন সীমান্ত থেকে মাদক সিন্ডিকেটের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে বড় বড় চালানের মাদক ঢুকে পড়ছে। আর এ থেকে এক শ্রেণির মুনাফালোভী মূখোশধারী মানুষ হাতিয়ে নিচ্ছে বিশাল অংকের টাকা। অন্যদিকে এই মাদকে আসক্ত হয়ে, এর নীল ছোঁবলের বিষে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে দেশের সাধারন নাগরিক তথা সমাজের কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, খেটে খাওয়া মানুষ, রিকসা ও গাড়ি চালক, দিনমজুর, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, উকিল, সাংবাদিক এমনকি শিশুশ্রেণি এবং গৃহিনীসহ সমাজের বিভিন্ন স্তরের নানান পেশার মানুষ।

এ বিষয়ে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী যথেষ্টই সচেতনতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে। তাই প্রতিদিনের খবরের কাগজে চোখ বুলালে দেখা যায়, বিপুল পরিমানে ইয়াবা, ফেন্সিডিল ও গাঁজসহ এসব কারবারিরা বিভিন্ন আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিকট মাদকসহ ধরাও পড়ছে।

বর্তমান সময়ে চিকুনগুনিয়া ও ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভব, শিশুধরা ও কল্লা কাটা সন্দেহে পিটিয়ে মানুষ মারাসহ সর্বশেষ ক্যাসিনো ও জুয়ার আখড়া বিষয়ে সমাজে সাধারন মানুষের মধ্যে যে মিশ্র-প্রতিক্রিয়া চলছে, এর থেকে পরিত্রাণের উপায় খুঁজতে সরকারের পাশাপাশি থেমে নেই দেশের আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীও।

মাদক বিষয়ে জিরো টলারেন্স নীতি থাকা সত্তেও এ বিষয়ে কৌশলী কারবারিরা মাদকের খুচরা বিকি-কিনি যেমন চালিয়ে যাচ্ছে, অন্যদিকে অন্যান্য আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর মত র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) এ ধরনের অপরাধীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। তারা দেশজুড়ে প্রতিনিয়ত মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে আসছে।

এর ধারাবাহিকতায় গত ৭ অক্টোবর সোমবার পৃথক তিনটি অভিযানে রাজধানীর বংশাল থানাধীন মালিটোলা এলাকা থেকে আব্দুর রহমান টিপু (৩৬) ও মো. রবিন (২৮), দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন চর কালিগঞ্জ তৈলঘাট এলাকা থেকে মো. ফারুক (৩০) এবং ডেমরা এলাকা থেকে মো. মনির হোসেন (৪০), ও মো. জাহাঙ্গীর আলম (৩৫) নামের পাঁচ মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-১০। ঐ সময় এই পাঁচ মাদক কারবারির কাছ থেকে সর্বমোট ৭৯০ পিস ইয়াবা (মাদক) ট্যাবলেট উদ্ধারসহ ৫ টি মোবাইল ফোনসেট ও মাদক বিক্রয়ের নগদ ২৫,৫০০/- (পঁচিশ হাজার পাঁচশত) টাকা জব্দ করা হয় বলে র‌্যাব সূত্র জানায়।

আটক আব্দুর রহমানের পিতার নাম- মৃত: সিরাজুল ইসলাম, সাং- বংশাল থানাধীন মালিটোলা, ঢাকা, মো. রবিনের পিতার নাম- মো. মাকসুদ, সাং- চকবাজার থানাধীন বকশীবাজারস্থ উমেশ দত্ত রোড, ঢাকা, মো. ফারুক মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং থানাধীন খালপাড় এলাকার বাসিন্দা মো. আকতার শেখ আতাউরের ছেলে, মো. মনির হোসেনের পিতার নাম- মৃত: আলান মিয়া, সাং- কুট্টাপাড়া, থানা- সরাইল, জেলা-বি.বাড়িয়া এবং মো. জাহাঙ্গীর আলম নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও থানাধীন লাদুরছড়ের মৃত: ছিদ্দিক মিয়ার ছেলে মর্মে জানা যায়।

৭ অক্টোবর সোমবার চলমান পরিস্থিতিতে মাদক বিরোধী এই তিন অভিযানে নেতৃত্ব দেন দুপুরের দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ এলাকায় র‌্যাব-১০ সিপিসি-২ এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার এএসপি. মো. আবুল কালাম আজাদ, সন্ধ্যার পর ডেমরা এলাকার অভিযানে নেতৃত্ব দেন সিপিএসসি. র‌্যাব-১০ এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার সি. সহকারি পরিচালক আলী রেজা রাব্বী ও স্কোয়াড কমান্ডার এএসপি. মো. আসাদুজ্জামান এবং রাত দশটার দিকে মালিটোলা অভিযানের নেতৃত্বে ছিলেন র‌্যাব-১০, সিপিসি-৩ এর কোম্পানী কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান এবং স্কোয়াড কমান্ডার সি. এএসপি. মো. রেজাউল করিম পিপিএম।
আটক আসামীদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় নিয়মিত মাদক মামলা রুজু করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করে র‌্যাব।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ