March 27, 2020, 7:43 pm

শিরোনাম :
তাহিরপুরে বিদ্যালয়ের তালা ভেঙ্গে চুরি কেশবপুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জীবাণুনাশক স্প্রে সুন্দরগঞ্জে এমপি কর্তৃক গণমাধ্যমকর্মীদেরকে স্যানিটাইজার-পিপিই প্রদান ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের হৃদরোগ বিভাগের প্রধানসহ দুই চিকিৎসক হোম কোয়ারেন্টিনে কোভিড-১৯ জরুরি তহবিল অনুদান দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কৃতজ্ঞতা সৌদি আরবের করোনার কারণে হজ বাতিল করা হবে না অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যাবেন না-জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বায়ালমারীতে করোনা আতঙ্কে হাসপাতাল ছাড়ছে ভর্তি রোগীরা ভয় নয় সচেতনতা,করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সচেতনতার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন ২৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিল পার্থী সাজ্জাদ হোসেন বোয়ালমারীতে প্রতিবন্ধীর বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট

রাজারহাটে নামাজরত অবস্থায় মাকে কুপিয়ে খুন করল ছেলে

Spread the love

মোঃ রেজাউল হক, রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের, রাজারহাট উপজেলার,উমর মজিদ ইউনিয়নের উমর পান্থাবাড়ি সাভভিটা গ্রামে মাকে নির্মমভাবে কুপিয়ে খুন করেছে যুবক।
ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার (২০/০৩/২০) দুপুর ১.৩০ ঘটিকায়।পুলিশ এবং স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঘাতক মো: মন্জুরুল ইসলাম (৩৫) পিতা: মো: ছোলেমন (৬৮) ছিলেন একজন নেশাগ্রস্থ বাউন্ডুলে মানষিক রোগী।স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মাঝে মাঝেই সে বিনা কারনে অন্যের উপর মর্মান্তিকভাবে আক্রমন চালায়। আজ দুপরে তার মা মোছা: মিনু বেগমকে (৬৫) সে কুঠার দিয়ে কুপিয়ে খুন করে। এসময় তার মা নামাজরত (রুকু) অবস্থায় ছিলেন।স্থানীয় মহিলারা জানায় মিনু বেগম ছিলেন অত্যন্ত পরহেজগার মহিলা। তার ছেলে বিভিন্নভাবে গালিগালাজ করলেও তিনি কিছু মনে করতেন না।আজ এইভাবে তাকে দেখব আমরা কল্পনাও করতে পারিনি।
ঘাতক মো: মন্জুরুল ইসলাম (৩৫) ছিলেন, মা বাবার দুই ছেলে এক মেয়ে সন্তানের মধ্যে দ্বিতীয় সন্তান।উল্লেখ্য যে, তার আরো একজন সত্ মা এবং দুইজন সত্ ভাইও আছে।ঘাতক মন্জুরুলের সত্ ভাবি মোছা: মুন্নী বেগম (২০), স্বামী: মো: মোকসে দুল আলম জানান, আমি যখন গরুকে পানি দিচ্ছিলাম তখন ঘরের ভিতর খুব জোড়ে দুইবার শব্দ শুনতে পাই এবং দৌড়ে গিয়ে দেখি মনজুরুল আমাকে দেখে দৌর দিলো। আমি ভাবলাম ঘরের ভিতর নিশ্চই কিছু একটা ভেঙ্গেছে। কিন্তু ঘরে ঢুকে দেখি, আমার শাশুরীর মৃত দেহ লাফাচ্ছে। আমি চিল্লাচিল্লি করলে এলাকার  মানুষজন ছুঁটে আসে। তারপর আমি আর কিছুই বলতে পারি না।
স্থানীয় সূত্রে আরও জানা যায়, ঘাতক মো: মন্জুরুল ইসলাম দশ বছর আগে একটা বিয়ে করেছিলেন এবং তাকে তালাক দেওয়ার পর থেকে সে মানষিকভাবে অসুস্থ্।  এরপর সে বাউন্ডুলের মত ঘুড়ে বেড়াত এবং নেশায় আসক্ত ছিলো। সে এলাকার মহিলা মানুষকে দেখলে খারাপ কথা ও খারাপ ঈঙ্গিত দিত এবং হঠাত্ করেই অন্যের উপর চড়াও হয়ে আক্রমন করত। এর আগেও সে তার নিজের ভাইয়ের দাঁত ভেঙ্গে দিয়েছিল এবং তার বাবার হাতের আঙ্গুল কাঁমড় দিয়ে ছিড়ে ফেলেছে।
ঘাতক প্রথমে তার মায়ের ঘাড়ে কুঠার দিয়ে কোপ মারে এবং এর পর মাঠিতে পড়ে গেলে গলার ডান দিকে কোপ মারে।
রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃষ্ণ কুমার সরকার বিষয়টি  নিশ্চিত করে জানান, আমরা ঘটনা স্থলে গিয়েছি এবং ঘাতককে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি।একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে এবং লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছি।
প্রাইভেট ডিটেকটিভ/২০ মার্চ ২০২০/ইকবাল
Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ