October 13, 2019, 8:47 pm

রংপুর-৩ আসনে উপনির্বাচন আজ

Spread the love

রংপুর-৩ আসনে উপনির্বাচন আজ

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনে উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ আজ শনিবার। গতকাল শুক্রাবর রংপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা জি এম সাহাতাব উদ্দিন বলেন, অবাধ-সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। নির্বাচনি সামগ্রী কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। রংপুর সিটি করপোরেশন এলাকার এই আসনের উপনির্বাচনে ৫ অক্টোবর সকাল ৯টা থেকে ৪টা পর্যন্ত এক টানা ১৭৫টি ভোটকেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ করার কথা রয়েছে। জাতীয় সংসদের-২১ ও রংপুর-৩ এই আসনে চার লাখের বেশি ভোটারের রায় পেতে ছয় প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রার্থীদের মধ্যে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত জাতীয় পার্টির প্রার্থী রাহগির আলমাহি সাদ এরশাদ রয়েছেন। জাতীয় পার্টির মনোনয়ন না পেয়ে এরশাদের ভাতিজা সাবেক সংসদ সদস্য হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মোটরগাড়ি (কার) প্রতীক নিয়ে লড়াইয়ের মাঠে নেমেছেন। ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে মাঠে আছেন জিয়ার মন্ত্রিসভার সদস্য মসিউর রহমান যাদু মিয়ার বড় মেয়ে রিটা রহমান। বিএনপির মনোনয়ন পাওয়ার রিটা রহমান তার দল ‘পিপলস পার্টি অব বাংলাদেশ’ বিলুপ্ত ঘোষণা দিয়েছেন বলে জানা যায়। এছাড়া এনপিপির শফিউল আলম (আম), খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মন্ডল (দেওয়াল ঘড়ি) এবং গণফ্রন্টের কাজী মো. শহীদুল্লাহ বায়েজীদ (মাছ) প্রতীকে নির্বাচন করছেন। ছয় প্রার্থীর মধ্যে ভোটারদের আলোচনায় এরশাদ পরিবারের দুই প্রার্থী সাদ এরশাদ, শাহরিয়ার আসিফ, অন্যদিকে বিএনপির রিটা রহমানে নাম বেশি আসছে। আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের ভোটগ্রহণের প্রস্তুতি সম্পন্ন করার কথা উল্লেখ করে রিটার্নিং কর্মকর্তা জি এম সাহাতাব উদ্দিন বলেন, কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম)। ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) ব্যবহারের ধারণা দেওয়ার জন্য আগেই সাধারণ ভোটারদের জন্য মক ভোটিং করা হয়েছিল। চার স্তরের নিরাপত্তার বলয় গড়ে তোলা কথা বলে তিনি জানান, পুরো নির্বাচনী এলাকা জুড়ে ১৮ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হচ্ছে। মাঠে থাকবে র‌্যাবের ২০ ইউনিট। পুলিশ-আনসার সদস্য থাকবে ৩ হাজার। সব কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্বপ্রাপ্ত টিম। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্বপ্রাপ্তদের কেন্দ্রের নিরাপত্তার দায়িত্ব বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। কেউ বিশৃংখলার চেষ্টা করলে সাথে সাথে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। অন্যদিকে এই উপ-নির্বাচনে ১৮ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আর চারজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্বে থাকছেন বলে জানান তিনি। রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে- রংপুর সেনানিবাস, রংপুর সদর উপজেলা এবং রংপুর সিটি করপোরেশনের ৩৩টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৮টি ওয়ার্ড ছাড়া বাকি সবগুলো নিয়ে এই আসনটিতে এবারও ১৭৫টি কেন্দ্রের জন্য ১৭৫ জন প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, এক হাজার ২৩ এবং দুই হাজার ৪৬ জন পোলিং অফিসারকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। ‘ঝুঁকিপূর্ণ ৪৯টি কেন্দ্রসহ’ মোট ১৭৫টি ভোটকেন্দ্রের এক হাজার ২৩টি গোপনকক্ষে চার লাখ ৪১ হাজার ২২৪ জন ভোটারের ভোট দানের ব্যবস্থা করা হয়েছে, যাদের মধ্যে পুরুষ দুই লাখ ২০ হাজার ৮২৩ এবং নারী ভোটার দুই লাখ ২০ হাজার ৪০১জন। বেসরকারি সংস্থা জাতীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষক পরিষদের (জানিপপ) কর্মীরা এই নির্বাচনে পর্যবেক্ষক হিসেবে মাঠে থাকছে বলেও জানান তিনি। গত ১৪ জুলাই জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ মৃত্যু হলে আসনটি শূন্য হয়।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ