May 27, 2019, 3:39 am

প্রতিকি ছবি

রংপুর মহানগরীর হারাটি এলাকায় পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে একজন গ্রেফতার

Spread the love

রংপুর ব্যুরো:

প্রতিকি ছবি

রংপুর মহানগরীর হারাটি এলাকায় এক পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টায় অভিযুক্তকে আটক করেছে পুলিশ। জানা গেছে পরশুরাম থানাধীন হারাটি (বটতলা পশ্চিম পাড়া) গ্রামের দিনমজুর পিতার পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া ১০ বছর বয়সী কন্যাকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের চেষ্টা করে প্রতিবেশী সিরাজুল ইসলাম @ (সেরা) এর ছেলে এক সন্তানের জনক শাহীনুর ইসলাম।মেয়ের বাবা রুবেল মিয়া জানান, গত ১৩ মে সোমবার বেলা আনুমানিক বিকাল ২টার দিকে আমার মেয়ে বাড়ির টিউবওয়েলে গোসল করতে ছিলো, আমি ও আমার স্ত্রী পার্শ্ববর্তী জমিতে কাজ করছিলাম, বাড়িতে আমার মেয়েকে একা পেয়ে শাহীনুর তাকে জাপটে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। আমার মেয়ের চিৎকারে প্রতিবেশিরা ছুটে আসলে শাহীনুর তার গায়ের জামা রেখে পালিয়ে যায়।তবে অভিযুক্ত শাহীনুরের পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়, চলাচলের রাস্তা নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত ওই পরিবারটির সাথে দ্বন্দ্ব চলে আসছে তাদের। সে কারণে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে আমাদেরকে হয়রানি করার উদ্দেশ্যে এটি একটি মিথ্যা সাজানো মামলা করা হয়েছে। এটি সম্পুর্ণ মিথ্যা ঘটনা। ধৃত শাহিনুরের চাচাতো ভাই আমিনুরের বোনজামাই বিপ্লব জানান চলাচলের রাস্তা নিয়ে দীর্ঘ দিন যাবত রুবেল এবং রুবেলের পরিবারের সাথে একটা দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। যার কারণে শাহীনুরের পরিবারকে নাজেহাল করার জন্য তারা ছোট্ট একটা মাসুম বাচ্চাকে এ ঘটনা ঘটার চেষ্টা করছে। উল্লেখিত ঘটনা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং বানোয়াট।ওই ঘটনায় মেয়ের বাবা রুবেল মিয়া বাদী হয়ে মেট্রোপলিটন পরশুরাম থানায় মামলা করেছে। মামলা নং-৫, গত ১৫/০৫/২০১৯ ইংতারিখ-। পরে পরশুরাম থানা পুলিশ ওই ধর্ষণচেষ্টা মামলার প্রেক্ষিতে গোপন সংবাদেরভিত্তিতে এসআই খায়রুল ইসলাম, এএসআই নিরঞ্জন, এএসআই ফরহাদ এএসআই মনির সঙ্গীয় ফোর্সসহ বুড়ির হাট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অভিযুক্ত শাহীনুরকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। এ বিষয়ে জানতে চাইলে পরশুরাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মহছেউল গণি ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান আসামীকে গ্রেফতারপূর্বক আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/ ১৮ মে ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ