July 20, 2019, 2:17 pm

শিরোনাম :
বহু কষ্টের পর অবশেষে ১কর্নার মা হলো প্রাইভেট ডিটেকটিভ পত্রিকার ভোলা জেলা প্রতিনিধি রুজিনা বেগম ইসলামপুরে বন্যার্তদের মাঝে মন্ত্রী আগমনে ত্রান বিতরন তাহিরপুর কয়লা আমদানীকারক গ্রুপের ত্রাণসামগ্রী বিতরণ মিঠাপুকুরে ৩দিন ব্যাপি ফলদ বৃক্ষ মেলা উদ্বোধন হাফছড়ি বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল ও পুরস্কার বিতরন সুন্দরগঞ্জে বানভাসিদের দুর্ভোগ চরমেঃ বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি কনফিডেন্স পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর সাফল্যে গাথা ৮ বছর চৌদ্দগ্রামে এইচএসসিতে শতভাগ পাশ চার কলেজ বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স অফিস না করেই বেতন ভাতা উত্তোলন করছে ডাক্তার ও দুই স্বাস্থ্য পরিদর্শক পাইকগাছার চাঁদখালীতে একাধিক জায়গায় কাঠ পুড়িয়ে তৈরী হচ্ছে কয়লা
প্রতিকি ছবি

রংপুর নগরীর বাবু পাড়ায় নিখোঁজের তিনদিন পর গৃহবধূর লাশ উদ্ধার আটক ৩

Spread the love
আবুল হোসেন বাবলু,বিশেষ প্রতিনিধি:

প্রতিকি ছবি

রংপুর নগরীর বাবু পাড়া এলাকায় তিন দিন নিখোঁজ থাকার পর ডোবা থেকে দুই সন্তানের জননী রেশমা বেগম @রেশমি  (২৬)এর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মৃতের গলায় গামছা পেঁচানো ছিল এবং লাশের গায়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পুলিশ জানায় মৃতের স্বামী আব্দুল খালেক @ জুম্মান ও বড় ভাই বান্ঠাসহ তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। মৃতের চোখে ও গলায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, নিখোঁজের কয়েকদিন আগে ওই মহিলার ভাসুর ও তার পরিবার কর্তৃক মারডাং এর শিকার হয় রেশমি। এলাকাবাসী জানান উক্ত ঘটনায় ওই মহিলা থানায় অভিযোগ করতে গিয়েছিল, কিন্তু অভিযোগ করেছিলেন কিনা তা জানা যায়নি।রসিক  ২৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হারুনর রশিদ জানান মৃত রেশমি দুই সন্তানের জননী। রেশমির বাবার বাড়ি দিনাজপুরে।বিগত ৫/৬ বছর আগে রংপুর নগরীর বাবুপাড়া এলাকার মৃত আঃ কাবেল মিয়ার পুত্র মোঃ আঃ খালেক@জুম্মনের সাথে বিয়ে হয়। সংসার করাকালীন দুই সন্তানের জননী হন রেশমি। বড় সন্তানের বয়স সাড়ে তিন বছর,আর ছোট সন্তানের বয়স প্রায় দেড় বছর। কাউন্সিলর জানান রেশমি নিখোঁজের পর তার স্বামী জুম্মন কোতোয়ালি থানায় একটি জিডি করেছিলেন।এ বিষয়ে জানতে চাইলে রংপুর মেট্রোপলিটন কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রশিদ বলেন আমি নিজেই ঘটনাস্থলে এসেছি লাশের সুরত হাল দেখে প্রাথমিক ধারণা হিসেবে এটি হত্যাকাণ্ড বলেই মনে হচ্ছে,  তবে আমরা এটাকে আরো নিবিড় ভাবে তদন্ত করে দেখছি, এছাড়া পোস্টমর্টেম রিপোর্ট আসলে বাকিটা বোঝা যাবে।এলাকাবাসী আরো জানায় যে ডোবায় রেশমির মরদেহ পাওয়া গেছে সেখানে কোন মানুষ মারা যাওয়ার মত গভীরতা নেই। ওটা একটা নর্দমার মত ময়লা ফেলা ডোবা। নাম না প্রকাশের শর্তে প্রতিবেশী জানান, নিখোঁজের কয়েকদিন আগে ওই মহিলার ভাসুর ও তার পরিবারের সাথে ঝগড়াঝাটি হয়েছিল, একপর্যায়ে রেশমিকে তারা মার ডাং করে।
প্রাইভেট ডিটেকটিভ/১১জুলাই ২০১৯/ইকবাল
Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ