October 25, 2020, 7:10 pm

শিরোনাম :
রংপুরে ডিপ্লোমা ঐক্য পরিষদ এর মানববন্ধন ও র‍্যালী অনুষ্ঠিত রাজশাহীতে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবসে পুজামন্ডপে নিসচার মাস্ক ও সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ মহিপুরে নৈশ প্রহরী নিয়োগের নামে উৎকোচ গ্রহণ কলাপাড়ায় ইউপি সদস্য হত্যা মামলায় তিনজনকে গ্রেফতার সুন্দরগঞ্জে শারদীয়োৎসবে দুঃস্থ মহিলাদেরকে বস্ত্র বিতরণ রাজশাহীতে তিন দশক পর ‘ঢলন’ প্রথা আজ বিলুপ্ত বৃষ্টিতে অচল জগন্নাথপুর-সিলেট সড়ক রংপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ধর্ষণের চেষ্টা’ থানায় অভিযোগ আদমদীঘিতে ৬০কেজি গাঁজাসহ গ্রেপ্তার- ৩ মোরেলগঞ্জে সাড়ে ৮ লাখ টাকার অবৈধ জাল আটক ও ভস্মিীভূত করেছে নৌবাহিনী চিলমারীতে কাঁচকোল সামাজিক সংগঠনের উদ্দেগে গরীব ও অসহায়দের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে সরিষাবাড়ীতে পিডিবি‘র একটি খুটির মূল্য ৪ হাজার টাকা ঝড়ো আবহাওয়ায় কুয়াকাটা সৈকতে পর্যটকদের ভীড় যাত্রাবাড়ী ও চকবাজার থানা এলাকা থেকে ইয়াবা ও ফেসিডিলসহ আটক ০২ মধ্যনগরে মসজিদ নির্মাণের টাকা আত্নসাদের অভিযোগ র‌্যাব-৫ এর পৃথক দুটি অভিযানে অবৈধ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার’ দুই মাদক ব্যাবসায়ী অটক ভারতে পাচার ৩ যুবক-যুবতীকে বেনাপোলে হস্তান্তর র‌্যাব-১০ পৃথক পৃথক অভিযানে ঢাকার কেরানীগঞ্জ এলাকা থেকে ইয়াবা ও বিয়ারসহ আটক ০৩ আদমদীঘিতে ১২০বোতল ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার রংপুরে পুলিশ কর্মকর্তার বাসায় চুরি ও এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা খোয়া

রংপুরে দুই কৃষকের জমি সরকারি গৃহায়ণ সমবায় সমিতির কালো থাবার কবলে

Spread the love

রংপুর ব্যুরো::


রংপুরে সরকারি গৃহায়ণ সমবায় সমিতির সভাপতি সম্পাদকের  বিরুদ্ধে মামলা
রংপুরে অসহায় দুইজন কৃষকের পৈত্রিক জমি অবৈধ দখলে নিতে ভূমিদস্যুচক্র কর্তৃক অবৈধ দলিল সৃজন করে মালিকানা দাবী তুলে অবৈধ দখল নেবার চেষ্টা। আদালতে মামলা দায়ের করে প্রতিকার দাবী।
নির্ভরযোগ্যসূত্রে জানা গেছে, রংপুর মহানগরীর আরপিএমপি হাজিরহাট এলাকার উত্তমে রংপুর বিভাগীয় সরকারি কর্মকর্তা গৃহায়ণ সমবায় সমিতি সাধারণ সম্পাদক রংপুর আদর্শ পাড়ার মৃত: জ্যোর্তিময় শিকদারের ছেলে জয়ন্তকুমার শিকদার ও রংপুর কামাল কাছনার মৃত: ফয়েজ উদ্দিনের ছেলে ভূমিদস্যু-দালাল আবুল ফজল রিজভী, গৃহায়ণ সমিতির সভাপতি  পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার পাথরাজ গ্রামের মৃত: ধীরেন্দ্রনাথ বর্মার ছেলে নারায়ন চন্দ্র বর্মা, উত্তম বাওয়াইপাড়ার মৃত: হাজী নেজাম উদ্দিনের ছেলে মোফাজ্জল হোসেনকে অভিযুক্ত করে স্থানীয় দুইজন কৃষকের পক্ষে মৃত: মতিয়ার রহমানের ছেলে গোলাম রব্বানী বাদী হয়ে বিজ্ঞ আদালতে জাল দলিল সৃজন করে অন্যের হোল্ডিং ব্যবহার করে  ভূয়া খারিজের মাধ্যমে অবৈধ দখলে নেয়ার অপচেষ্টার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং সিআর ৬৯/২০২০। ধারা-৪৬৭, ৪৬৮ ও ৪৭১ দ:বি:।
মামলা ও স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, ২০১১ সাল থেকে রংপুর বিভাগীয় সরকারি কর্মকর্তা গৃহায়ণ সমবায় সমিতি ওই এলাকায় প্রায় বার একর জমি ক্রয় করে অনেকগুলো প্লট তৈরী করে গৃহায়ণের সাইনবোর্ড টানায়। এক পর্যায়ে অত্র মামলার বাদীর পৈত্রিক জমিও কেনার প্রস্তাব দেয় দালালচক্র। জমি বিক্রিতে রাজি না হলে ক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠেন দালাল চক্রটি। চলতি বছরের ৩ মার্চ জোর করে জমি অবৈধ দখলে নিতে না পারলে বাদীর উক্ত জমিতে থাকা ঘরবাড়ি ও গাছপালা এবং পাহারাদারকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রাতের আধারে সবকিছু ট্রাকযোগে উচ্ছেদ করে নিয়ে যায় চক্রের ভাড়াটিয়া গুন্ডা মাস্তানরা। এ বিষয়ে হাজিরহাট থানায় অভিযোগ জানালেও অদৃশ্য কারণে কাজে আসেনি। যা রংপুরের স্থানীয় পত্র পত্রিকায় ও জাতীয় পত্রিকায় খবর হয়।  গৃহায়ণ ম্যানেজার ও চক্রের স্থানীয় মূলহোতা মশিউর, আবুল ফজল রিজভী, রাসেলসহ অজ্ঞাতদের যোগসাজসে মালিকদের নাম ব্যবহার করে জাল দলিল সৃজন-ভূয়া হোল্ডিং ব্যবহার করে খারিজের মাধ্যমে জয়ন্ত কুমার শিকদারের নিকট বিক্রি করে। অতঃপর জয়ন্ত কুমার শিকদার সেই জমি আবার সৃজিত দলিলের উপর ভর করেই সমিতির কাছে বিক্রি করে অবৈধ ফায়দা লুটেন। এরপর তথায় মাটি ফেলতে শুরু করলে স্থানীয়দের বাধার মুখে তা বন্ধ হয়ে যায়।
অবাক হবার বিষয়, অনুসন্ধানে দেখা গেছে, গৃহায়ণ সমিতি ৪৭০ দাগের হোল্ডিং ব্যবহার করেছে ৪৯৬৯ ও ১৩১ খারিজ খংনং ১৯৬২, খারিজ কেস নং-৩৮৯৫/১৩/১৪, জয়ন্ত ও রিজভীর খারিজ কেস নং-৭৩৫৫/১৩/১৪ খারিজ খংনং ২১১২ আগত হোল্ডিং ১৩১। যার নেপথ্যে অন্যসব মালিকের নাম পাওয়া গেলেও ব্যবহৃত হোল্ডিং এর কোন বৈধতার প্রমাণ আজো মিলে নাই। স্থানীয় চক্রটি সচিব ও সাবেক বিভাগীয় কমিশনারসহ গৃহায়ণ সমিতির বেশকিছু কর্মকর্তার প্রভাব খাটায়।
এ ব্যাপারে ম্যানেজার মশিউর বলেন, আমরা ঠিকই আছি, আমার সাথে অসংখ্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকজন আছেন, সংবাদ করে কোন লাভ হবে না। যাদের উদ্দেশ্যে লিখবেন তারাই তো এই সমিতির মাথা।  অভিযুক্ত রিজভীকে বিভিন্ন সময়ে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন ধরেনি।
গৃহায়ণ সমিতির সভাপতি নারায়ন চন্দ্র বর্মা বলেন,  ‘আমি তো এই সমিতিতে যেতে আগ্রহী ছিলাম না। তদুপরী আমাকে সভাপতি করেছে। স্থানীয় দুইজন কৃষকের জমি অন্যায়ভাবে আপনার সমিতির সাধারণ সম্পাদক কিনে আবার তা সমিতির নামে লিখে দিয়েছেন। আমি তো এতকিছু জানিনা। যা কিছু  করে সম্পাদক জয়ন্তই করেন। আমাকে  মাঝে মধ্যে একটু আধটু শেয়ার করেন। যা হোক, আমি জয়ন্তকে বলবো বিষয়টি দেখবার জন্য।’
আরপিএমপি হাজিরহাট থানার সাব-ইন্সপেক্টর ইয়াছিন খাঁন জানান, বিজ্ঞ আদালত থেকে উক্ত ৭০.৩৩ শতক জমির উপর ১৪৪ ধারার আদেশ মতে উভয়পক্ষকে শান্তি শৃংখলা বজায় রাখার জন্য  আদালতের আদেশ জানিয়ে নোটিশ করেছি।
অন্যদিকে, মোজাহারুল হকের ছেলে কৃষক মোখলেছার এডিএম কোর্টে ১৪৪ ধারার আবেদন করলে স্থানীয় তহসিলদার মেসবাহ প্রতিবেদনে লিখেন যে, ‘উক্ত বিরোধীয় সম্পত্তি কারই দখলে নাই। তবে কার দখলে ওই জমি প্রশ্ন করলে তিনি এড়িয়ে যান। তবে তিনি এও বলেন, আমি উক্ত বিরোধীয় জমিতে গিয়ে  গাছপালা, চালাঘর ও  বাঁশের বেড়া-টাটি দেখেছি। পরবর্তীতে মামলা হওয়ায় উত্তম ভূমি অফিস উভয় পক্ষের খাজনা নেয়া বন্ধ রেখেছি।’
স্থানীয়দের মধ্যে ফজলে রহমান, গোলজার হোসেন, এফজালুল হক, জয়নাল আবেদীন ও ফজলুল হকসহ আরও অনেকেই গণমাধ্যমের সামনে জানান, যে এই জমি আমাদের জানামতে কারও কাছে বিক্রি করেন নাই মূল মালিক গোলাম রব্বানী ও মোখলেছার।
জয়ন্ত কুমার শিকদার বলেন, আমি এগুলো  জানিনা। যারা আমাদের জমি কিনে দিয়েছেন, তারাই ভাল জানেন। আবুল ফজল রিজভীই এই কাগজপত্র সব ঠিক করেন, আর আমি শুধু রেজিস্ট্রি করে নিয়েছি। আমরা অনেক জমিই কিনেছি। জমি কেনার বিষয়ে কেউ যদি সংক্ষুদ্ধ হন, তো তারা মামলা করতেই পারেন। আমরা মামলায় দেখবো। মশিউর রহমান, কামাল মো: রাসেল ও মাহফুজার রহমান লাভলু ও আবুল ফজল রিজভীকে জমি কেনার ব্যাপারে দায়িত্ব দেয়া আছে। জয়ন্ত কুমার শিকদার আরও বলেন, মশিউর, মাহফুজুর রহমান লাভলু,  আবুল ফজল রিজভী ও রাসেলকে সব দায়িত্ব দেয়া আছে। তারাই সব বলতে পারবেন।
আবুল ফজল রিজভী, রাসেলকে ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তারা কেউই ফোন রিসিভ করেননি। মাহফুজার রহমান লাভলু জানান, আমি জয়ন্ত কুমার শিকদার স্যারের জমি কেনা-বেচার বিষয়ে আমিসহ রাসেল, মশিউর জড়িত না। যদি স্যার বলে থাকেন তো কি আর বলার। তবে বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন বলে আমার জানা আছে। অসহায় ওই দুই কৃষক রংপুরের সর্বস্তরের প্রশাসন, গণমাধ্যমসহ বর্তমান সরকার প্রধান জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবরেও আবেদন জানিয়ে ন্যায় বিচারের আকুতি করে আসছে।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ