February 23, 2020, 11:09 am

শিরোনাম :
মিথ্যা দিয়ে কখনও সত্য মুছে ফেলা যায় না – প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অপরাজনীতির শিকার ক্লিন ইমেজের কাউন্সিলর প্রার্থীরা,বাড়ছে অসন্তোষ যশোরের চৌগাছায় নকল ঔষধ বিক্রয়ের অভিযোগে আটক -২ চিলমারীতে ফ্রেন্ডশিপের প্রকল্প সুচনা কর্মশালা অুনষ্ঠিত বোয়ালমারীতে মোটরসাইকেলসহ চোর আটক ফলোআপ ২ প্রশাসনের ভুমিকা নিয়ে প্রশ্ন! পীরগঞ্জে সিলগালাকৃত তালা ভেঙ্গে চালাচ্ছে ব্যবসা! বোয়ালমারীতে স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হযরত খাজার বশীর ইউনানী আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের শুভ উদ্ধোধন বিদেশ থেকে কাঁচা ফুল ও প্লাস্টিক ফুল আমদানী বন্ধের দাবীতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন একসঙ্গে দুটি স্বর্ণখনির সন্ধান পেল ভারত

রংপুরের পীরগাছার রাজমিস্ত্রি সুজন হত্যার মুল রহস্য উদঘাটন গ্রেফতার ৪ (প্রেমিকার শ্বশুর ও তার পরিবার মিলে হত্যা করে সুজনকে)

Spread the love
আবুল হোসেন বাবলু,বিশেষ প্রতিনিধি রংপুরঃ
রংপুরের পীরগাছায় রাজমিস্ত্রি সুজন হত্যার ঘটনায় মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে
৯দিনের মাথায় এ মামলার মুল রহস্য উদঘাটন করেছে পীরগাছা থানা পুলিশ।
গত ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইং তারিখ বৃহস্পতিবার  বিকেলে গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে নিলুফা আক্তার নিশা হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়ে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে তাদেরকে জেলহাজতে পাঠানো হয়। এর আগে বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে এ ঘটনায় জড়িত পরকীয়া প্রেমিকা নিলুফা আক্তার নিশা ও তার শ্বাশুড়ীসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদের মধ্যে প্রেমিকা নিলুফা আক্তার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। এ ব্যাপারে সুজনের ভাই শফিকুল বাদী হয়ে মামলা করেছেন মামলা নং-১৮, তারিখ-২৯/০১/২০২০।
৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইং তারিখ শনিবার দুপুরে পীরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম এর উপস্থিতিতে এক প্রেস বিফিংয়ে এ তথ্য জানান, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পীরগাছা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আজিম উদ্দিন। তিনি জানান, উপজেলার অন্নদানগর ইউনিয়নের প্রতাব জয়সেন গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে সুজন আহমেদ (১৮) গত ২৫ জানুয়ারি রাতে ফোনে কথা বলতে বলতে বেড়িয়ে যায়। সে আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। ২৯ জানুয়ারি দুপুরে বাড়ির পাশের একটি ফাঁকা মাঠে সুজনের লাশ দেখতে পেয়ে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।
৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইং তারিখ শনিবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পীরগাছা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আজিম উদ্দিন ওই প্রেস বিফিংয়ে আরো জানান, সুজনের সাথে কথোপকথনের কল লিস্ট এর সূত্র ধরে অন্নদানগর ইউনিয়নের রেজাউল করিমের স্ত্রী (পরকীয়া প্রেমিকা) নিলুফা আক্তার নিশি (২৪), তার শ্বাশুরী নাসিমা আক্তার (৪৫), ভাসুর নাজমুল হক (৩৫) ও একই এলাকার নিজাম উদ্দিনের ছেলে নুরুল হক (৩৭)কে গ্রেফতার করা হয়।
এদের মধ্যে (প্রেমিকা) নিলুফা আক্তার
 নিশি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দেন। জবানবন্দিতে নিশি জানান, তার বিয়ের পর প্রতিবেশি দেবর রাজমিস্ত্রি সুজন আহমেদের সাথে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তার পর থেকেই নিয়মিত মোবাইলে কথা হতো তাদের। নিশির স্বামী ঢাকায় পোশাক কারখানায় কাজ করেন। বিষয়টি স্বামী-শ্বশুর জানতে পেরে তাকে ঢাকায় নিয়ে যান।
গত ৬ জানুয়ারি নিশি ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়িতে আসে। এরপর থেকে গভীর রাতে দেবর সুজনের সাথে বেশ কয়েক দিন নিশির দেখা ও শারিরিক সম্পর্ক হয়। ঘটনার দিন ২৫ জানুয়ারি রাতে বাড়ির পাশে খড়ের গাদায় পুত্রবধু নিশি ও সুজনকে ধরে ফেলে নিশির শ্বশুর আব্দুল জলিল, শাশুড়ি নাসিমা আক্তার ও ভাসুর নাজমুল হক। তারা নিশিকে চড়-থাপ্পড় দিয়ে ঘরে পাঠায় এবং সুজনকে পিটিয়ে হত্যা করে। পরে সবাই মিলে সুজনের লাশ তাদের ঘরে লুকিয়ে রাখে।
পরদিন শ্বশুড় পুত্রবধু নিশিকে বাপের বাড়িতে পাঠিয়ে দেন এবং লাশ গুমের পরিকল্পনা করতে থাকে। ইতিমধ্যে সুজনের নিখোজের বিষয়ে থানায় জিডি করা হলে ওই রাতে কৌশলে লাশ পাশের জঙ্গলের মধ্যে লুকিয়ে রাখে হত্যাকারীরা। সেখান থেকে ২৯ জানুয়ারি পুলিশ সুজনের লাশ উদ্ধার করে।
এ বিষয়ে পীরগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম বলেন, মাত্র ৯দিনের মাথায় এ মামলার মুল তথ্য উদঘাটন করা হয়েছে। গ্রেফতার ৪ জনের একজন প্রেমিকা নিশি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। ঘটনায় জড়িত বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।
প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০/ইকবাল
Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ