September 17, 2019, 6:55 pm

যেভাবে শ্বাস নেবেন ইতিবাচক জীবনে

Spread the love

যেভাবে শ্বাস নেবেন ইতিবাচক জীবনে

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

পশ্চিমা বিজ্ঞান ও চিকিৎসাশাস্ত্র বেঁচে থাকার জন্য অবিচ্ছেদ্য শারীরিক ক্রিয়া হিসেবে ব্রিদিং বা শ্বাসক্রিয়ার ওপর ফোকাস করছে। অন্যদিকে, পূর্বীয় স্বাস্থ্যবিজ্ঞান একে শরীর ও আত্মার পুষ্টি হিসেবে অভিহিত করছে।

চীনারা বিশ্বাস করে যে, মাইন্ডফুল ব্রিদিং বা মনোযোগী শ্বাসক্রিয়া বা সচেতন শ্বাসক্রিয়া কিংবা ব্রেথওয়ার্কের (মনের ভার হালকা, ধ্যান অথবা শারীরিক ও মানসিক উন্নয়নের উদ্দেশ্যে সচেতন বা নিয়ন্ত্রিত শ্বাসক্রিয়া) অনেক উপকারিতা রয়েছে, যেমন- মনোযোগের উন্নয়ন, দক্ষতার উন্নয়ন, ইতিবাচকতা বৃদ্ধি, শারীরিক ও মানসিক শক্তি বৃদ্ধি।

ব্রেথওয়ার্ক শত শত বছর ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে এবং এর প্রভাবে জীবন পরিবর্তন হতে পারে। ট্র্যাডিশনাল চাইনিজ মেডিসিন প্র্যাকটিশনার আলেক্স ট্যান ব্রেথওয়ার্কের জন্য নিচের ধাপসমূহ অনুসরণ করতে পরামর্শ দিয়েছেন।

১. মাংসপেশি শিথিল করম্নন : মেরম্নদ- সোজা রেখে দাঁড়ান বা বসুন, গলাকে দীর্ঘায়িত করম্নন এবং মাথার তালুকে আকাশ বরাবর রাখুন। মাসল বা মাংসপেশীকে পুরোপুরি শিথিল করম্নন, প্রয়োজনে প্রতিটি মাসল গ্রম্নপের ওপর মনোনিবেশ করম্নন- কারণ মাংসপেশি কঠিন টান বা অতিরিক্ত টান হারাচ্ছে এবং শিথিল হচ্ছে।

২. শ্বাস পর্যবেক্ষণ করম্নন : আপনার শ্বাস সম্পর্কে সচেতন হোন এবং যে কোনো প্যাটার্ন বা শ্বাসের ধরন লক্ষ্য করম্নন। আপনার শ্বাসগ্রহণ কি ধীরে বা দ্রম্নত হয়? শ্বাসগ্রহণ কি সহজে করতে পারেন? অথবা শ্বাসগ্রহণ কি দুরূহ লাগছে? শ্বাসগ্রহণ ও শ্বাসত্যাগের নিরন্ত্মর চক্র সম্পর্কে ধারণা রাখুন।

৩. শ্বাসগ্রহণ ও শ্বাসত্যাগে মনোযোগ দিন : প্রতিটি শ্বাসগ্রহণ ও শ্বাসত্যাগে মনোযোগী হোন। শ্বাসগ্রহণের সময় ফুসফুসকে পুরোপুরি বায়ুপূর্ণ করম্নন। ফুসফুসকে সম্পূর্ণরূপে বায়ুভর্তি করতে পেটকে প্রসারিত করম্নন। শ্বাসত্যাগের সময় যতটা সম্ভব ধীরে সব বায়ু বের করে দেয়ার চেষ্টা করম্নন। প্রধানত শ্বাসত্যাগ নিয়ন্ত্রণে মনোনিবেশ করম্নন, যা সার্বিকভাবে আপনাকে ধীর ও অধিক নিয়ন্ত্রিত শ্বাসক্রিয়ার দিকে ধাবিত করবে।

৪. নাকের মাধ্যমে শ্বাসক্রিয়া সম্পাদন করম্নন : শুধু নাকের মাধ্যমে শ্বাসগ্রহণ ও শ্বাসত্যাগ করম্নন। মুখের রম্নফ বা হার্ড প্যালেটে জিহবা ঠেসিয়ে আপনার মুখ বন্ধ রাখা উচিত, কিন্তু আপনার দাঁত শিথিল ও মুক্ত থাকা উচিত।

৫. মনকে শ্বাসের ওপর স্থির রাখুন : ব্রেথওয়ার্কের লক্ষ্য হচ্ছে প্রতিটি শ্বাস ও শ্বাসচক্রের ওপর মনোযোগ দেওয়া। আপনি যদি আপনার টু-ডু লিস্ট বা করণীয় কার্য নিয়ে চিন্ত্মা করতে শুরম্ন করেন অথবা যদি মনকে এখানে সেখানে বিচরণ করতে দেন, তাহলে শ্বাসের ওপর আপনার নিয়ন্ত্রণ থাকবে না। শ্বাসগ্রহণে ফুসফুসে অক্সিজেনের আগমন ও ধীরে শ্বাসত্যাগে তা নির্গমনের সময় মনোযোগী হোন। শ্বাসগ্রহণ ও শ্বাসত্যাগ প্রক্রিয়ার ওপর মনোনিবেশ করম্নন অথবা পেটের ওপর আপনার মনোযোগ স্থির করম্নন- কারণ এটি প্রতিটা শ্বাসের সঙ্গে সম্প্রসারিত ও সংকুচিত হয়।

৬. টাইমিং বিবেচনা করম্নন : যে কোনো সময় ব্রেথওয়ার্ক চর্চা করা যায়, কিন্তু দিনকে অধিক ফলপ্রসূ করার জন্য শরীর ও মনকে প্রস্তুত করতে খুব সকালে ব্রেথওয়ার্ক করতে আলেক্স ট্যান পরামর্শ দেন। ব্রেথওয়ার্ক শুরম্ন করতে খাবার খাওয়ার পর কমপক্ষে এক ঘণ্টা অপেক্ষা করম্নন এবং একটি সেশন শেষ করার পর আধ ঘণ্টার মধ্যে কোনো ঠা-া তরল পান করবেন না। দিনের কোনো সময় মাইন্ডফুল ব্রিদিং বা সচেতন শ্বাসক্রিয়া শুরম্ন করবেন তা কোনো ব্যাপার নয়। তবে আলেক্স ট্যান প্রতিদিন একই সময়ে তা চর্চা করতে পরামর্শ দেন- কারণ সার্বিক সুস্থতার জন্য নিয়মানুবর্তিতা বা ধারাবাহিকতা গুরম্নত্বপূর্ণ।

আপনি যদি একবার মনোযোগের সঙ্গে ব্রেথওয়ার্ক বা মাইন্ডফুল ব্রিদিং সম্পাদন করতে পারেন, তাহলে এটি আপনার জীবনের অন্যান্য অংশকে সহজতর করে তুলবে। শিগগির আপনি সম্পূর্ণ প্রচেষ্টা ছাড়া ধ্যান করতে সক্ষম হবেন।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ