July 9, 2019, 1:35 am

শিরোনাম :
ভোলা জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও গ্রাম অঞ্চল গুলোতে গলাকাটা গুজব আতংঙ্কে এলাকাবাসী ঘোড়াঘাটে নাবালিকা মেয়ে অপহরণ থানায় মামলা অপহৃতা উদ্ধার আলফাডাঙ্গায় ইসলামী ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং নতুন কেন্দ্র উদ্বোধন সরকারবাজার-গোরারাই বাজার এলজিইডির পাকা সড়ক ভাঙ্গনের মুখে সুন্দরগঞ্জে সঙ্গো প্রকল্পের অবহিতকরণ সভা বান্দরবানে ঝুকিপূর্ণ বসবাসকারীদের নিরাপদে সরিয়ে নিতে প্রশাসনের মাইকিং ও অভিযান সিংগাইরে বিষাক্ত ঘাস খেয়ে ২০টি ছাগলের মৃত্যু অসুস্থ হয়ে আছে শতাধিক জৈন্তাপুর মোকামটিলায় কিশোরীর আত্মহত্যা চৌদ্দগ্রামে অবৈধভাবে জমি দখলকারী দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে গ্রামবাসীর মানববন্ধন পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে ধর্মান্তরিত করে রাত্রিযাপন, পুলিশি বিচার প্রশ্নবিদ্ধ

মোবাইল অপারেটরগুলো ফোরজি’র গতিতে পিছিয়ে

Spread the love

মোবাইল অপারেটরগুলো ফোরজি’র গতিতে পিছিয়ে

ডিটেকটিভ প্রযুক্তি ডেস্ক

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসি খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ১৮ জেলার বিভিন্ন এলাকায় ড্রাইভ টেস্ট পরিচালনা করেছে। ড্রাইভ টেস্টের প্রতিবেদনে দেখা গেছে অপারেটররা সবচেয়ে বাজে সেবা দিচ্ছে বরিশালে। আর ফোরজি’র গতিতে মোবাইল অপারেটরগুলো পিছিয়ে।

ফোরজি’র জন্য সাত এমবিপিএস (মেগাবিটস পার সেকেন্ড) সেবা দেওয়ার কথা থাকলেও সেখানে বাংলালিংক ফোরজিতে তিন দশমিক ৫৬ এমবিপিএস, রবি ৪ দশমিক ৮৯, গ্রামীণফোন ৫ দশমিক ১ এমবিপিএস গতিতে সেবা দিচ্ছে। ঢাকার বাইরে টেলিটকের ফোরজি সেবা না থাকায় অপারেটরটি এই হিসাবের বাইরে ছিল।

টেলিফোন অপারেটর

তবে থ্রিজির বেলায় নির্ধারিত দুই এমবিপিএস ডাইনলোড গতি অন্য অপারেটরগুলো নিশ্চিত করতে পারলেও কোনও বিভাগেই টেলিটক থ্রিজির সেই গতি দিতে পারেনি।

আর ভয়েস কলে দেখা গেছে, বিটিআরসি নির্ধারিত কল ড্রপ দুই শতাংশ হলেও এই বিভাগে টেলিটকের কল ড্রপ সাত দশমিক ৯২ শতাংশ। অপারেটরটির কল ড্রপ রেট রাজশাহী ও খুলনা বিভাগে আছে নির্ধারিত সীমার বেশি। অন্যদিকে, কল সেটআপের জন্য বিটিআরসি নির্ধারিত ‘সাত সেকেন্ড’ সময় চার অপারেটরের কেউই রাখতে পারেনি।

এ বিষয়ে বিটিআরসির জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) জাকির হোসেন খান বলেন, এ ড্রাইভ টেস্ট কমিশনের একটি চলমান কার্যক্রম যার মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে মোবাইল অপারেটরগুলোর সেবার মান সম্পর্কে কমিশন

ধিকতর স্পষ্ট ধারণা লাভ করলো। আশা করছি পরবর্তীতে সংশ্লিষ্ট নীতিনির্ধারণী বিষয়ে সময় উপযোগী সিদ্ধান্ত গ্রহণ কমিশনের কাছে আরও সহজতর হবে এবং এর ফলে গ্রাহক সেবার মান বাড়বে।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ