August 7, 2020, 12:44 am

শিরোনাম :
অপোর নতুন স্মার্টফোন এ৯২ বাজারে রাজশাহী মহানগরীতে কাউন্সিলরের কার্যালয়ে রাতের আধাঁরে জানালা ভেঙে রহস্যজনক চুরি কলাপাড়ায় আয়রন ব্রিজ ভেঙ্গে দূর্ভোগে কৃষক তাহিরপুরে ভারতীয় নাসির বিড়িসহ আটক ২ রাজশাহীতে পরকীয়া প্রেমিকের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় স্ত্রীকে ধরলেন স্বামী ও এলাকাবাসী মেয়র রোকনের বিরুদ্ধে তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে নিয়ে মানহানিকর বক্তব্যের প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন র‍্যাব-৫ এর অভিযানে ইয়াবা, মোটরসাইকেল ও অন্যান্য দ্রব্যাদিসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার চিলমারীতে বন্যার্তদের মাঝে ঢাকা মহানগর ও রেডিয়েন্ট রোটারি ক্লাবের ত্রান বিতরণ বোয়ালমারীতে অবৈধভাবে খাল দখল,স্থানীয়দের মাঝে উত্তেজনা আলফাডাঙ্গায় মধুমতি নদীর ভাঙনের কবলে ১০ গ্রাম

মোদীর সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সৌজন্য সাক্ষাৎ

Spread the love

মোদীর সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সৌজন্য সাক্ষাৎ

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে তার সরকারি বাসভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সপ্তম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের শেষ দিনে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে তিনি সাক্ষাৎ করেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা শরীফ মাহমুদ অপু এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত বৈঠকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত কর্মসূচির অংশীদার হতে আগ্রহ প্রকাশ করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। বৈঠকের শুরুতে ভারতের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের অকাল মৃত্যুতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গভীর শোক প্রকাশ করেন। ১৭তম লোকসভা নির্বাচনে বিপুল বিজয়ের মাধ্যমে দ্বিতীয় বারের মতো ভারতের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ায় নরেন্দ্র মোদীকে অভিনন্দন জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এদিকে, একাদশ জাতীয় সংসদে নিরঙ্কুশ বিজয়ের মাধ্যমে টানা তৃতীয় বারের মতো বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির ভূয়সী প্রশংসা করেন মোদী। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সীমান্তে মাদকসহ সব চোরাচালান বন্ধে ভারত সরকারের সহযোগিতা কামনা করেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী সীমান্তে মাদক চোরাচালান বন্ধসহ একটি নিরাপদ ও কার্যকর সীমান্ত প্রতিষ্ঠায় দু’দেশ একসঙ্গে কাজ করবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে ভারত সরকারের সহযোগিতা কামনা করেন। জবাবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী জানান ভারত সরকার ইতোমধ্যে মিয়ানমার সরকারের সঙ্গে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আলোচনা করেছে এবং ভারত সরকার মনে করে এ সমস্যার দ্রুত সমাধান প্রয়োজন। রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে প্রত্যাবর্তনে মিয়ানমারের সঙ্গে আলোচনা করে সহযোগিতা করবেন বলে আশ্বাস দেন তিনি। বৈঠকে এ এলাকার আঞ্চলিক শান্তি ও উন্নয়নে বিমসটেক কার্যকরী ভূমিকা রাখবে বলে মোদী মনে করেন। বাংলাদেশের ভূমি ব্যবহার করে কোনো সন্ত্রাসী, জঙ্গি ও বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী যাতে ভারতসহ অন্য কোনো দেশের ক্ষতি করতে না পারে সে বিষয়ে বাংলাদেশের গৃহীত নীতির ভূয়সী প্রশংসা করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় বাংলাদেশ বিশ্বে এক রোল মডেল বলে অভিহিত করে বিশেষজ্ঞদের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অবলোকন করার জন্য বাংলাদেশ ভ্রমণের কথা বলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। সাক্ষাতে আরও উপস্থিত ছিলেন ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, সুরক্ষাসেবা বিভাগের সচিব মো. শহিদুজ্জামান, আইজিপি ড. মো. জাবেদ পাটোয়ারী।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ