February 16, 2019, 9:23 pm

শিরোনাম :
প্রধান অতিথী স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী পীরগঞ্জের ঝাড়বিশলায় প্রয়াত সাধক কবি হেয়াত মামুদ এর মৃত্যু বার্ষিকী পালিত হবে রোববার সুলভ করার চেষ্টা হচ্ছে এলপিজি: জ¦ালানি প্রতিমন্ত্রী ফাঁস সনি’র নতুন ফ্ল্যাগশিপ গার্মেন্টসে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ কমিটিকে দ্রুত রিপোর্ট প্রদানের নির্দেশনা শ্রম প্রতিমন্ত্রীর প্রয়োজনের অতিরিক্ত উৎপাদিত ৩৫ লাখ টন আলু রফতানির চিন্তা: বাণিজ্যমন্ত্রী বাংলাদেশের সমসাময়িক রাজনৈতিক অঙ্গনে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই: ওবায়দুল কাদের শহীদ মিনারও এখন দলীয়করণের শিকার: রিজভী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ করার নির্দেশ পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রীর সংরক্ষিত নারী আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী ৪৯ জন

ভোলা-২ আসনে আ. লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

Spread the love

ভোলা-২ আসনে আ. লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ভোলা-২ আসনে (বোরহানউদ্দিন-দৌলতখান) আসনে নির্বাচনী পরিবেশ ক্রমশই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। নির্বাচনী মাঠে নৌকার প্রার্থীকে দেখা গেলেও মাঠে নেই বিএনপি প্রার্থী। তবে নির্বাচনী পরিবেশ নিয়ে উভয় প্রার্থী একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ তুলেছেন। গতকাল বুধবার দুপুরে বোরহানউদ্দিনে নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করেন বিএনপি প্রার্থী হাফিজ ইব্রাহিম। এসময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থীর লোকজনের বাধার মুখে নির্বাচনী প্রচারণায় নামতে পারছেন না। নিজ বাসায় তাকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এ পর্যন্ত দুই মামলায় ৭০০ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। অন্তত ২০০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। প্রতিপক্ষরা হামলা চালিয়ে অন্তত ৫০ জনকে আহত করেছে। রিটার্নিং কর্মকর্তা বা প্রশাসনকে ২৪টি অভিযোগ দেওয়া হলেও তারা কোনো ব্যবস্থাগ্রহণ করছেন না বলেও অভিযোগ করেন হাফিজ ইব্রাহিম। এসময় উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাফরুজা সুলতানা, কেন্দ্রীয় শ্রমিক দলের নেতা রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। একইদিন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী আলী আজম মুকুল তার নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, বিএনপি প্রার্থী হাফিজ ইব্রাহিমকে কেউ বাধা দেয়নি। তার (হাফিজ) নির্দেশে ২০০১ সালের পর সাধারণ মানুষের ওপর নির্মম নির্যাতন করা হয়েছিলো। যে কারণে মানুষ ক্ষুব্ধ হয়ে আছে। তিনি লোক লজ্জায় ঘর থেকে বের হচ্ছেন না। তিনি জনগণকে কি জবাব দিবেন, সেই ভয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় নামছেন না। ২০০১ সালের বিএনপির আমলে নির্যাতনের বিভিন্ন চিত্র তুলে ধরে মুকুল বলেন, হাফিজ ইব্রাহিম বোরহানউদ্দিন-দৌলতখানে সন্ত্রাস করেছেন। এমনকি তার দলের অনেক নেতাও তার হাত থেকে রক্ষা পায়নি। সংবাদ সম্মেলন শেষে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে গণসংযোগ, পথসভা ও উঠান বৈঠক করেন আলী আজম মুকুল। দুটি পৌরসভা, দু’টি উপজেলা ও ১৮টি ইউনিয়ন নিয়ে ভোলা-২ (বোরহানউদ্দিন-দৌলতখান) আসন গঠিত। এখানে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশের তিন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ