April 3, 2020, 5:17 pm

শিরোনাম :
নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করোনিয় বার্তা জনসাধারনের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন আই, এইচ, সেবা প্রতিষ্ঠান যশোর হাসপাতালে করোনা পরীক্ষা করার জন্য মেশিন দিলেন শাহীন চাকলাদার আলফাডাঙ্গায় ৪ শতাধিক নিম্নআয়ের মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কর্মহীন মানুষের মাঝে আলফাডাঙ্গা স্বেচ্ছাসেবকলীগের ত্রাণ বিতরণ সুন্দরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত তাহিরপুরে জানখালি নদী থেকে ড্রেজারে বালু উত্তোলণ: হুমকির মুখে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কুয়াকাটায় বাকিতে না দেওয়ায় কৃষককে মারধর করে তরমুজ লুট করেছে সন্ত্রাসীরা উপকুলে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় মাঠে নেই এনজিও সংস্থা গুলো কলাপাড়ায় করোনা সন্দেহে দুই জনের নমুনা সংগ্রহ,লক ডাউনে দু’টি বাড়ি রাজারহাটের ইউএনও যোবায়ের হোসেন যেন মানবতার ফেরিওয়ালা

ভোলা বোরহানউদ্দিনের কাচিয়া ইউনিয়ন এ ভূমিদস্যুদের তান্ডবে অতিষ্ঠ এলাকা বাসি

Spread the love

বোরহানউদ্দিন (ভোলা) প্রতিনিধিঃ

ভোলার বোরহানউদ্দিনের কুঞ্জেরহাট এলাকার দালাল বাজারে, সেলিম গ্রুফ এর অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকা বাসি, সেলিমএর নেতৃত্বে ভূমিদস্যু একটি গ্রুপের তান্ডবে অতিষ্ট হয়ে পরেছে, দালাল বাজার এলাকায় কয়েকটি পরিবার, কয়েকদিন পরপরই, তারা ভবানী চন্দ্রদাস এর বাড়িতে থাকা হিন্দু পরিবারের উপর অত্যাচার করে, তাদের জমি জমা দখল করার জন্য। ঐএলাকার কয়েকজন গন্যমান্য লোকজন বলেন, ১৯শে ডিসেম্বর ২০১২ইং তারিখে ৪৯৩৯ নং কবলা দলিলের ভূমি ওপর ওয়ারিশ পুত্র, সুখরঞ্জন দাস হতে খরিদ মূলে ১.০৪ একর ভূমি কিনেন , তার পরই, সেলিমদের পরিবার তাদের বাড়ির হিন্দু পরিবারের উপর বিভিন্ন প্রকার অত্যাচার শুরু করে, সেই বাড়ির তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে, বোরহানউদ্দিন থানায় সেলিম দের বিরুদ্ধে কয়েকটি মামলাও করে ঐ বাড়ির লোকজন। তার পরপরই, ঐবাড়ির পাশের বাড়ির, আলমগীর পাটোয়ারী, ১৯ শে ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে, ৪৯৪০ নং কবলা দলিল পর্যালোচনা করিয়া দেখা যায় ৫৮ নং জেএল ভূক্ত চকডোষ মৌজার এসএ =৬১৫,৬২০,৬২১,৬২২,৬১৩,৬১৬,৩৭৬ নং খতিয়ানে, রেকডীয় অমৃতলাল পিতাঃ ডাওরিচরন দাস মৃত্যুতে উল্লিখিত ওয়ারিশ পুত্র কিরন চন্দ্র দাস হতে, মোট =০.৬৮ একর ভূমি খরিদ সুত্রে মালিক আছেন। ১০ই জানুয়ারি ২০১১ তরিখে, ১০৪নং কবলা দলিল পর্যালোচনা করিয়া দেখা যায়, উল্লেখিত দাতা কিরন চন্দ্র দাস ৬১৬ নং খতিয়ানে ০.০৩ একর ভূমি, (১) মোঃ শফিউল্লাহ, পিঃ মৃত সুলতান আহমেদ, (২) মিনারা, জং তৈয়ব এদের নিকট বিক্রি করেন এবং খরিদা ভূমি ভোগ দখলে আছেন। আলমগীর পাটোয়ারী, কিরন চন্দ্রদাস থেকে ২০১২ সালের কিনা জমির উপর লোভপেয়ে যায় সেলিম সহ তার পরিবারের, তারপর, ১৮ই ডিসেম্বর ২০১৭ সালে, গোপনে কিরন চন্দ্রদাস কে নিয়ে, এসএ খতিয়ান অনুযায়ী, ৬১৪,৬১৫,৬২১,৩৭৬,৬১৬ জোরপূর্বক ভাবে জমি দলিল করে তাদেরকে সেখান থেকে ইন্ডিয়া পাঠিয়েদেয়, সেলিম এর মাতা মোসাম্মৎ ছালেহা বেগম এর নামে জমিন দলিল নেন। সেলিম ও তার পিতা ছলেমান সহ অন্যান্যরা। তার পেক্ষিতেই, সেলিম এর নেতৃত্বে তার পিতা সহ, ভোলা কোর্টে এই জমিজমার বিরুদ্ধে মামলা করে। তার পরই কোর্ট থেকে, ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা কাচিয়া ইউনিয়ন ভূমি অফিস, বোরহানউদ্দিনের মোঃ সুজাউদ্দৌলা সিকদার এর নিকট ভূমি তদন্ত করার দায়িত্ব দেয়া হয়। ভূমি অফিসের রিপোর্ট অনুযায়ী, এমপি,২৭৭/১৯ বোরঃনং দলিল পত্র পর্যালোচনা করিয়া পাওয়া পূর্ব বিক্রি বাদ সেলিমরা, ৬১৪ নং খতিয়ানে ০.০১একর, এসএ ৬১৫ খতিয়ানে ০.১৪ এসএ ৬১৬ খতিয়ানে ০.০০ শতাংশ ,এসএ ৬২১ খতিয়ানে ০.০৫ এবং ৩৭৬ খতিয়ানে ০.০২ একর। মোট = ০.২২ একর ভূমি প্রাপ্য। উল্লেখিত, ১৯শে ডিসেম্বর ২০১২ কবলা নং ৪৯৪০ খরিদ সুত্রে, মালিক হইয়া তাদের সত্য ভোগ দখলিয় জমিতে প্রবেশ করিলে, ভূমিদস্যু সেলিম গংরা দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে আক্রমণ করে এবং বিভিন্ন প্রকার প্রভাবশালীদের ক্ষমতা দেখান তারা বলেন এই জমিনে আসলে দুই একটা লাশ পড়বে, এভাবেই ক্ষমতার প্রভাব দেখিয়ে জমিজমা দখল করার চেষ্টা করে। এবং আলমগীর পাটোয়ারীদের নামে মিথ্যা মামলা করে হয়রানির শিকার করেন।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/১৯ মার্চ ২০২০/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ