October 18, 2019, 9:21 pm

ভুয়া দলিল করে পিতার সম্পত্তি হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা, আদালতে ভুয়া দলিল বাতিল

Spread the love

রুহুল আমীন খন্দকার, ব্যুরো প্রধান :

রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার বাকশিমইল গ্রামের মরহুম ফরিদ উদ্দীন আহম্মেদের ছেলে সাদিকুল ইসলাম স্বপন ও আল মামুনুর রশিদের বিরুদ্ধে ভুয়া দলিল তৈরি করে পিতার সম্মতি হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টার অভিযোগ করেছেন বঞ্চিত ফকরুল ইসলামসহ ৮ সন্তান। শুক্রবার বিকালে রাজশাহী প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে বঞ্চিত সন্তানরা এ অভিযোগ করেন।বঞ্চিত সন্তানদের পক্ষে লিখিত বক্তব্যে ফকরুল ইসলাম বলেন, আমার পিতার বসত-ভিটা, কবরস্থানসহ মোট ৩৫ শতাংশ জমি আমরা ১০ ভাই-বোন ভোগ দখল করছি। কিন্ত আমার পিতার মৃত্যুর প্রায় ১৮ বছর পর ২০০৭ সালে আমার দুই ভাই সাদিকুল ইসলাম স্বপন ও মামুনুর রশিদ ১৯৮৮ সালে রাজশাহী সদর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের ৭৫৫৪ নং একটি ভুয়া দলিল দেখিয়ে ওই সম্পত্তি থেকে আমিসহ (ফকরুল ইসলাম) আমার ৮ ভাই-বোনকে উচ্ছেদের চেষ্টা করছেন। পরে আমরা ২০০৭ সালে মোহানপুর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে ভুয়া দলিল রদ-রহিতের একটি মামলা দায়ের করি। শুনানী অন্তে ১০ বছর পর বিজ্ঞ আদালত ২০১৭ সালের ২২ জুন ভুয়া দলিল বাতিল করে রায় প্রদান করেন এবং ওই মাসের ২৮জুন আমাদের পক্ষে ডিক্রী প্রদান করেন।তিনি আরও বলেন, সাদিকুল ইসলাম ও মামুনুর রশিদ  একই বছর ৮ আগস্ট এ রায়ের বিরুদ্ধে রাজশাহী জেলা জজ আদালতে একটি স্বত্ত আপিল দায়ের করেন যা চলমান আছে। কিন্তু মামলা চলমান অবস্থায় তিনি ২২৭ নং হাল দাগের ১১ শতাংশ জমির উপর আরেকটি বাড়ি নির্মানের উদ্যোগ নিলে আমরা এর প্রতিকার চেয়ে মোহনপুর থানায় অভিযোগ করি। কিন্তু অভিযোগ করার পরও সাদিকুল ইসলাম স্বপন একজন সংবাদকর্মী হওয়ার কারণে থানা-পুলিশ তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেনা। সংবাদ সম্মেলন থেকে বঞ্চিত সন্তানরা সাদিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/৭জুলাই ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ