December 16, 2019, 5:35 am

শিরোনাম :
নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে উত্তাল ভারত, রাতভর শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ ব্রিটেনের রাজপ্রাসাদের রাজকীয় চাকরি রাজকীয় বেতন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জোড়া গোলে জয়ের দেখা পেলো জুভেন্টাস মহান বিজয় দিবসে জাতীয় স্মৃতিসৌধে বীর শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা আজ ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ ইংতারিখ সোমবার মহান বিজয় দিবস,জয় বাংলা বাংলার জয় মুক্তিযুদ্ধে আওয়ামী লীগের কতজন মন্ত্রী-এমপি অংশ নিয়েছিলেন প্রশ্ন ফখরুলের নেহেরু-গান্ধী পরিবারকে নিয়ে আপত্তিজনক মন্তব্য করায় অভিনেত্রী পায়েল রোহতগিকে আটক বিএনপির এখন এক দফা রফা হয়ে গেছে – মোহাম্মদ নাসিম এমপি সারা দেশের ৪৭ হাজার গ্রাম পুলিশকে সরকারি চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীর পদমর্যাদা দিয়ে জাতীয় বেতন স্কেলে অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় অন্যকে ফাঁসাতে মানসিক ভারসাম্যহীন ফুফাতো ভাইকে গলাকেটে হত্যা করে মামাতো ভাই আটক
প্রতিকি ছবি

বড়াইগ্রামে ক্লাসে গান না গাওয়ায় ছাত্রকে ৩শ’বার কানধরে উঠবস

Spread the love
মোঃ সালমান হোসাইন, নাটোর জেলা সংবাদদাতাঃ

প্রতিকি ছবি

নাটোরের বড়াইগ্রামে শ্রেণি কক্ষে শিক্ষকের নির্দেশে গান না গাওয়ায় শাস্তি হিসাবে ৫ম শ্রেণির এক ছাত্রকে ৩শ’ বার কান ধরে উঠবস করানো হয়েছে। ঘটনাটি উপজেলার রামাগাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।এ ঘটনায় গত ৫ সেপ্টেম্বর  বৃহস্পতিবার ওই ছাত্রের অভিভাবক শিক্ষা অফিসার বরাবর অভিযোগ করেছেন।নির্যাতনের শিকার ছাত্র নাজমুস সাদিক রাফি ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমা খাতুন ও বনপাড়া এলাকার কলেজ শিক্ষক আব্দুস সালামের ছেলে।জানা যায়, বুধবার সহকারি শিক্ষক দীপেন্দ্রনাথ সরকার ৫ম শ্রেণিতে ক্লাস নিচ্ছিলেন। এ সময় তিনি রাফিকে একটি গান গাইতে বলেন। কিন্তু সে গান জানে না জানিয়ে জাতীয় সঙ্গীত গাইতে চায়। শিক্ষক তাতে রাজি না হয়ে তাকে আধুনিক গান গাইতে বলেন। কিন্তু রাফি তাতে রাজি না হলে ওই শিক্ষক তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে ৩শ’ বার কান ধরে উঠবস করার নির্দেশ দেন। পরে বাধ্য হয়ে সে কান ধরে তিনশ’ বার উঠবস করে। এ সময় ওই শিক্ষক বেত হাতে নিয়ে তার পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন বলে তার সহপাঠীরা স্বীকার করেছে। এতে বাড়ি এসে অসুস্থ হয়ে পড়লে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে তাকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে বলে তার অভিভাবকেরা জানিয়েছেন।এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য অভিযুক্ত শিক্ষক দীপেন্দ্রনাথ সরকারের মোবাইলে কল দেয়া হলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়েই তিনি কল কেটে দেন।প্রধান শিক্ষক নাজমা খাতুন বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বৃহস্পতিবার আমি ওই শিক্ষককে ডেকে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি আমাকেও অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেন। বিষয়টি আমি শিক্ষা অফিসার মহোদয়কে জানিয়েছি।সহকারি উপজেলা শিক্ষা অফিসার সাইদুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি দুঃখজনক। এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ