November 14, 2019, 8:30 am

শিরোনাম :
ভোলায় ১ কেজি ৫০০ গ্রাম গাজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক অ্যানালগ চরিত্রের হতে হবে নেতাকর্মীদের – সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিজয় দিবসের কোনো অনুষ্ঠানে থাকতে পারবে না যুদ্ধাপরাধীরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা কমিটির বৈঠকে বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উদযাপন জগন্নাথপুরে আওয়ামীলীগ নেতা সহ ৪ জনকে কারাদ- শার্শা বেনাপোল সীমান্তে ১৬ পিস স্বর্ণের বারসহ ৩ পাচারকারী আটক তাহিরপুরে ৮৫ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ইয়াবা সম্রাট সৈকত আটক  গাইবান্ধায় সড়ক পরিবহন আইন সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধি কল্পে মতবিনিময় ও লিফলেট বিতরণ সুনামগঞ্জ সীমান্তে ৪ লাখ ভারতীয় পণ্য আটক  আইন মেনে গ্রাম আদালতে বিচারিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে – ইউএনও শারমিন আক্তার

বড়সড় হামলার কবলে পড়তে যাচ্ছে কাশ্মির!

Spread the love

বড়সড় হামলার কবলে পড়তে যাচ্ছে কাশ্মির!

ডিটেকটিভ আন্তর্জাতিক ডেস্ক

শীতের মৌসুম শুরু হয়েছে। আর এই শীতের সুযোগ কাজে লাগিয়ে কাশ্মিরে চালানো হতে পারে বড়সড় আত্মঘাতী হামলা। কারণ শীতে বরফে আচ্ছাদিত থাকে কাশ্মির উপত্যকা। ভারতীয় গোয়েন্দারা এমনই তথ্য পেয়েছেন বলে দেশটির গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে।

 

গোয়েন্দারা বলছেন, লস্কর-ই-তৈয়্যেবা ও জইশ-ই-মোহাম্মাদের মতো সংগঠনের আত্মঘাতী সদস্যরা ইতিমধ্যেই সেই হামলার পরিকল্পনা করতে শুরু করেছে। সেটা চূড়ান্ত করতে পাকিস্তানের ভাওয়ালপুরের ঘাঁটিতে প্রশিক্ষিত সদস্যদের ডেকে পাঠিয়েছিলেন খোদ জইশ প্রধান মাসুদ আজহার। আবার লস্কর কমান্ডার আবু উজাইল সরাসরিই ঘোষণা করেছেন, শিগগিরই ভয়ঙ্কর আত্মঘাতী হামলার মুখে পড়বে ভারত।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা বিভাগের এক পদস্থ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই সব তথ্য পাওয়ার পরই তা কেন্দ্রকে জানানো হয়েছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে। তবে আত্মঘাতী হামলা হবে বলে গোয়েন্দারা ইঙ্গিত পেলেও তা কবে, কোথায় হতে পারে, সে বিষয়ে খুঁটিনাটি জানা যায়নি।

 

সেনা সূত্রের বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়েছে, শীতের সময় প্রায় গোটা উপত্যকা প্রায় বরফে ঢাকা পড়ে যায় বলে তার আগেই হামলাকারীরা নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে প্রবেশ করতে পারে। আর এ কাছে পাক সেনাবাহিনী মদদ থাকে। তবে ভারতীয় সেনাদের কাছে বিষয়টি পরিচিত বলে কড়া নজরদারি চালানো হচ্ছে।

 

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের পুলওয়ামায় এক আত্মঘাতী হামলায় অন্তত ৪০ সেনা নিহত হয়। তার পরই পাক-ভারত উত্তেজনা বাড়তে থাকে।

 

এর মধ্যেই গত ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ ধারা বিলোপ করে জম্মু-কাশ্মির রাজ্যের মর্যাদা কেড়ে নেয় ভারতের বর্তমান হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার। এ নিয়ে পাক-ভারতের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

 

এমনই প্রেক্ষাপটে ভারতীয় গোয়েন্দারা উপরোক্ত আশঙ্কা ব্যক্ত করছেন। তবে এর আগেও কয়েকবার বড় ধরনের হামলার আশঙ্কা প্রকাশ করেন ভারতীয় গোয়েন্দারা। কিন্তু সে ধরনের কোনো ঘটনা এখন পর্যন্ত ঘটেনি।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ