June 30, 2020, 6:54 am

শিরোনাম :
বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই নিয়ামুলকে বদলি বাঁকড়া বাসীর ক্ষোভ প্রকাশ লক্ষ্মীপুরে এমপি পাপুলকে সুবিধাদান কারী জাতীয় পার্টির নেতা নোমান বহিষ্কার! আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় গেলেই বাঙালি কিছু পায় দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী ২০ বছর পরও একই জায়গায় দাঁড়িয়ে বাংলাদেশের ক্রিকেট-বিসিবির সাবেক সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী অভাবে এখন রাস্তায় সবজি বিক্রি করছেন বলিউড সুপারস্টার আমির খানের সহ-অভিনেতা জাভেদ হায়দার ২৯০ পুরিয়া গাঁজাসহ কারবারি বাবু আটক বৃষ্টির অজুহাতে একদিনের ব্যবধানে রাজধানীর খুচরা বাজারে কাঁচামরিচের কেজি ২০০ টাকা কোভিড-১৯ সংক্রমণ থেকে বাঁচতে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে ইরানে দেশকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরানোর প্রত্যয় কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক এমপির মধুপুরে খাদ্য সহায়তা ও সবজি বীজ বিতরণ চট্টগ্রাম বন্দরে সেই ২০১৫ সালের কোকেন চোরাচালান মামলায় চার্জশিট দিয়েছে তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাব

বোয়ালমারীতে সরকারি খাল অবৈধ ভাবে ইজারা দিলেন ছাত্রলীগ নেতা

Spread the love

 

কামরুল সিকদার, বোয়ালমারী (ফরিদপুর) থেকে ।।

 

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার ময়না ইউনিয়নের ঠাকুরপুর খাল জেলেদের নিকট অবৈধভাবে ইজারা দিলেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রিপন মোল্যা ও ওদুদ মোল্যা। খালে আড়াআড়ি বাধ দিয়ে মাছ শিকার করা হচ্ছে।

জানা যায়, উপজেলার ময়না ইউনিয়নের ঠাকুরপুর ময়না বিল থেকে একটি সরকারী খাল চন্দনা বারাশিয়া নদীতে এসে পড়েছে। বর্ষা মৌসুমে ওই খাল দিয়ে বিলের পারি প্রবেশ করে ও শুকনা মৌসুমে বিলের পানি নদীতে ফের নেমে আসে। খালটি সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকায় প্রতি বছরই খাল থেকে মৎস্য আহরণ করে খাদ্য চাহিদা পূরণ করতো স্থানীয় বাসিন্দারা। এ বছর খালটি ৪০ হাজার টাকায় স্থানীয় জেলে ইমান উদ্দিনের নিকট ইজারা দিয়েছে ময়না ইউনিয়নের সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি মো. রিপন মোল্যা এবং ঠাকুরপুর গ্রামের ওদুদ মোল্যা। খাল ইজারা দেওয়ায় খালের দুই পাড়ের বাসিন্দারা এ নিয়ে অসন্তোাষ প্রকাশ করেছে।

বাধ নির্মাণকারী ইমান উদ্দিন বলেন, আমি আ’লীগ নেতা রিপন মোল্যা ও ওদুদ মোল্যার নিকট থেকে ৪০হাজার টাকায় খালটি এক বছরের জন্য ইজারা নিয়েছি। সে কারণে খালে বাধ দিয়ে মাছ শিকার করছি।

এ ব্যাপারে রিপন মোল্যার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, খালের মাছ বারোজনে মেরে খায়। এ বছর ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নের জন্য জেলেদের নিকট ৪০ হাজার টাকায় ইজারা দিয়েছি। এ টাকা একটি মন্দির ও ৫টি মসজিদে দান করা হয়েছে।

ওদুদ মোল্যা বলেন, দুইটি গ্রামের মধ্যদিয়ে বয়ে যাওয়া খালটি এ বছর দুই গ্রামের লোকজন বসে খাল ইজারা দিয়ে মসজিদ ও মন্দিরে টাকা দেওয়ার কথা হয়। সেই মোতাবেক খালটি ইজারা দিয়ে ঠাকুরপুর-বান্দুগ্রামের একটি মন্দির ও ৩টি মসজিদে ২০ হাজার ও ময়না গোরস্থান মাদ্রাসা ও মসজিদে ২০হাজার টাকা দান করা হয়েছে।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ বিশ্বাস বলেন, এ খালে বাধ দেওয়া নিয়ে আমি বেশ ঝামেলায় আছি। বাধ নির্মাণকারীরা উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে এসেছিল। শুনেছি খালটি ৪০ হাজার টাকা বিক্রি করে বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে দান করেছে।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ