August 7, 2020, 9:57 pm

শিরোনাম :
নবীগঞ্জে মেয়র ছাবির আহমদ ও তার স্ত্রীর করোনা মুক্তিতে ছাত্রদল নেতার উদ্দ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বকশিগ‌ঞ্জে ৪৩ হাজার ৩৫০ টাকাসহ ৮ জুয়ারী গ্রেফতার শাঁখারী বাজারে চোলাই মদসহ কারবারি রুপী রানী আটক কামরাঙ্গীরচরে ইয়াবাসহ কারবারি ইব্রাহীম ও শাহীন গ্রেফতার বঙ্গমাতারজন্মদিনে দুঃস্থদের হুইল চেয়ার দিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী কলাপাড়ায় দূর্নীতির অভিযোগে পিআইও সাময়িক বরখাস্ত সুন্দরগঞ্জে মাদকসেবীর কারাদন্ড সরিষাবাড়ীতে হত্যা মামলার খুনিদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন নবীগঞ্জের সকলের প্রিয়মুখ দিলীপ ভট্টাচার্য্যের পরলোক গমন : বিভিন্ন মহলের শোক দেশে উন্নয়নের নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে -কৃষিমন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি

বাঁকড়ায় পারিবারিক কোলহের জের ধরে গাছ ও তরকারির ক্ষেত কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষ

Spread the love

বিল্লাল হুসাইন,যশোর জেলা ব্যুরো প্রধানঃ

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া ইউনিয়নের মাটশিয়া গ্রামে, পারিবারিক কলহের জের ধরে এক কৃষকের মেহগনী গাছ সহ,তরকারির ক্ষেত কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। পুলিশের বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ না করার অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগি।জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে মাটশিয়া গ্রামের আব্দুর রশিদের পুত্র শরিফুল ইসলাম ও আব্দুর রবের পুত্র আহসান কবীর ওরফে হুমায়ুন কবীরের সাথে গন্ডোগোল বাধে। এ সময় আহসান কবীর, তার মাতা তোহরা বেগম ও বোন ইভা খাতুন চাইনিজ কুড়াল ও লাঠি নিয়ে শরিফুল ইসলামকে মারতে আসে। স্থানীয় প্রতিবেশীদের সাহায্যে শরিফুল ইসলাম প্রাণে বেঁচে যায়। পরে বিষয়টি নিয়ে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অভিযোগ করলে এএসআই মিজানুর রহমান ঘটনার তদন্তে আসে। ঘটনাস্থলে এসে আহসান কবীর ও তার মায়ের নিকট থেকে এএসআই মিজানুর রহমান ২০ হাজার টাকা গ্রহণ করে। ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত না করে আসামীর পক্ষ নিয়ে কথা বলেছেন বলে অভিযোগ করেছেন,শরিফুল ইসলাম ও তার ভাবী বকুল খাতুন।এদিকে ঘটনায় পুলিশ কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় রাতে শরিফুল ইসলামের বড় ভাই, মাহাবুর রহমান বিশ্বাসের মাঠে লাগানো ২৫০ টি মেহগনি গাছ, ২০ টি পেঁপে গাছ, মানকচু ও সাত কাঠা জমির পটল ক্ষেত কেটে দিয়েছে আহসান কবীর গংরা। এতে করে ঐ কৃষকের প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে।এ ব্যাপারে মাহাবুর রহমান বিশ্বাস জানান, তার আর কোন উপার্জনের উৎস নেই। এই চাষের উপর তার সংসার চলে। এছাড়া শরিফুল ইসলাম জানান, আমাকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে আহসান চাইনিজ কুড়াল নিয়ে এসেছিল। প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় প্রাণে   বেঁচে গিয়েছি।বকুল বেগম নামে আহসান কবীরের সৎ মাতা জানান, আহসান শিবিরের একজন কট্টরপন্থী সমার্থক। সে বিভিন্ন ধরনের অপকর্ম ও সরকার বিরোধ্য কার্যকলাপ চালায়। মোবাইল ফোনে বিভিন্ন সময়ে আমাকে হত্যার হুমকি দেয়। পুলিশকে বলেও কোন কাজ হয় না। ওরা টাকা দিয়ে পুলিশকে পক্ষে নিয়ে নেয়। মঙ্গলবারেও একই কাজ হয়েছে। চাইনিজ কুড়াল নিয়ে হত্যা করতে আসলে আর পুলিশ তাদের পক্ষে নিয়ে আমাদের ফাঁড়িতে আটকিয়ে রাখার চেষ্টা করেছে।উল্লেখ্য এ ব্যাপারে জানার জন্য বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই মিজানুর রহমানের, মোবাইলে ফোন দিলে তিনি ফোন কেটে দেন। পরে বিষয়টি নিয়ে ঝিকরগাছা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০৫ ডিসেম্বর ২০১৯/ইকবাল
Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ