February 25, 2020, 2:43 pm

শিরোনাম :
মুজিববর্ষের অঙ্গীকার হিসেবে সবার জন্য নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্য নিশ্চিত করতে সকলে একসাথে কাজ করার জন্য কৃষিমন্ত্রী ড.মোঃ আব্দুর রাজ্জাক এমপির আহবান কলাপাড়ায় সততা সংঘের সমাবেশ অনুষ্ঠিত নাভারন হাইওয়ে পুলিশের দুর্নীতি নাভারন-সাতক্ষিরা সড়কটি বৃষ্টির দিনে মানুষের কাছে বিষফোঁড়ায় পরিণত সুন্দরগঞ্জে গৃহবধূর আত্মহত্যা গাইবান্ধায় ১৫০ ইট ভাটা অবৈধভাবে চলছে ! কুয়াকাটায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৮টি খাবার হোটেলকে জরিমানা শার্শার বাগআঁচড়ায় শরীরে অভিনব কায়দায় রাখা ফেন্সিডিল সহ ১যুবক আটক আদমদীঘিতে কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত পাবনার চাটমোহর উপজেলার শ্রেষ্ঠ চিকিৎসক হলেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রুহুল কুদ্দুস ডলার নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগে সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে সব এমপিদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন মালয়েশিয়ার রাজা আবদুল্লাহ রিয়াদউদ্দিন

বন্যা পরিস্থিতি উন্নতির দিকে

Spread the love

বন্যা পরিস্থিতি উন্নতির দিকে

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

দেশের মধ্যাঞ্চল, পশ্চিমাঞ্চল ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতি উন্নতির দিকে। আগামি দুদিনে বন্যার পানি পুরোপুরি নেমে গিয়ে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র। মৌসুমি বায়ু (বর্ষা) সক্রিয় হওয়ার কারণে দেশের ভেতরে ও ভারতে ভারী বৃষ্টির কারণে গত ১ অক্টোবর এসব অঞ্চলে বন্যা দেখা দেয়। গতকাল শনিবার দুপুরে বৃষ্টিপাত ও নদ-নদীর অবস্থা নিয়ে প্রতিবেদনে পূর্বাভাস কেন্দ্র জানিয়েছে, গঙ্গা-পদ্মাসহ দেশের সব প্রধান নদ-নদীর পানি কমছে। আগামি ৪৮ ঘণ্টায় গঙ্গা-পদ্মা নদীর পানি আরও কমতে পারে। এতে গঙ্গা-পদ্মা ও গড়াই নদীসংলগ্ন উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের পাবনা; পশ্চিমাঞ্চলের কুষ্টিয়া, মাগুরা; মধ্যাঞ্চলের রাজবাড়ী, মানিকগঞ্জ, ফরিদপুর, মাদারীপুর, শরীয়তপুর ও মুন্সীগঞ্জ জেলার নিম্নাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে। এ ছাড়া আগামি ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত ব্রহ্মপুত্র-যমুনা ও সুরমা-কুশিয়ারার পানি কমা অব্যাহত থাকতে পারে। এদিকে গঙ্গার পানি হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পয়েন্টে ৩ সেন্টিমিটার ও গোয়ালন্দ পয়েন্টে পদ্মা নদীর পানি ৪ সেন্টিমিটার বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ ছাড়া কামারখালী পয়েন্টে গড়াই নদীর পানি ১৬ সেন্টিমিটার বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান ভূঁইয়া বলেন, বন্যা পরিস্থিতির অলরেডি উন্নতি শুরু হয়ে গেছে। দু-একদিনের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে। এখন তিনটি স্থানে নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে জানিয়ে নির্বাহী প্রকৌশলী বলেন, হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পয়েন্টে পানি আজকের মধ্যে বিপৎসীমার নিচে নেমে যাবে। অন্য দুটি পয়েন্টে আজ রোববারের মধ্যে বিপৎসীমার নিচে নেমে যেতে পারে। অপর দিকে আবহাওয়া অধিদফতর গতকাল শনিবার সকালে জানিয়েছে, মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের ওপর কম সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে তা দুর্বল অবস্থায় বিরাজ করছে। গতকাল শনিবার সকাল ৯টা থেকে আগামি ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছুকিছু জায়গায় এবং ঢাকা, বরিশাল ও খুলনা বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী বৃষ্টি হতে পারে। আগামি তিনদিনে বৃষ্টির প্রবণতা বাড়তে পারে বলেও পূর্বাভাসে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। বৃষ্টি বাড়লে আবার বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে কি না- জানতে চাইলে বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী বলেন, না, বন্যা পরিস্থিতি ফের অবনতি হওয়ার কোনো তথ্য আমাদের কাছে নেই। তবে বৃষ্টি হলেও কিছুদিন আগে যেভাবে অবিরাম হয়েছে সেভাবে হবে না। আর এক-দুদিনের বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার সম্ভাবনা।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ