May 29, 2020, 6:51 pm

শিরোনাম :
বোয়ালমারীর উমরনগরে দ্বিতীয় দফায় ভাংচুর ও লুটপাট নবাবগঞ্জে অসহায় ও কর্মহীন মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আদর্শ জনকল্যাণ সংস্থা ও আমাদের স্বপ্ন ছোঁয়া গ্রুপ চৌদ্দগ্রামে এক সন্তানের জননীর রহস্যজনক মৃত্যু সান্তাহারে ৩১মে থেকে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু মহিপুরে আম্পান ক্ষতিগ্রস্থ গৃহহীনদের র‌্যাবের ত্রান সহায়তা বোয়ালমারীতে করোনা আক্রান্ত ঢাকা ফেরত ১ জনের মৃত্যু জামালপুরে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার মানুষিক নির্যাতন,নানা ভয়ভীতি ও অত্যাচারে অতিষ্ঠ,স্টাফ নার্স ও কর্মচারীরা, তদন্ত কমিটি গঠন কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিলো ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক তুহিন নিজ নির্বাচনী আসন ২৪ রংপুর-৬ এর ৫ নং মদনখালি ইউনিয়নে ঈদ উপহার, খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করলেন জননেতা সাইফুল ইসলাম “ভেন্ডাবাড়ী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় পরিবার” এর পক্ষ থেকে ৫০০টি পরিবারের মাঝে ঈদের উপহার বিতরণ

বঙ্গবন্ধু ধীরে ধীরে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন: বাণিজ্যমন্ত্রী

Spread the love

বঙ্গবন্ধু ধীরে ধীরে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন: বাণিজ্যমন্ত্রী

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ধীরে ধীরে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু বুঝেছিলেন বাঁচতে হলে বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এজন্য ধীরে ধীরে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন তিনি। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধু পরিষদ জীবন বীমা করপোরেশন শাখা আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। টিপু মুনশি বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন। কিন্তু তিনি স্বাধীনতা আন্দোলনের শুরুটা করেছিলেন ১৯৪৮ সালে। সেই সময় তিনি দেখেছিলেন পাকিস্তানিরা ছয় শতাংশ উর্দু ভাষা নিয়ে রাষ্ট্রভাষা দাবি করেছিলেন। অথচ তখন ৫৬ শতাংশ মানুষ বাংলায় কথা বলে তখনই বঙ্গবন্ধু বুঝেছিলেন আমাদের বাঁচতে হলে এদের সঙ্গে থাকা যাবে না। তখন থেকেই বঙ্গবন্ধু ধীরে ধীরে বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন এবং জাতিকে সংগঠিত করে ’৭০ এর নির্বাচনে জয়লাভ করেছিলেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু একাত্তর সালে দেশ স্বাধীন করেছিল। কিন্তু স্বাধীনতার পরও পরাজিত শক্তিরা তাদের ষড়যন্ত্র বন্ধ করেননি। স্বাধীনতার পর পাকিস্তানের পরাজিত শক্তিরাই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে এদেশকে পিছিয়ে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে যারা পিছিয়ে দিতে চেয়েছিল তাদের মুখে চপেটাঘাত করেছেন। তিনি দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, দেশের অর্থনীতির উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, যেদিন দেশ অর্থনৈতিকভাবে পুরোপুরি উন্নত হবে, দারিদ্র্যমুক্ত হবে সেই দিনই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে। আর এজন্য প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে আমাদের সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। টিপু মুনশি বলেন, আমাদের দেশের গ্রোথ ৮ শতাংশ, যা বিশ্বের কোনো দেশে নেই। দেশের উন্নয়ন দেখে আজকে পাকিস্তানের নাগরিকরাও বলছে- বাংলাদেশের মতো আমাদের রাষ্ট্রকে বানিয়ে দাও। তাই সবাই মিলে কাজ করে দেশকে আরো এগিয়ে নিয়ে যাবো। অনুষ্ঠানে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, বঙ্গবন্ধু নিষ্পেষিত জাতিকে টেনে নিয়ে স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন। তিনি আমাদের কথা বলার ক্ষমতা দিয়েছেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু সভ্য জাতি তৈরি করার কাজ শুরু করেছিলেন। মাঝে একটি খারাপ সময়ে গেছে কিন্তু এখন তার কন্যা শেখ হাসিনা সেই কাজ করে যাচ্ছেন। দেশকে এগিয়ে নিতে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। সংগঠনের সভাপতি মো. শফিকুল ইসলাম মিয়াজীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- সংসদ সদস্য নুরুল আমিন রুহুল, আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী ও জীবন বীমা কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান শেলীনা আফরোজ প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. মাহবুবুর রহমান খোকন।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ