September 22, 2019, 6:12 pm

বঙ্গবন্ধু এক মহান আদর্শের নাম – কৃষিমন্ত্রী ড.মঃ আব্দু রাজ্জাক এমপি

Spread the love

মোহাম্মদ ইকবাল হাসান সরকারঃ

কৃষি মন্ত্রী ড.মঃ আব্দু রাজ্জাক এমপি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, বাঙালি

সত্ত্বাকে ও একাত্তরের চেতনাকে ধ্বংস করার জন্য ১৫ আগস্ট স্বাধীনতা বিরোধীরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে । বঙ্গবন্ধুকে দৈহিকভাবে হত্যা করা হলেও তার মৃত্যু নেই। তিনি চিরঞ্জীব। একটা জাতিরাষ্ট্রের স্বপ্নদ্রষ্টা এবং স্থপতি তিনিই। বঙ্গবন্ধু এক মহান আদর্শের নাম। যে আর্দশে উজ্জীবিত হয়েছিল গোটা দেশ। সমগ্র জাতিকে তিনি বাঙালি জাতীয়তাবাদের প্রেরণায় প্রস্তুত করেছিলেন। ঔপনিবেষিক শাসক-শোষক পাকবাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়তে। তিনি এ জাতির চেতনা।গত ৩১ আগস্ট শনিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারস ইনস্টিটিউশনে শাহবাগ থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আগস্ট জাতীয় শোক দিবস ২০১৯ স্মরণে আলোচনা সভায় কৃষি মন্ত্রী ড.মঃ আব্দু রাজ্জাক এমপি  এসব কথা বলেন।কৃষি মন্ত্রী ড.মঃ আব্দু রাজ্জাক এমপি  বলেন; ত্রিশ লাখ শহিদ দুই লাখ মা বোনদের সম্ভ্রমের বিনিময়ে
অর্জিত স্বাধীনতা। নির্মম নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করেছে। এই নিকৃষ্ট কাজে সহায়তাকরীরা নিজামী গোলাম আজম গংরা নাকি যুদ্ধাপরাধী নয় বলে প্রচার করে
বিএনপি। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হমলা চালিয়েছিল, শেখ হাসিনাসহ  আওয়ামী লীগকে
নেতৃত্বশূন্য করার জন্য, নেত্রীকে এ প্রর্যন্ত ২২বার হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। সেদিন ২৪ জন নেতা কর্মী শাহাদাত বরণ করেন ৫শ জন আহত হন। এটি ছিল একটি রাষ্ট্রিয় সন্ত্রাস,যার মদদ দাতা তারেক জিয়া। এই ষড়যন্ত্রের সাথে জড়িত কুশিলবদের দেশে এনে সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। কৃষি মন্ত্রী ড.মঃ আব্দু রাজ্জাক এমপি  আরও বলেন, ১৫ ও ২১ আগস্ট এর ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারীদের মুখোশ
অচিরেই উন্মোচিত করা হবে। জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুর হত্যাকান্ডের সাথে
জড়িত। তিনিই এই হত্যাকান্ডের প্রধান কুশীলব। ইন্ডিমেনিটি অধ্যাদেশ সংসদে
পাশ করিয়ে বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের বিচারের পথ রুদ্ধ করেছেন। এতেই প্রমান
হয় জিয়া বঙ্গবন্ধুর খুনি। ষরযন্ত্র হচ্ছে,দল যদি সুসংহত থাকে পুথিবীর কোন
শক্তি নাই আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থেকে নামাতে। ২০২১ সালে আমরা নিম্ন মধ্যম
আয়ের দেশ,২০৩০ সালে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালে  উন্নত বাংলাদেশ হবে
ইনশাআল্লাহ।শাহবাগ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম আতিকুর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ফজিলাতুন্নেছা ইন্দিরা,মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ও ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) আওয়ামী লীগ এর সভাপতি আবুল হাসনাত।বিশেষ বক্তা শাহে আলম মুরাদ,সাধারণ সম্পাদক,ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) আওয়ামীলীগ।এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন,জনসংযোগ কর্মকর্তা।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০১ সেপ্টেম্বর ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ