April 6, 2020, 5:05 pm

শিরোনাম :

পড়তে এসেছি, মরতে নয় : নিরাপদ সড়কে চলতে চাই শার্শার নাভারনে ৭দফা দাবিতে মানববন্ধন করেছে ছাত্র-ছাত্রীরা

Spread the love

ইয়ানূর রহমান,শার্শা (যশোর) প্রতিনিধিঃ

যশোরের শার্শায় জিপের চাপায় নিপা নামে এক স্কুল ছাত্রীর শরীর থেকে পা বিচ্ছিন্নের ঘটনায় যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের নাভারনে অবরোধ করে মানববন্ধন করেছে স্কুল ছাত্র-ছাত্রীরা। নিরাপদ সড়কের দাবিসহ ৭দফা দাবি তুলে ধরে অবরোধ করে মানববন্ধন করে ছাত্র-ছাত্রীরা।গত ২৩ মার্চ শনিবার  সকাল সাড়ে ৭ থেকে ১০ টা পর্যন্ত যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের নাভারন সাতক্ষীরা মোড়ে এ অবরোধ কর্মসূচি পালন করা হয়। এ সময় যশোর-বেনাপোল মহাসড়কে ও নাভারন-সাতক্ষীরা মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।ছাত্র-ছাত্রীরা বলেন, সড়ক দূর্ঘটনার ৪৮ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও পুলিশ ঘাতক জিপ চালককে আটক করতে পারেনি। তারা দাবি করেন, অবিলম্বে ঘাতক চালককে আটক করতে হবে। সেই সাথে আমাদের সহকর্মী নিপার ক্ষতিপূরণসহ সমস্ত চিকিৎসা খরচ বহন করে তাকে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে।শান্তিপূর্ণ অবরোধ কর্মসুচি চলাকালিন সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা অবরোধ তুলে নেয়ার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের চাপ সৃষ্টি করে। এক পর্যায়ে তারা শিক্ষার্থীদের শারিরীক ভাবে লাঞ্চিত করে। প্রতিবাদী শিক্ষার্থীরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে। সেদিন ৭ দফা পূরণে প্রশাসনের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয়া হলেও স্কুলের দুইটি গতি নিয়ন্ত্রক স্থাপন ছাড়া আর কোন দাবী পূরণ করা হয়নি। তাই আমাদের আবারও আন্দোলনে নামতে হয়েছে। আমাদের ৭ দফা দাবী পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তাদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।এ সময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঘাতক চালককে আটকের প্রতিশ্রুতিসহ ছাত্র-ছাত্রীদের সকল দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিলে তারা সকাল ১০ টার সময় অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়।উল্লেখ্য, গত বুধবার (২০ মার্চ) জিপ গাড়ির চাপায় নাভারণ বুরুজবাগান পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের নিপা নামে এক স্কুলছাত্রীর শরীর থেকে পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এসময় তারু সাথে থাকা স্মৃতি ও রিপা নামে আরো দুই স্কুল ছাত্রী আহত হয়।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/২৩ মার্চ ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ