April 18, 2019, 6:21 am

শিরোনাম :
তিন উপায়ে চোখ রক্ষা করুন স্মার্টফোন থেকে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বারবার বিকৃত হয়েছে: রেলমন্ত্রী মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা আগামী সপ্তাহ থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বয়ে যেতে পারে তাপপ্রবাহ নুসরাতের খুনিদের আইনি সহায়তা না দেওয়ার ঘোষণা ফেনীর আইনজীবীদের রাজনীতিবিদদের ব্যর্থতায় আক্ষেপ ঝরলো ফখরুলের কণ্ঠে জাহালমের কারভোগের পেছনে জড়িতদের দেখা হবে: হাইকোর্ট ভবন ভাঙতে সময়ের আবেদন প্রত্যাহারে বিজিএমইএর সভাপতিকে নোটিশ দেশে শিশু মৃত্যুর হার ৭৫ শতাংশ কমেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী তিতাসের ২২ খাতে দুর্নীতি চিহ্নিত করে মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন দিয়েছে দুদুক

পীরগঞ্জে চতরা ভূমি অফিসের উদ্দেগ্যে ভূমি সেবা ক্যাম্প বণার্ঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা

Spread the love

রুবেল ইসলাম,রংপুর অফিসঃ

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার চত্তরা ইউনিয়ন ভূমি অফিসের উদ্দেগ্যে ভূমি সেবা সপ্তাহ পালিত হয়। “রাখব নিস্কন্টক জমি-বাড়ি,করব সবাই ই-নামজারি”-এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে ভূমি সেবা সপ্তাহ ও ভূমি উন্নয়ন কর মেলা-২০১৯ উপলক্ষে ভূমি সেবা ক্যাম্প এর আয়োজন করা হয়।সোমবার দুপুরে র‌্যালী শেষে চতরার ভূমি অফিসের সামনে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।আলোচনা সভার শুরুতে সেবা সপ্তাহের বর্ণাঢ্য র‌্যালী ইউনিয়নের চতরা বাজারের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে ভূমি অফিসে এসে শেষ হয়। র‌্যালীতে এতে উপস্থিত ছিলেন-উপজেলা সহকারি ভূমি কমিশনার সঞ্জয় কুমার মহন্ত,ইউনিয়ন ভূমি সহকারী ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রবিউল সিদ্দিকী, ১৪ নং চতরা ইউপি চেয়ারম্যান এনামূল হক শাহীন,১৫ নং কাবিলপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রবিউল ইসলাম।পরে ভূমি সপ্তাহে ভূমি সেবার ওপর আলোচনা করা।আলোচনায় সভায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোঃ মোজাহার আলী সভাপতিত্ব করেন।আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে কাবিলপুর ইউপি সদস্য হারুন অর রশিদ স্বপন ইউনিয়নের খাস জমি সম্পর্কে আলোচনা করেন।এছাড়া ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা রবিউল সিদ্দিকী জানান- কাবিলপুর ও চতরা ইউনিয়নের শ্যামাদাস রায় চৌধুরীর ৮০ একর , সৌরাঙ্গ মোহন গুহ রায় এর প্রায় ৮০ একর,দেবত্তর রায় এর ১৭ একর খাস জমির কথা উল্লেখ করেন।এছাড়া চতরা হাটে প্রায় ১০ একর খাস জমির কথা,তিনি আরোও মুসলমানদের ওপফ করা প্রায় ৫০ একর জমির কথা বলেন।তিনি বলেন-এইসব জমি সহ জেড়াছড়ি ও সন্যাসির দহ বিলের জমি প্রভাবশালীরা দখল করে আসছে যদি এইসব জমি দখলমুক্ত করা হয় তাহলে সরকার এখান থেকে ব্যাপক রাজস্ব আয় করতে পারবে।উপজেলা সহকারি ভূমি কমিশনার সঞ্জয় কুমার মহন্ত বলেন- আগামীতে আইনের মাধ্যমে সকল খাস জমি উদ্ধার করে জনগনের সেবা নিশ্চিত করা হবে।এছাড়া তিনি ৬২,৮৪,৯২ সালের রেকর্ড সর্ম্পকে অবগত করেন।পাশাপাশি জনগনের সকল সমস্যা সমাধান এবং জটিল সমস্যা সমাধান করার জন্য ভূমি অফিসে আসার জন্য অনুরোধ করেন।এসময় তিনি সাধারণ জনগনের সকল প্রশ্নের উত্তর দেন।একই সাথে খাজনা,রেকর্ড সংরক্ষণ ও সংশোধন,সরকারী সম্পতি নজরদারী করার কথা উল্লেখ করেন।পাশাপাশি তিনি হাট-বাজারে বৈধ ব্যবসায়ীদের কাগজপত্র সহ নবায়ন করার জন্য অনুুরোধ করেন।সর্ব প্রকার জলামহল তদারকি করার তাদিগ করেন।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/ ১৫ এপ্রিল ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ