May 27, 2020, 9:46 pm

শিরোনাম :
সুন্দরগঞ্জে পৃথক বজ্রপাতে ঘরবাড়ি ভষ্মিভ‚ত:৭ গরুর মৃত্যু বরিশালের মুলাদীতে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু করোনা আতংকে শিশুসহ অবরুদ্ধ একটি পরিবার শিকারীদের ফাঁদে ধ্বংস হচ্ছে উপকুলের বন্যপ্রানী চিলমারীতে ব্রক্ষপুত্রের ডানতীর রক্ষা প্রকল্পের ভাঙ্গন এলাকাবাসীর মানব বন্ধন করোনায় আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে,আক্রান্ত ১৫৪১ রাজশাহীর তানোরে হত্যা মামলায় পলাতক ১ আসামীকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ! পাবনায় বেরোবির এক শিক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু! পটুয়াখালীতে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ এ ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ পরিদর্শনের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসক রামপালে আম্পানের তান্ডবে সপ্তাহ ধরে ২ শত পরিবার পানি বন্দি অর্ধশতাধীক মৎস্য ঘের ভেসে কোটি টাকার ক্ষতি

পাকিস্তানে চলন্ত ট্রেনে আগুন: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭৪

Spread the love

পাকিস্তানে চলন্ত ট্রেনে আগুন: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭৪

ডিটেকটিভ আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে যাত্রীবাহী চলন্ত ট্রেনে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আগুন লেগে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭৪ জনে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছেন অর্ধ-শতাধিক। দুর্ঘটনার শিকার ভুক্তভোগী যাত্রীরা অভিযোগ করেন, ভয়াবহ আগুন ছড়িয়ে পড়ার পর ‘তেজগাম’ ট্রেনটিকে থামাতেই ২০ মিনিটের মতো সময় লাগে। এতে হতাহতের সংখ্যা অনেক বেড়ে যায়। ট্রেন থাকে লাফিয়ে পড়তে গিয়েই বেশিরভাগ যাত্রী মারা যায়।

 

রহিম ইয়ান খান শহরের উপ-কমিশনার জামিল আহমেদ জানান, পাঞ্জাব রাজ্যের লিয়াকতপুরের কাছাকাছি এলাকায় বৃহস্পতিবার সকালে ট্রেনের ভেতর গ্যাস স্টোভে রান্না করার সময় হঠাৎ সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়। এসময় ট্রেনের তিনটি বগিতে আগুন ধরে দ্রুত আশপাশে ছড়িয়ে পড়লে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

 

ভাগ্যক্রমে প্রাণে বেঁচে যাওয়া যাত্রীরা জানায়, ট্রেনে অগ্নিকাণ্ডের পর কয়েক হাজার যাত্রী আতঙ্কিত হয়ে চলন্ত ট্রেন থেকে ঝাঁপিয়ে পড়েন। যাদের মধ্যে বেশিরভাগের মৃত্যু হয়েছে এবং বেঁচে যাওয়া যাত্রীরা গুরুতর আহত হয়েছেন।

 

এদিকে ট্রেনটির চালক সাদি আহমেদ খান জানান, ট্রেনটির ইমার্জেন্সি ব্রেকিং সিস্টেমটি সঠিক কার্যক্ষমতায় ছিল এবং আগুন লাগার তিন মিনিটের মধ্যেই ট্রেনটি থামে।

 

‘চালক হিসেবে এই দুর্ঘটনা আমার জীবনের সবচেয়ে খারাপ ট্র্যাজেডি,’ বলেন তিনি।

 

পাঞ্জাবের প্রাদেশিক মন্ত্রী ইয়াসমিন রশিদ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, লিয়াকতপুরের একটি হাসপাতালে আহতদের সর্বোত্তম চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। গুরুতর আহতদের অ্যাম্বুলেন্সে দুর্ঘটনাস্থলের নিকটতম বৃহত্তম শহর মুলতান শহরে নিয়ে যাওয়া হয়।

 

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, সেনা সদস্যরাও উদ্ধার অভিযানে অংশ নিয়েছে। পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভী ও প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দেশটির ভয়াবহ এই দুর্ঘটনার জন্য শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন।

 

নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে ইমরান খান টুইটারে আহতদের সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করছেন। এই ঘটনার দ্রুত তদন্তেরও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

 

জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক বলেন, পাকিস্তানের এই ভয়াবহ দুর্ঘটনায় নিহত ও পাকিস্তান সরকারের প্রতি ‘গভীর সমবেদনা’ প্রকাশ করেছেন সস্থাটির মহাসচিব অ্যান্তেনিও গুতেরেস। তিনি আহত ব্যক্তিদের দ্রুত ও সার্বিক সুস্থতা কামনা করেছেন।

 

রেল যোগাযোগ ব্যবস্থার দুর্বল অবকাঠামো এবং সরকারের অবহেলার কারণে পাকিস্তানে প্রায়ই ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। পাকিস্তানের গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, যাত্রীরা যে ব্যক্তিগতভাবে ট্রেনের ভেতর গ্যাসের চুলা নিয়ে এসেছিল সেদিকে খেয়াল করেননি রেলওয়ের কর্মকর্তারা, যার ফলে এই ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ