November 7, 2019, 3:52 am

পাইকগাছায় নিম্নচাপে বৃষ্টিপাত ও সুইচ গেটের জোয়ারের পানিতে হাজারো বিঘার চিংড়ি ঘের প্লাবিত : মৎস্য সম্পদ রাস্তা-ঘাটের ক্ষয়-ক্ষতি!

Spread the love

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ

খুলনার পাইকগাছায় একদিকে নিম্নচাপ জনিত বৃষ্টিপাত ও অন্যদিকে স্লুইচ গেটের জোয়ারে গোটা এলাকা প্লাবিত হয়ে হাজারো বিঘার ১শ’র অধিক ছোট-বড় চিংড়ি ঘেরের মৎস্য সম্পদ ভেসে গেছে। ৩ গ্রামের রাস্তা-ঘাট তলিয়ে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতির অভিযোগ পাওয়া গেছে।স্থানীয় বাসিন্দা ও ঘের মালিকদের অভিযোগ সোলাদানা ইউপি’র খালিয়া পারিশামারী (বদ্ধ) ৭৪.৬৮ একরের জলমহলের গেটের দায়িত্বরত সাবলীজ হোল্ডারদের দায়িত্ব জ্ঞানহীন কর্মকান্ডে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে জলমহলের দায়িত্বপ্রাপ্তরা জানান, জোয়ারের প্রভাবে গভীর রাতে স্লুইচ গেটের ঢাকনী ভেঙ্গে এ ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় এমপি সংশ্লিষ্টদের প্রতি ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশনা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় গেলে নুনিয়াপাড়ার বাসিন্দা সাবেক ইউপি সদস্য পরিতোষ কুমার মন্ডল জানান, নিম্নচাপে বৃষ্টিপাত ও অন্যদিকে জলমহলের দায়িত্বে থাকা স্থানীয় আনিস সানা, হাফিজ ও অক্ষয় গংরা নুনিয়াপাড়া ৪ মুখো স্লুইচ গেট দিয়ে জোয়ার দিলে পরে গেটের পাট বা ঢাকনি ওঠা নামা করতে পারেনি। এর ফলে নুনিয়াপাড়া, খালিয়ারচক ও পশ্চিম কাইনমুখির ১শ’র অধিক ছোট-বড় ঘের তলিয়ে মৎস্য সম্পদ ভেসে গেছে। ফসলি ক্ষেত, চলাচল রাস্তা প্লাবিত হয়ে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এ ঘটনা পরিকল্পিত দাবী করে কৃতিম জোয়ারে চিংড়ি সহ সাদা মাছের ব্যাপক ক্ষতির কথা বলে ৩শ বিঘার গণঘের মালিক নৃপেন মন্ডল সহ স্থানীয়দের অভিযোগ, জলমহল ইজারাদার কয়রার অর্জুনপুরের মোনায়েম গাজীর কাছ থেকে ১২ জন সাবলীজ নিয়ে আনিস গংরা এ ক্ষয়-ক্ষতি ঘটিয়েছে। এ অভিযোগ প্রসঙ্গে জলমহলের স্লুইচ গেটের দায়িত্বে থাকা আনিস সানা বলেন, জোয়ারের চাপে মধ্যরাতে গেটের পাট বা ঢাকনী ভেঙ্গে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ঠদের প্রতি খুলনা- ৬ (পাইকগাছা-কয়রার) এমপি আলহাজ্ব আকতারুজ্জামান বাবু দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশনা দিয়েছেন। ঘটনা অবহিত হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুলিয়া সুকায়না বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পাইকগাছা সরকারি কলেজের ২১ শিক্ষক কর্মচারীর কাছে পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টি পরিচয়ে চাঁদাদাবী
এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ
পাইকগাছা সরকারি কলেজের ২১ শিক্ষক কর্মচারী সহ বিভিন্ন সরকারি কর্মকর্তাদের নিকট পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টির পরিচয়ে চাঁদাদাবী করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। প্রাপ্ত অভিযোগে জানাগেছে, গুজব ও ডেঙ্গু আতঙ্কের পর এবার চাঁদাদাবীর আতঙ্কে রয়েছেন চাকুরিজীবী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। সম্প্রতি বিভিন্ন সরকারি কর্মকর্তাদের কাছে পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টি (সর্বহারা) পরিচয় দিয়ে মোবাইলে ফোন করে চাঁদাদাবী করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার দিকে পর্যায়ক্রমে পাইকগাছা সরকারি কলেজের ২১ শিক্ষক, কর্মচারীর কাছে পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টি (সর্বহারা) পরিচয় দিয়ে চাঁদাদাবী করে। কলেজের অধ্যক্ষ মিহির বরণ মন্ডল জানান, একই নম্বর থেকে প্রত্যেক শিক্ষক কর্মচারীর কাছে চাঁদাদাবী করা হয় এবং চাঁদার টাকা তাদের দেওয়া বিকাশ নম্বরে বিকাশ করার কথা বলে। চাঁদার টাকা দিতে না পারলে পরিবারের সদস্যদের তুলে নেওয়া সহ জীবন নাশের হুমকি দেয়। এ ঘটনার পর শিক্ষক কর্মচারী ও পরিবারের সবাই উদ্বিগ্ন এবং ভীত সম্ভ্রস্ত হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় শিক্ষক কর্মচারীদের পক্ষ থেকে থানায় জিডি করা হয়েছে। যার নং- ৩৫৮, তাং- ০৮/০৮/১৯ইং। এ ব্যাপারে ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান, এ ধরণের অভিযোগ পেয়েছি, তবে এতে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নাই। থানা পুলিশের পক্ষ থেকে বিষয়টি গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং এর সঙ্গে যারা জড়িত রয়েছে তাদেরকে খুব দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০৯ আগস্ট ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ