August 15, 2020, 8:24 pm

শিরোনাম :
বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে সোনার বাংলা আদর্শ ক্লাবের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত জাতীয় শোক দিবসে কোতয়ালী থানা ছাত্রলীগের উদ্যোগে মিলাদ ও গণভোজ যশোরের বাঁকড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত জামালপুরে নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে জাতীয় শোক দিবস পালিত বক‌শিগ‌ঞ্জে জাতীয় শোক দিব‌সে রিকসা পেলেন সাত্তার বকশিগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী পালন জাল সনদ প্রস্তুতকারী চক্রের সক্রিয় তিন সদস্য আটক কেরানীগঞ্জে ২৩৩ পিস ইয়াবাসহ কারবারি রাকিব আটক বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের দাবী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদত বার্ষিকীতে তানোর থানা মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত
বক্তব্য দিচ্ছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ঈদ জামাত ঘিরে ডিএমপির

Spread the love

মোহাম্মদ ইকবাল হাসান সরকারঃ

বক্তব্য দিচ্ছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

রাজধানীর সর্ববৃহৎ ঈদ জামাতে জাতীয় ঈদগাহ এবং বায়তুল মোকাররম কেন্দ্রিক পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।ঈদগাহে প্রবেশের সময় নিরাপত্তার স্বার্থে জায়নামাজ ও ছাতা ছাড়া সঙ্গে কিছুই আনতে পারবেন না মুসল্লিরা। তবে প্রয়োজন মনে করলে তল্লাশির পর মুসল্লিরা ঈদগাহে প্রবেশ করবেন।গত শনিবার জাতীয় ঈদগাহ ময়দানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ শেষে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া সাংবাদিকদের এ সব কথা জানান।তিনি জানান, শুধু জাতীয় ঈদগাহ নয়, রাজধানীর ছোট-বড় সব ঈদ জামাত ঘিরেই ডিএমপি সুদৃঢ় এবং সুসমন্বিত নিরাপত্তা ব্যবস্থা হাতে নিয়েছে।এ সময় তিনি নগরবাসীকে অনুরোধ জানিয়ে বলেন, যত্রতত্র কোরবানি না করে সিটি কর্পোরেশনের নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানি করলে দ্রুততম সময়ের মধ্যে বর্জ্য অপসারণ করা সম্ভব হবে।জাতীয় ঈদগাহের নিরাপত্তার বিষয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, পুরো এলাকা ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার আওতায় থাকবে। পাশাপাশি আন্তঃবেষ্টনী-বহিঃবেষ্টনি ঘিরে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। কন্ট্রোল রুম থেকে সিসি ক্যামেরাগুলো সার্বক্ষণিক মনিটরিং করা হবে। ওয়াচ টাওয়ার থেকে সার্বিক পরিস্থিতি নজরদারি করা হবে। অন্যান্য নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে নিরাপত্তা নিশ্চিতে পুলিশ কাজ করবে।তিনি আরও বলেন, বিপুলসংখ্যক সদস্য সাদা পোশাকে অবস্থান করবেন। সবার সঙ্গে সমন্বয় করে নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা হবে। ঈদগাহ মাঠে মুসল্লিদের প্রবেশ এবং চলাচল নির্বিঘ্নে করতে আব্দুল গণি রোড, দোয়েল চত্বর, মৎস্য ভবন মোড়সহ কয়েকটি ব্যারিকেড থাকবে। এ সব রাস্তা দিয়ে ঈদগাহের দিকে পায়ে হেঁটে আসতে হবে। ব্যারিকেডের ভেতরে সবাইকে তল্লাশি করে প্রবেশ করতে দেয়া হবে। যারা জামাতে আসবেন তারা সঙ্গে দাহ্যপদার্থ, ব্যাগ, ছুরি, দিয়াশলাই নিয়ে আসবেন না।নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশকে সহায়তা করার অনুরোধ জানিয়ে মুসল্লিদের উদ্দেশে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, মাঠের প্রধান গেটে আর্চওয়ে ও মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে তল্লাশি করা হবে। সেখানে দৈবচয়নের ভিত্তিতে আরও ব্যাপক তল্লাশি চালানো হতে পারে। নিরাপত্তার স্বার্থে ঈদগাহে আগত মুসল্লিদের পুলিশকে সহায়তার অনুরোধ জানাচ্ছি।পুরো নগরীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ৪-৫ দিন আগে থেকেই ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় চেকপোস্টে তল্লাশি চালানো হচ্ছে বলেও জানান তিনি।এর আগে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ডিএমপি কমিশনার স্পেশাল ওয়েপনস অ্যাড ট্যাকটিক্স (সোয়াট) এবং কে-নাইন (ডগ স্কোয়াড) দলের নিরাপত্তা মহড়া পরিদর্শন করেন।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/১২ আগস্ট ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ