September 22, 2019, 10:18 pm

নাটোরে আওয়ামীলীগ-বিএনপি সংঘর্ষ; ২জন গুলিবিদ্ধ

Spread the love

নাটোরে আওয়ামীলীগ-বিএনপি সংঘর্ষ; ২জন গুলিবিদ্ধ

মোঃ সালমান হোসাইন, নাটোর জেলা সংবাদদাতা


নাটোরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম রুবেলসহ দুইজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাদের নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
রোববার (০৩ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শহরের আলাইপুর (হাফরাস্তা) এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় দু’পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। ফের সংঘর্ষ এড়াতে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
এদিকে, দোষীদের গ্রেফতার দাবিতে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে ছাত্রলীগ। রবিউল ইসলাম রুবেল সদর উপজেলার বাগরোম গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে। গুলিবিদ্ধ অপরজন হলেন সোহেল রানা (৩৫) নামে এক পথচারী। তিনি রাঙামাটি আনসার ব্যাটালিয়ানে কর্মরত এবং বাগাতিপাড়া উপজেলার তমালতলার ক্ষিদ্র মালঞ্চি গ্রামের ইয়াছিন আলীর ছেলে।
সোহেল রানা পিঠে এবং রুবেল বাঁ পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ ঘটনায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি একে অপরকে দায়ী করছেন।
নাটোর সদর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সোহানুর রহমান সুরুজ জানান, পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী সকালে তারা শহরে একটি মিছিল বের করেন। মিছিলটি আলাইপুর (হাফরাস্তা) বিএনপি কার্যালয় অতিক্রম করার সময় সেখানে অপেক্ষমান বিএনপি কর্মীদের ‘সাইড দেওয়া’কে কেন্দ্র করে তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তারা ছাত্রলীগের মিছিলে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করে। এতে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম রুবেলসহ এক পথচারী গুলিবিদ্ধ হন।
তার অভিযোগ, ছাত্রলীগের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি বানচাল করতে বিএনপি নেতাকর্মীরা ইচ্ছাকৃতভাবে এ হামলা চালিয়েছে।
জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মর্তুজা আলী বাবলুও একই অভিযোগ করে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দোষীদের গ্রেফতার করে শাস্তির দাবি জানান।
অপরদিকে, ঘটনাস্থলে উপস্থিত জেলা বিএনপির সহ সভাপতি সাবিনা ইয়াসমিন ছবি এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সিংড়ায় তাদের দলীয় কর্মসূচিতে যোগদানের উদ্দেশে বের হচ্ছিলেন। এসময় গেটের সামনে দাঁড়ানো ছাত্রলীগ কর্মীরা অতর্কিতভাবে দলীয় কার্যালয়ে ইট পাটকেল নিক্ষেপ ও হামলা চালায়। এতে কার্যালয়ে সামনের দিকের কয়েকটি কাঁচ ভেঙে যায়। গুলিবর্ষণের ঘটনায় বিএনপির কোনো নেতাকর্মী জড়িত নয়।
বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক উপমন্ত্রী রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, ‘শনিবার রাতে পুলিশ দলীয় কর্মসূচি পালনে নিষেধ করেছে। আর সকালে পুলিশের উপস্থিতিতেই দলীয় কার্যালয়ে ছাত্রলীগ কর্মীরা ন্যাক্কারজনক হামলা চালিয়েছে’।
এদিকে ছাত্রলীগ নেতা কর্মীদের ওপর বিএনপির হামলা ও গুলিবর্ষণের ঘটনায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দোষীদের আটক করার আল্টিমেটাম দিয়েছে ছাত্রলীগ। দুপুরে নাটোর প্রেসক্লাবের সম্মেলন কক্ষে জেলা ছাত্রলীগ এক সংবাদ সম্মেলন করে এ আল্টিমেটাম দেয়।
লিখিত বক্তব্যে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম বলেন, বিএনপির বিক্ষোভ কর্মসূচির প্রতিবাদে নবাব সিরাজ উদ-দৌলা সরকারি কলেজে একটি মানববন্ধনের আয়োজন করে ছাত্রলীগ। সেখানে যোগ দেয়ার জন্য একটি মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় আলাইপুরের দুলুর বাড়ি অতিক্রম করলে তারা এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করে।
নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিকদার মশিউর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ঘটনাটি বিস্তারিতভাবে জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। তদন্ত করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ