October 12, 2019, 10:04 am

শিরোনাম :
বায়েজিদে চোরাই সিএনজিসহ গ্রেপ্তার ২ একই স্কুলে ২৭ বছর ! শৈলকুপায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্বাক্ষর জালিয়াতির অভিযোগ রংপুরের মিঠাপুকুরে সাত বছরের শিশু ধর্ষিত- রংপুর মেডিকেলে চিকিৎসাধীন ২২অক্টোবর জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উদযাপন উপলক্ষে ফুলবাড়ীতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত নতুন কমিটিতে স্থান পেলো ছাত্রদল ও যুবদলের নেতারা যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক কাজী আনিচের কমিটি বাণিজ্যের শেষ বলি বোয়ালমারী ও আলফাডাঙ্গা যুবলীগ পর্যটনে অপার সম্ভাবনাময় লাল শাপলার বিকি বিল এর উদ্বোধন পাইকগাছায় ঋণ গ্রহীতাকে স্ত্রীসহ ব্যাংকে পাঁচ ঘন্টা আটকে রাখেন ম্যানেজার কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা পাইকগাছায় শাপলা ক্লিনিকে ১ দিনের ব্যবধানে দু’প্রসুতি মায়ের মৃত্যু : এলাকায় উত্তেজনা এরশাদপুত্র শপথ নিলেন রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদ

নতুন মায়ের জন্য উপকারী যত খাবার

Spread the love

নতুন মায়ের জন্য উপকারী যত খাবার

ডিটেকটিভ লাইফস্টাইল ডেস্ক

সন্তান জন্মদানের পরে মায়ের শরীর হয়ে পড়ে দুর্বল। এ সময় তার প্রয়োজন পুষ্টিকর খাবার ও সঠিক পরিচর্যা। স্বাস্থ্য-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে জানানো হল নতুন মায়েদের জন্য বিশেষভাবে উপযোগী খাবার সম্পর্কে জানানো হল।

কাঠবাদাম: জীবনের যে কোনো পর্যায়ের জন্যই কাঠবাদাম উপকারী। বিশেষ করে সন্তান জন্মদানের পরের পর্যায়ে। এতে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি উপাদান থাকে যা মন ভালো রাখে এবং শরীরে প্রয়োজনীয় শক্তি যোগায়। কাঠবাদাম খাওয়ার ভালো উপায় হল সারা রাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে সকালে খাওয়া। অথবা কাঠবাদাম গুঁড়া করে আটার রুটির সঙ্গে খাওয়া।

লাউ: হাতের নাগালেই পাওয়া যায় এমন একটি সবজি লাউ। নতুন মায়েদের সুস্থ থাকতে অবশ্যই সবুজ শাকসবজি খেতে হবে। প্রাকৃতিকভাবে বুকের দুধ বাড়াতে ভিটামিন সি, ম্যাগনেসিয়াম এবং ফলাট সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া উচিত। এসব উপাদান লাউতে পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকে। এ ছাড়া শরীর আর্দ্র রাখতেও সাহায্য করে এই সবজি। কারণ এতে প্রায় ৯৫ ভাগ জলীয় উপাদান থাকে।

রসুন: রসুনের রয়েছে নানা উপকারিতা। এটা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। আছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা শরীর থেকে জীবাণু, ভাইরাস ও অন্যান্য দুর্বলভাব দূর করে। সন্তান জন্মদানের পরের সময়ে শরীর পুনর্গঠনের জন্য রসুন খাওয়া উপকারী।

জিরা: কেবল ওজন কমাতেই না পাশাপাশি শক্তি যোগান দিতেও সাহায্য করে জিরা। সন্তান জন্ম দেওয়ার পর মা যেহেতু ক্লান্ত ও দুর্বল থাকে তাই এই সময়ে জিরা সমৃদ্ধ খাবার বেশ কার্যকর। বিশেষ করে যে সকল মা বুকের দুধ খাওয়াচ্ছেন তাদের জন্য জিরা উপকারী।

অন্যান্য খাবার: সন্তান জন্মদানের পরে শরীর হয়ে পড়ে নির্জীব। তাই এই সময় সঠিক খাদ্যাভ্যাস গড়ে তোলা দরকার। এই সময়ে ভাজা-পোড়া ও তৈলাক্ত খাবার যতটা সম্ভব বাদ দিয়ে পুষ্টিকর খাবারের দিকে বেশি মনোযোগী হতে হবে।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ