January 24, 2020, 12:09 pm

শিরোনাম :
নির্বাচিত হলে ২৪ ঘণ্টা সেবা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস ২৪শে জানুয়ারির চট্টগ্রাম গনহত্যা, শহীদ বেদীতে সৈনিকলীগ(কামরুল/ওয়াদুদ) নগর ও দক্ষিণ জেলার পুস্পান্জলী অর্পন পীর মুর্শিদ ও বিশ্বের সকল অলি আল্লাহর স্মরণে আগাণী ৯ই ফেব্রুয়ারি রোজ রবিবার ২০২০ইংরেজি তারিখে পালিত হতে যাচ্ছে ৯তম বার্ষিক ফাতেহা শরীফ সামনে রমজানে বাজার তদারকিতে সরকারের উদ্যোগ যেন ফলপ্রসূ হয় রাজধানী ঢাকার মিরপুরে চলন্তিকা বস্তিতে ফের ভয়াবহ আগুন নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলস্ লিঃ এর শ্রমিক ইউনিয়নের দ্বী-বার্ষিক নির্বাচন সম্পূর্ণ দেশের ৯৭৩টি টেক্সটাইল কোম্পানি ৫ হাজার ৫১ কোটি টাকা গ্যাস বিল বকেয়া রেখেছে লাহোরে প্রথম টি-২০ আজ জয় দিয়েই সিরিজ শুরু করতে চায় বাংলাদেশ শক্তিশালী ঝড় গ্লোরিয়ার আঘাতে স্পেনে ১৩ জন নিহত হয়েছেন আজ ২৪ জানুয়ারি ঐতিহাসিক গণঅভ্যুত্থান দিবস

তাহিরপুরের বাদাঘাট ইউপি চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন

Spread the love

কামাল হোসেন,তাহিরপুর(সুনামগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ

তাহিরপুর উপজেলার ৫ নং উত্তর বাদাঘাট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন

সংবাদ সম্মেলন করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদ হলরুমে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ইউপি চেয়াম্যান আফতাব উদ্দিনের পক্ষে রিখিত বক্তব্য পাঠ করেন প্যানেল চেয়ারম্যান ৩ নং ওর্য়াড সদস্য আলী আহমদ। লিখিত তিনি বলেন, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও সচিবের বিরুদ্ধে পরিষদের ভিবিন্ন উন্নয়ন মূলক প্রকল্পের র্অথ আত্বসাতের অভিযোগ এনে গত ৪ আগষ্ট রবিবার জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন ইউপি সদস্যগন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ৫ আগষ্ট ও দৈনিক সুনামগঞ্জের খবরসহ বেশ কয়েকটি স্থানীয় দৈনিক পত্রিকা ও অনলাইন র্পোটালে সংবাদ প্রকাশিত হয়। উক্ত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়ে উক্ত সংবাদ সম্মেলন করা হয়। ইউপি চেয়ারম্যান আপতাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে ইউপি চেয়ারম্যানের বক্তব্যের সাথে একমত পোষনকরে বক্তব্য প্রদান করে, প্যানেল চেয়ারম্যান ও ৩ নং ওর্য়াড ইউপি সদস্য আলী আহমদ বলেন, অভিযোগ ও সংবাদে লিখা হয়েছে, বাদাঘাট ইউনিয়নের ২০১৬-১৭ র্অথ বছরের এল.জি.এস.পির বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক প্রকল্পের কাজ না করিয়ে বিভিন্ন অজুহাতের মাধ্যমে ভূয়া টেন্ডার ও কাগজপত্রাদি দাখিল করে র্অথ আত্বসাৎ করেছেন ইউপি চেয়ারম্যান। তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য। ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও সকল সদস্য ও সদস্যাদের মধ্যে বিভিন্ন কারনে ভূল বুঝাবুঝির সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে চেয়ারম্যানের সমন্বয়ে আমাদের মাধ্যে সৃষ্ট ভূল বুঝাবুঝির সমাধান হয়। কিন্তু আমাদের মাধ্যমে জেলা প্রশাসক বরাবর যে অভিযোগটি দেওয়া হয়েছে তাতে আমরা স্বক্ষর করিনি। সম্মানী ভাতা পাবার আবেদন করার কথা বলে আমাদের কাছ থেকে স্বাক্ষর নিয়েছেন, ৫ নং ওর্য়াড সদস্য রেনু মিয়া ও ৬ নং ওর্য়াড সদস্য মনির উদ্দিন। আমরা সকল সদস্য ৬ নং ওর্য়াড়ের সদস্য মনির উদ্দিন ও ৫নং ওর্য়াড সদস্য রেনু মিয়াকে বাঁধা নিষেধ করার পারও একটি কুচক্রি মহলের প্ররোচনায় প্রলোব্ধ হয়ে চেয়াম্যানকে সমাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন, মান সম্মান ক্ষুন্য করার উদ্দেশ্যে তার দু’জন এ অভিযোগটি জেলা প্রশাসক বরাবর দাখিল করেন। যা কিনা সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভূয়া, বানুয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। আমরা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ইউনিয়নের সকল সদস্য ও সদস্যাগণ অভিযোগটি প্রত্যাহার করলাম। এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ৩ নং ওর্য়াড সদস্য আলী আহমদ, ৪ নং ওর্য়াড সদস্য সামছুল হক সিকদার, ৭ নং ওয়র্ডি সদস্য মোঃ জাকির হোসেন, ৮ নং ওর্য়াড সদস্য আঃ হক, ৯ নং ওর্য়াড সদস্য মোঃ মোস্তফা , ১ নং ওর্য়াড সদস্য মফিজ উদ্দিন, ৪,৫ ও ৬ নং ওর্য়াড সদস্যা হাসনারা ও ৭, ৮ ও ৯ নং ওর্য়াড সদস্যা মোয়ারা খাতুন ও ১, ২ ও ৩ নং ওর্য়াড সদস্যা রাশেদো আক্তার।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০৬ আগস্ট ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ