February 18, 2019, 8:01 am

শিরোনাম :
নীলক্ষেতে র‌্যাবের অভিযানঃজাল সার্টিফিকেট প্রস্তুতকারী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার ঘোড়াঘাটে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র উত্তোলন করলেন মোট ১৩ জন বগুড়া গাবতলী পীরগাছার প্রতিবন্ধী বাবুল এখন কোথায় সুন্দরগঞ্জে নির্মাণ শ্রমিক লীগের আনন্দ র‍্যালী গোয়াইনঘাটে দুই সন্তান সহ চাচীকে নিয়ে ভাতিজা উধাও! এলাকায় তোলপাড় জৈন্তাপুরে বাউরীটিলা দখলের চেষ্টা মোরেলগঞ্জে প্রেমঘটিত বিরোধের জের ধরে মাদ্রাসা ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা গোরারাই হাজী ফরমান আলী ইবতেদায়ী মাদ্রাসার বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরুস্কার বিতরন জৈন্তাপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় আহত ৩,গুরুত্বর আহত ১জন সিলেট প্রেরণ ভোলা তজুমদ্দিনে আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে মতবিনিময় সভা

তামিমের সেরা ইনিংস সাকিবের চোখে

Spread the love

তামিমের সেরা ইনিংস সাকিবের চোখে

ডিটেকটিভ স্পোর্টস ডেস্ক

 

প্রশ্নটি শেষও করতে দিলেন না সাকিব আল হাসান, মাঝ থেকেই কেড়ে নিয়ে বললেন, “আমার দেখা ওর সেরা ইনিংস।” উত্তর শুনে থমকে যেতে হলো। ঘরোয়া ম্যাচের একটি সেঞ্চুরি, সেটিই তামিম ইকবালের ক্যারিয়ারের সেরা ইনিংস! সাকিব পরে যুক্তি দিয়েই উপস্থাপন করলেন নিজের অভিমতকে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক যুগের পথচলায় তামিম হয়ে উঠেছেন বাংলাদেশের সফলতম ব্যাটসম্যান। তিন সংস্করণেই সবচেয়ে বেশি রান তার। সেঞ্চুরিও তারই সবচেয়ে বেশি। খেলেছেন স্মরণীয় সব ইনিংস।

সেই ইনিংসগুলোর বেশির ভাগই খুব কাছ থেকে দেখেছেন সাকিব। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব ইনিংসের চেয়েও বিপিএল ফাইনালে তামিমের সেঞ্চুরি সাকিবের কাছে সবচেয়ে এগিয়ে।

দুজনের ক্যারিয়ারের পথচলা প্রায় হাত ধরাধরি করেই। পরস্পরকে নিয়ে এই দুজনের মূল্যায়নের ওজন তাই একটু বেশিই। তামিমের সেরা ইনিংস নিয়ে সাকিবের মত বেশি কৌতূহল জাগানিয়া এই কারণেই।

শুক্রবারের ফাইনালে তামিমের ৬১ বলে ১৪১ রানের অপরাজিত ইনিংসটিই গুঁড়িয়ে দিয়েছে সাকিবের দলকে। তবে শুধু এই কারণে নেই।  সাকিব ব্যখ্যা করলেন, পারিপার্শ্বিক সব কিছু বিবেচনায় নিয়েই তার এই মূল্যায়ন।

“আমার দেখা ওর সেরা ইনিংস এটিই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বলুন বা ঘরোয়া, সব মিলিয়েই সেরা। যে রকম স্টেজে, যেভাবে ব্যাট করেছে, যে ইনিংসটি খেলেছে, ইনিংস যতটা বড় করেছে… এক কথায় অবিশ্বাস্য।”

“ইনিংসটি যেভাবে শুরু করেছে, তার পর যেভাবে গড়েছে, এগিয়ে নিয়েছে, এবং যেভাবে শেষ করেছে, সবকিছুই অসাধারণ ছিল। আমাদের ব্যাটসম্যানদের তো নরম্যালি এতটা দেখা যায় না।”

তামিমের ইনিংস গড়া এ দিন সত্যিকার অর্থেই ছিল দুর্দান্ত। শুরুতে সময় নিয়েছেন খানিকটা। ৫ ওভার শেষে তার রান ছিল ১৩ বলে ১১।

এরপর রানের গতি একটু বাড়িয়েছেন। ১০ ওভার শেষে ছিল ২৭ বলে ৩৮ রান। পরের ওভারে শুভাগত হোমকে চার ও ছক্কায় ফিফটি ছুঁয়েছেন ৩১ বলে। সময়ের সঙ্গে ক্রমেই উত্তাল হয়েছে ব্যাট। ৫০ বলে স্পর্শ করেছেন সেঞ্চুরি। শেষ ৬ ওভারে ৮৫ রান তুলেছে কুমিল্লা, তামিম একাই করেছেন তার ৭১ রান।

তামিমের ব্যাটের ধার বেশ ভালো টের পেয়েছেন সাকিব নিজেও। তার ১০ বল খেলে তামিম নিয়েছেন ৩০ রান।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ