September 22, 2019, 10:35 pm

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের আরেক মামলায় গ্রেফতার মইনুল

Spread the love

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের আরেক মামলায় গ্রেফতার মইনুল

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

মানহানির এক মামলায় কারাগারে থাকা সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে এবার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের আরেক মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এক সপ্তাহ আগে আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া উপকমিটির সদস্য সুমনা আক্তার লিলির দায়ের করা এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান থানার এসআই জিয়াউল ইসলাম এ মামলাতেও মইনুলকে গ্রেফতার দেখানোর জন্য আদালতের কাছে আবেদন করেছিলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূর ওই আবেদন মঞ্জুর করেন বলে মইনুলের অন্যতম আইনজীবী তুহিন হাওলাদার জানান। গত ১৬ অক্টোবর একাত্তর টিভির এক আলোচনা অনুষ্ঠানে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে ‘চরিত্রহীন’ বলার পর থেকেই দেশের বিভিন্ন স্থানে একের পর এক মামলা হচ্ছে ব্যরিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে, যিনি কামাল হোসেনের উদ্যোগে বিএনপিকে নিয়ে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে সক্রিয় ছিলেন। এর মধ্যে রংপুরের একটি মানহানির মামলায় গত ২৩ অক্টোবর রাতে ঢাকার উত্তরা থেকে মইনুলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরদিন ঢাকার হাকিম আদালতে তোলা হলে বিচারক জামিন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ওইদিনই ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অভিযোগ দায়ের করেন আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া উপকমিটির সদস্য সুমনা আক্তার লিলি। বিচারক এমএ জগলুল হোসেন সেদিন বাদীর জবানবন্দি শুনে তার অভিযোগ এফআইআর হিসেবে গ্রহণ করতে গুলশান থানাকে নির্দেশ দেন। লিলি তার আর্জিতে বলেন, মইনুলের ওই আক্রমণাত্মক বক্তব্য মাসুদা ভাট্টি এবং পুরো নারী জাতির জন্য ‘বিরক্তিকর, অপমানজনক, অপদস্থমূলক এবং হেয় প্রতিপন্নকর’। সেজন্য তিনি ক্ষমা চাননি। বরং পুনরায় একটি টেলিফোন আলাপের অডিও রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছেন। ইংরেজি দৈনিক নিউ নেশন পত্রিকার প্যাডে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে মাসুদা ভাট্টি সম্পর্কিত বিতর্কিত ব্যাখ্যার আড়ালে পুনরায় ফেইসবুকে মাসুদা ভাট্টির ব্যক্তিগত চরিত্র ‘জঘন্য’ বলে মন্তব্য করেছেন। টকশোতে ওই কটূক্তির জন্য মইনুল টেলিফোন করে ক্ষমা চাইলেও মাসুদা ভাট্টি তাকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন। তা না করায় মাসুদা ভাট্টি নিজেও মানহানির একটি মামলা করেছেন মইনুলের বিরুদ্ধে। এছাড়া ভালুকা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মনিরা সুলতানা মনি ময়মনসিংহের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আরেকটি মামলা করেছেন।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ