February 26, 2020, 12:16 am

শিরোনাম :
ভোলা লালমোহন এর ফরাজির বাজারে, ইজারাদার এবং যুবলীগের সহ সভাপতির উপর সন্ত্রাসীদের অতরকৃত হামলা ভোলায় ডিবি পুলিশের অভিযানে এবার তিন মাদক ব্যাবসায়ীকে ৪৫ গ্রাম গাজাঁসহ আটক ভোলায় ডিবি পুলিশের অভিযানে এবার ৭০ পিচ ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক চাপড়া জীউ শ্রী শ্রী রাধাগোবিন্দ মন্দিরে হরিবাসরের অনুষ্ঠান পরিদর্শনে সমাজ সেবক আবুল বাসার সুজন র‌্যাব-৫ অভিযানে বিপুল পরিমান হেরোইনসহ ০১ মাদক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কলাপাড়ায় চোলাই মদসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী আটক “মুজিববর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার”- ডিআইজি সিলেট রেঞ্জ বিএসএফের হয়রানিতে বেনাপোল বন্দরে আমদানি-রফতানি বন্ধ বড়াইগ্রাম উন্মুক্ত পদ্ধতিতে ভাতা কার্ড যাচাই বাছাই নাটোরে ট্রেনের ৪ হাজার লিটার চোরাই তেলসহ আটক ৫

জেব্রা ক্রসিংয়ে আবরারকে ধাক্কা দেয় বাসটি : শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের ডাক

Spread the love

জেব্রা ক্রসিংয়ে আবরারকে ধাক্কা দেয় বাসটি : শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের ডাক

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

রাজধানী ঢাকার যমুনা ফিউচার পার্কসংলগ্ন প্রগতি সরণিতে বাসের চাপায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী। ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন তিনি।  আবরার নিয়ম মেনেই পথচারী পারাপারের জন্য নির্ধারিত স্থান জেব্রা ক্রসিং দিয়ে রাস্তা পার হচ্ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আবরারের বন্ধুরা বলছেন, অন্য একটি বাসের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে গিয়েই বাসটি আবরারকে ধাক্কা দেয়। তিনি দুটি বাসের মাঝখানে পড়ে যান। পরে সুপ্রভাত বাসের নিচে চাপা পড়েন। আবরার নিয়ম মেনে নির্ধারিত জায়গা দিয়ে রাস্তা পার হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়িতে উঠতে যাচ্ছিলেন।

ঘটনার পর একজন পথচারী বলেন, ছেলেটি নিয়ম মেনেই রাস্তা পার হচ্ছিল। কিন্তু সুপ্রভাত বাসের চালক অন্য একটি বাসের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে জেব্রা ক্রসিং দিয়ে রাস্তা পারাপাররত আবরারকে প্রথমে ধাক্কা ও পরে চাপা দেয়। ওই প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, বাসটি আবরারকে খানিকটা টেনেও নিয়ে যায়।

বিইউপির ছাত্র আবরার আহমেদ চৌধুরীর মৃত্যুর খবর পেয়ে যমুনা ফিউচার পার্কের সামনের সড়ক অবরোধ করে দোষী চালকের শাস্তির দাবিতে স্লোগান দিতে থাকেন বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা। এতে ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ ওই সড়কের উভয় পাশ দিয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিক্ষোভের একপর্যায়ে সকাল ১০টার দিকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নতুন মেয়র আতিকুল ইসলাম সেখানে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের দাবি পূরণে পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দিলেও সড়ক ছাড়েনি শিক্ষার্থীরা।  মেয়র চলে যাওয়ার পর বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সেখানে সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাসে আগুন দেওয়া হয়। এরপরও সড়ক আটকে বিক্ষোভ করতে থাকেন শিক্ষার্থীরা। এর মধ্যে বিকাল পৌনে ৫টার দিকে সেখানে গিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ-ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নূর। ‘শান্তিপূর্ণ’ আন্দোলনে আঘাত করা হলে ‘দাতভাঙা’ জবাব দেওয়া হবে বলে সতর্ক করেন তিনি। এরপর সন্ধ্যার ৬টার কিছুক্ষণ আগে এদিনের মতো বিক্ষোভ কর্মসূচি শেষ করার ঘোষণা দেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। তাদের পক্ষে মাইশা নূর নামে বিশ্ববিদ্যালয়টির একজন শিক্ষার্থী সাংবাদিকদের বলেন, সন্ধ্যা ৬টায় তারা সড়ক অবরোধ উঠিয়ে নেবেন। বুধবার সকাল ৮টায় আবার সড়কে অবস্থান নেবেন। সহপাঠীদের বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার গেইটে আসার আহ্বান জানান তিনি। অবরোধ উঠিয়ে নেওয়ায় গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টার পর সেখানে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

এই শিক্ষার্থী বলেন, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার প্রধান গেইটে আবরারের নামে একটি ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হবে, যার আশ্বাস দিয়েছেন মেয়র আতিকুল ইসলাম। এছাড়া বাসচাপায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের মৃত্যুর প্রতিবাদে সারা দেশের স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের আহ্বান জানান মাইশা নূর।

সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়টির এই শিক্ষার্থী বলেন, এটা কোনো রাজনৈতিক আন্দোলন নয়। এখানে রাজনৈতিক উপস্থিতির কোনো প্রতিফলন আমরা দেখতে চাই না। সকালে মেয়র আতিকুল গেলে তার কাছে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ ছাড়াও বেশ কিছু দাবি তুলে ধরেন শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবির মধ্যে রয়েছে- আবরারকে চাপা দেওয়া বাসের চালককে ১০ দিনের মধ্যে ফাঁসি দিতে হবে, সুপ্রভাত বাসের রুট পারমিট বাতিল, সিটিং সার্ভিস বন্ধ, স্টপেজের ব্যবস্থা করা, চালকদের ছবি ও লাইসেন্স গাড়িতে ঝোলানোর ব্যবস্থা করা, প্রতিটি জেব্রা ক্রসিংয়ে সিসি ক্যামেরার ব্যবস্থা এবং ট্রাফিক পুলিশের ‘দুর্নীতি’ বন্ধ করা।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলোকে ‘যৌক্তিক’ উল্লেখ করে মেয়র তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমরা আমার সাথে থাকলে আমি সব সমস্যার সমাধান করে ফেলব। বাসের মালিক ও সংশ্লিষ্টদের নিয়মের ভেতরে আনা হবে। ঢাকা সিটিতে ছয়টি কোম্পানির বাস চালানো হবে। আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে সমাধান করব। গ্রেপ্তার সুপ্রভাত বাসের চালকের বিরুদ্ধে আইন অনুয়ায়ী ব্যবস্থা নেওয়ারও আশ্বাস দেন তিনি। দুই-তিন মাসের মধ্যে নিহত আবরারের নামে বসুন্ধরা গেইটে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ