January 14, 2020, 12:15 pm

শিরোনাম :
সুন্দরগঞ্জে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ ভোলায় অপহৃত দুই জেলে উদ্ধার,দস্যু আটক লালপুরে মাজারের সিন্দুক ভেঙ্গে টাকা চুরি এমপির কাছে স্কুল, ক্লিনিক, রাস্তা ও বিদ্যুৎ চাইলো লালপুরের দূর্গমচরের মানুষ অথবা পদ্মার দূর্গমচরে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন – এমপি বকুল অথবা শীতবস্ত্র পেয়ে আনন্দে আত্মহারা দূর্গমচরের ছিন্নমূল মানুষ সারাদেশে সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে জামালপুরে মানববন্ধন চট্টগ্রাম-৮ আসনে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোছলেম উদ্দিন আহমেদের জয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ঘোষিত চূড়ান্ত ফলাফল কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে হাইকোর্ট প্রশ্নফাঁসের দায়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৩ শিক্ষার্থী আজীবন বহিষ্কার যুদ্ধাপরাধী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের মৃত্যুদণ্ড আপিল বিভাগে বহাল ভবিষ্যতে অভ্যন্তরীণ ইস্যুতে নাক গলালে যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রদূত রবার্ট ম্যাকাইরকে বিতাড়িত করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ইরান

জলাবদ্ধতা নিরসনে মেয়রের ব্যাক্তিগত উদ্দোগ

Spread the love

আসগর আলী সাগর, রাজশাহী থেকে :

এক পশরা বৃষ্টিতেই তৈরি হয় জলাবদ্ধতা কেশর হাট পৌরসভায়। কেশরহাট

বাজারের কামারগাঁ রোড, সার পট্টি,কসমেটিক পট্টির মতো বিশেষ বিশেষ রোড।

বৃষ্টির পানি বের হওয়ার মতো ছোট ছোট ড্রেনের মুখ গুলো বন্ধ করে রেখেছে কিছু ব্যাবসায়ী।তারা নিজের দোকানের সামনে মাটি ফেলে উচু করায় সহজ ভাবে বাজারের ভিতরের পানি নামতে না পারায় তৈরি হয় জলাবদ্ধতা। এমন পরিস্থিতিতে নিচু দোকান ঘরে ঢুকে পড়ে নোংরা আবর্জনা যুক্ত পানি ও রাস্তায় হাটু পরিমান পানিতে ভোগান্তিতে পোহাতে হয় হাটে আসা সকল লোকজনের। এমন জলাবদ্ধতার শিকারে পড়েন এইচ এস সি পরিক্ষার্থীরা।শাহানাজ নামের একজন পরিক্ষার্থী বলে, বাসা থেকে শুকনো পোষাকে এসে এখানে ভিজে গেলাম, আমাকে ভিজেই পরিক্ষা দিতে হবে, ফেরৎ যাওয়ার উপায় নেই, আমার মতো আরো কয়েকজন ভিজলো এখানে, কাকে বলবো আর কেইবা দেখবে। ইলেক্ট্রনিক্স দোকানদার মোঃ জাহিদ বলেন, সার পট্টির কিছু ব্যাবসায়ী নিজ উদ্দগে তাদের দোকানের সামনে মাটি ফেলায় এমন জলাবদ্ধতার কারন। এ বিষয়টি কেশরহাট পৌর মেয়রের কানে পৌছালে তাতক্ষনিক ঘটনা স্থলে ছুটে আসেন মেয়র শহিদুজ্জামান শহিদ। মেয়র জুতা খুলে নোংরা হাটুজল পাড়িয়ে সরেজমিনে পরিদর্শন করেন জলাবদ্ধতার স্থান। সকল দোকানী দের ডেকে পরামর্শ দেন জলাবদ্ধতা নিরসনের। মেয়র শহিদুজ্জামান শহিদ সবার উদ্দেশ্যে বলেন, রাস্তার কাজের জন্য বড় ড্রেন অকেজো হয়ে আছে, এ পানি নামাতে গরুহাটার ড্রেনের সাথে সংযোগ টানতে হবে। আমি আমার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে দশ হাজার টাকা বরাদ্দ করছি, আপনারা শ্রমিক লাগিয়ে পানি বের করার পথ বের করুন। এ বাজারের ড্রেন নির্মানের জন্য অনুপঞ্চাশ লক্ষ টাকা বরাদ্দ হয়েছে তা এখনো হাতে পাইনি, পেলে খুব তাড়াতাড়ি কাজ শুরু করে দিবো আপনাদের সাথে নিয়ে, ততোদিনে আপনারা গরুহাটার দিকে পানি নামাবেন। মেয়রের এমন আশ্বাস ও উপস্থিত অনুদানে কাজ শুরু করে দেন দোকানিরা। মেয়র উপস্থিত থেকে পানি নিষ্কাশন করাই সাধারণ জনোগণ ও দোকানিরা মেয়র শহিদুজ্জান শহিদের প্রশংসা করেন। এ সময় মেয়রের সাথে উপস্থিত ছিলেন কেশর হাট পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ রুস্তম আলী প্রামানীক সহো আওয়ামীলীগ এর নেতাকর্মী, দোকানি সহো বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/ ৮ এপ্রিল ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ