February 19, 2019, 10:30 am

জগন্নাথপুরে নিহত যুবদল নেতা হাফিজ   ছবিঃ মোঃ ফখরুল ইসলাম

জগন্নাথপুরে হাফিজ হত্যা মামলার রায় বিএনপির প্রত্যাখান

Spread the love

মোঃ ফখরুল ইসলাম,জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

গত ৫ ফেব্রুয়ারি সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক


জগন্নাথপুরে নিহত যুবদল নেতা হাফিজ                    ছবিঃ মোঃ ফখরুল ইসলাম

আবদুল্লাহ আল মামুন জগন্নাথপুর পৌর এলাকার হবিবপুর-আশিঘর গ্রামের বাসিন্দা যুবদল নেতা হাফিজুর রহমান হাফিজ হত্যা মামলার রায়ে সকল আসামিকে বেকসুর খালাস প্রদান করেন। আদালতের উক্ত রায় প্রত্যাখান করেছে জগন্নাথপুর উপজেলা বিএনপি। রায় প্রত্যাখান করে বিবৃতি দিয়েছেন জগন্নাথপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি শিক্ষাবিদ আবু হোরায়রা সাদ মাস্টার, সিনিয়র সহ-সভাপতি এমএ মুকিত, সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট জিয়াউর রহিম শাহিন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম খসরু, সাবেক চেয়ারম্যান আকছির আলী, জগন্নাথপুর উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক জামাল উদ্দিন আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মোসাব্বির আহমদ, আবদুস সোবহান, জগন্নাথপুর পৌর বিএনপির সভাপতি এমএ মতিন, সাধারন সম্পাদক ও শহীদ হাফিজের বড় ভাই হাজী হারুনুজ্জামান হারুন, সাংগঠনিক সম্পাদক শামসুল ইসলাম, কলকলিয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি কামরুজ্জামান, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক সাদিকুর রহমান নান্নু, পাটলি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি হাজী শফিকুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক আব্দুর নুর, মিরপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আবদুন নুর, সাধারন সম্পাদক আখলুল করিম, চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক ডাঃ রাজা মিয়া, প্রথম সদস্য মাসুক মিয়া, রাণীগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি হাজী চান মিয়া, সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট আজমল হোসেন, সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সৈয়দ আলী আহমদ দুলা, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক রাহিন তালুকদার, আশারকান্দি ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ফজলুর রহমান কবেরী, সাধারন সম্পাদক ফকরুল ইসলাম, পাইলগাঁও ইউনিয়ন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান তহুর, সাধারন সম্পাদক সৈয়দ জুবায়ের আহমদ আবু, জগন্নাথপুর উপজেলা যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক ও সুনামগঞ্জ জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি আবুল হাশিম ডালিম, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক আনহার মিয়া, সৈয়দ শফিকুর রহমান, হাজী সোহেল আহমদ খান টুনু, সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি মিজান কোরেশী, সাধারন সম্পাদক সৈয়দ ইসহাক আহমদ, রাণীগঞ্জ ইউনিয়ন যুবদলের সাধারন সম্পাদক আবদুন নুর, কলকলিয়া ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি সেলিম আহমদ, সাধারন সম্পাদক জহিরুল ইসলাম লেবু, আশারকান্দি ইউনিয়ন যুবদলের সাধারন সম্পাদক ইউসুফ মিয়া, যুবদল নেতা এমএ মালেক, পাইলগাঁও ইউনিয়ন যুবদল নেতা আবু বক্কর মধু, হাফিজুর রহমান, চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি সেলিম আহমদ, সাধারন সম্পাদক রুবেল মিয়া, মিরপুর ইউনিয়ন যুবদল নেতা আলিউল আহমেদ, জগন্নাথপুর পৌর যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক ও জেলা যুবদলের সদস্য লিটন মিয়া, পৌর যুবদল নেতা ও জেলা যুবদল সদস্য শামিম আহমদ, সুনামগঞ্জ জেলা সেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক হাজী হারুনুর রশীদ, জেলা সেচ্ছাসেবক দল সদস্য নুরুল আমিন, জগন্নাথপুর উপজেলা ছাত্রদল নেতা শেখ মামুন, মামুনুর রশিদ, জুনেদ আহমদ, সৈয়দ জাবির আহমদ, জগন্নাথপুর পৌর ছাত্রদল নেতা তোফায়েল আহমদ, নুর আলম, জগন্নাথপুর কলেজ ছাত্রদল নেতা দুলু মিয়া, জাকারিয়া আহমেদ প্রমূখ।
বিবৃতিদাতারা বলেন পার্বত্য শান্তি চুক্তির প্রতিবাদে ১৯৯৮ সালের ১৫ এপ্রিল বিএনপির ডাকে সারা দেশে মতো জগন্নাথপুরে হরতাল চলাকালে পৌর শহরের হবিবপুর আলিয়া মাদ্রাসা পয়েন্টে পিকেটিং চলাকালে দিন দুপুরে প্রকাশে আ.লীগের সন্ত্রাসীদের হামলায় জগন্নাথপুর উপজেলা যুবদলের সহ-সভাপতি হাফিজুর রহমান হাফিজ নিহত হন। অথচ কিভাবে একটি ন্যাক্কারজনক হত্যা মামলার আসামীরা খালাস পায়, আমরা তা বুঝতে পারছি না। এতে আমরা হতবাক হয়েছি।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ