July 13, 2020, 11:27 pm

শিরোনাম :
বক‌শিগ‌ঞ্জ মেয়র নজরুল সওদাগ‌রের মা আর নেই সুনামগঞ্জ সদরসহ,তাহিরপুর,বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শন ও খাবার বিতরণে জেলা প্রশাসক আব্দুল আহাদ সুন্দরগঞ্জে পরকীয়া প্রেমিকযুগল গ্রেপ্তার বক‌শিগঞ্জে জা‌তির জনকের ছ‌বি ভাংচুর মামলায় গ্রেফতার- ১ রাজশাহীতে অটোরিকশা ও ট্রেনের ধাক্কায় নিহত-২ ক্ষমতার জোরে সরকারি জায়গায় বালু স্তপ দিয়ে রাস্তা ভাঙ্গার অভিযোগে গ্রেফতার ৩ রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে র‌্যাব-৫ এর অভিযানে হেরোইসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার রাজশাহীতে জোরপূর্বক রাস্তা বন্ধ করায় ১৫০টি পরিবার ভোগান্তিতে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ র‌্যাব-৫ এর অভিযানে মাদক বিরোধী অভিযানে ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ ও শমসেরনগরের বিভিন্ন বাজারে ভোক্তা অধিকারের অভিযান পরিচালনা

চৌদ্দগ্রাম পৌরসভা করোনায় আক্রান্ত জনতার মেয়র মিজান, সুস্থ্যতায় দোয়া কামনা

Spread the love

মোঃ এমদাদ উল্যাহ,চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ

করোনা সংকটকালিন সময়ে গরীব ও কর্মহীন মানুষের কল্যাণে দিনরাত কাজ করতে গিয়ে নিজেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন জনতার মেয়র হিসেবে খ্যাত মোঃ মিজানুর রহমান। তিনি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার দুই বারের নির্বাচিত মেয়র। ১ জুন সোমবার তাঁর করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসে। এরপর থেকে তিনি নিজ বাড়িতেই আইসোলেশনে রয়েছেন। মেয়র মিজানুর রহমানের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর শুনে চৌদ্দগ্রাম পৌরসভাসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর সুস্থ্যতা কামনায় দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়ে বিভিন্ন লেখালেখি করেছেন। মেয়র মিজানুর রহমান মানসিক ও শারিরীকভাবে ভালো আছেন বলে মঙ্গলবার বিকেলে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন তাঁর ভাই আসমাতুন নেছা-রশিদ ফাউন্ডেশনের সমন্বয়ক ও যুবলীগ নেতা মোতাহার হোসেন ঝুমন।
জানা গেছে, করোনা সংকটকালিন সময়ে গত মার্চ মাস থেকে সরকারি নির্দেশে পৌর মেয়র মিজানুর রহমান গরীব ও কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের খাদ্য সঙ্কট মেটাতে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছেন। এজন্য প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার ত্রাণ তহবিল, মুজিবুল হক এমপির দেয়া ত্রাণ, বিভিন্ন বেসরকারি সংগঠন, এনজিও সংস্থা ও ব্যাক্তিদের দেয়া ত্রাণ, নিজ ব্যক্তিগত ত্রাণ ও নিজ পারিবারিক ট্রাস্ট আসমাতুন নেছা-রশিদ ফাউন্ডেশনের ত্রাণ সামগ্রী অসহায় সুবিধা বঞ্চিত সবার ঘরে ঘরে পৌঁছানো নিশ্চিত করতেই তিনি দিনে রাতে কাজ করেছেন। এছাড়াও তিনি সচেতনতা তৈরি করতে করোনা ভাইরাসের শুরু থেকেই ৫০ হাজার প্রচারণা লিফলেট বিতরণ করেছেন। সমগ্র পৌরসভাতে জীবাণুনাশক ছিটিয়েছেন যা এখনও অব্যাহত আছে। আক্রান্ত ব্যাক্তিদের বাড়িতে গিয়ে সচেতনতার কাজ করেছেন এবং ত্রাণপৌঁছে দিয়েছেন। দুর্যোগকালিন এ সময়ে মেয়র মিজানুর রহমানের কর্মকান্ড সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছে। এরই মধ্যে গত ২৮ মে বৃহস্পতিবার মেয়র মিজানুর রহমান করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন। ১ জুন তাঁর করোনা পজেটিভ রিপোর্ট দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। জনগণের কথা চিন্তা করে ও বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের পরামর্শক্রমে তিনি হোম আইসোলেশনে অবস্থান করছেন। নিজে করোনায় আক্রান্ত হলেও মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পৌরবাসীর সেবা অব্যাহত রেখেছেন।
মেয়র মিজানুর রহমান তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুক পেইজে সোমবার বেলা ২.৪৮টায় লিখেন, ‘প্রিয় চৌদ্দগ্রাম পৌরবাসী সহ, দেশ বিদেশের সকল শুভাকাঙ্খী, ভাই, বোন, বন্ধুদের নিকট আমার জন্য দোয়া করার দরখাস্ত করলাম। সকলে আমার জন্য দোয়া করবেন। আমার করোনা ভাইরাস টেষ্টে রেজাল্ট পজেটিভ এসেছে। আমি যেন তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে আবারও আপনাদের খেদমতে, আপনাদের কাছে ফিরে আসতে পারি। আল্লাহ আমাদের সকলের মঙ্গল করুন, সবাই নিরাপদ দুরত্ব বজায় রেখে চলুন, রাস্তায় বের হলে মাস্ক ব্যবহার করুন, বিনা প্রয়োজনে ঘর হতে বের হবেন না’।
মেয়রের ছোট ভাই আসমাতুন নেছা-রশিদ ফাউন্ডেশনের সমন্বয়ক ও যুবলীগ নেতা মোতাহার হোসেন ঝুমন মঙ্গলবার তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে লিখেন, ‘পৌর মেয়র মিজানুর রহমান মিজান ভাই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে হোম আইসোলেশনে চিকিৎসারত অবস্থায় আছেন। তিনি শারীরিক ভাবে ভালো আছেন। গতকাল(সোমবার) থেকে খোঁজ নিতে উনার মোবাইলে ও অনলাইন ম্যাসেনঞ্জারে কল করেছেন ও দোয়া করেছেন পৌরবাসী, সমাজের বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ, ইমাম-মুয়াজ্জিন, সাধারন মানুষ, চিকিৎসক, আত্মীয়-স্বজন, জনপ্রতিনিধি, নেতা-কর্মী, ভক্ত-শুভাকাঙ্খীসহ বিভিন্ন শ্রেনী ও পেশার হাজার হাজার মানুষ। মসজিদে নামাজ পরে, বাড়ীতে মহিলারা নামাজ পড়ে, মোবাইলে কল করে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হাজারও আইডি হতে পোষ্ট করে সবাই ওনার জন্যে দোয়া করছেন জেনে উনি আবেগ আপ্লুত এবং কৃতজ্ঞ।
তিনি আরও লিখেন, ‘হলি ফ্যামিলি মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ মেজর জেনারেল (অবঃ) হারুনুর রশিদ ও চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃহাসিবুর রহমান জানিয়েছেন-স্বাস্থ্যবিধি মেনে ওনাকে অতি জরুরী ফোন ব্যতিত মোবাইলে কল রিসিভ করতে নিষেধ করেছেন। বেশী মোবাইলের কল রিসিভে ওনার মাথা ব্যথা হতে পারে। এতে ওনার স্বাভাবিক রেষ্ট করা বা ঘুমের বিঘ্ন  হতে পারে’।

ডিটেকটিভ/২জুন  ২০২০/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ