February 24, 2020, 12:28 am

শিরোনাম :
মিথ্যা দিয়ে কখনও সত্য মুছে ফেলা যায় না – প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অপরাজনীতির শিকার ক্লিন ইমেজের কাউন্সিলর প্রার্থীরা,বাড়ছে অসন্তোষ যশোরের চৌগাছায় নকল ঔষধ বিক্রয়ের অভিযোগে আটক -২ চিলমারীতে ফ্রেন্ডশিপের প্রকল্প সুচনা কর্মশালা অুনষ্ঠিত বোয়ালমারীতে মোটরসাইকেলসহ চোর আটক ফলোআপ ২ প্রশাসনের ভুমিকা নিয়ে প্রশ্ন! পীরগঞ্জে সিলগালাকৃত তালা ভেঙ্গে চালাচ্ছে ব্যবসা! বোয়ালমারীতে স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হযরত খাজার বশীর ইউনানী আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের শুভ উদ্ধোধন বিদেশ থেকে কাঁচা ফুল ও প্লাস্টিক ফুল আমদানী বন্ধের দাবীতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন একসঙ্গে দুটি স্বর্ণখনির সন্ধান পেল ভারত

চূড়ান্ত নাগরিক তালিকায় সন্তুষ্ট নয় বিজেপি: আসামের অর্থমন্ত্রী

Spread the love

চূড়ান্ত নাগরিক তালিকায় সন্তুষ্ট নয় বিজেপি: আসামের অর্থমন্ত্রী

ডিটেকটিভ আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আসামের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা প্রকাশের পর রাজ্যটির অর্থমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেছেন, এনআরসি নিয়ে বিজেপি সন্তুষ্ট নয়। তিনি দাবি করেছেন, আরও বেশি অবৈধ অভিবাসীর তালিকা থেকে বাদ পড়ার কথা। রাজ্য থেকে সব বিদেশিদের তাড়িয়ে দিতে তাদের দল কাজ করে যাবে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে টেলিফোনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা জানিয়েছেন তিনি।হিমন্ত শর্মা জানান, সীমান্তবর্তী জেলাগুলোর নাগরিক তালিকায় পুনরায় যাচাইয়ের বিজেপি ও রাজ্য সরকার সুপ্রিম কোর্টে যাবে।বিজেপির আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া পরে জানা যাবে উল্লেখ করে শর্মা জানিয়েছেন, আদিবাসীদের কাছ থেকে তিনি জানতে পেরেছেন অনেকেই এই প্রক্রিয়ার ফলাফলে অসন্তুষ্ট।আসামের অর্থমন্ত্রী বলেন, আসামের জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি এনআরসি। কারণ পুরো প্রক্রিয়ায় মাত্র ১৯ লাখ মানুষ বাদ পড়েছে। যাদের মধ্যে ৩ লাখ ৮০ হাজার আপিল করার প্রয়োজন বোধ করেনি এবং মারা গেছে। ফলে সত্যিকার অর্থে বাদ পড়েছে ১৫ লাখ। এদের মধ্যে ৫-৬ লাখ মানুষ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ থেকে আসামে এসেছে।অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, এনআরসি ১৯৭১ সালের শরণার্থী সনদপত্র আমলে নেয়নি। কিন্তু ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে আপিলে তা আমলে নেওয়া হবে। ফলে তালিকা থেকে বাদ পড়াদের সংখ্যা দাঁড়াবে ১১ লাখ। এদের মধ্যে যাদের বাবা-মা তালিকায় স্থান পেয়েছেন তারাও অন্তর্ভুক্ত হবে। পুরো প্রক্রিয়া যখন শেষ হবে তখন বাদ পড়াদের সংখ্যা ৬-৭ লাখে দাঁড়াবে। যা খুব কম।বিজেপি নেতা জানান, সরকার এর আগে আসামের ৪০ লাখ মানুষকে বিদেশি ঘোষণা করেছিল। যা পার্লামেন্টে প্রশ্নোত্তরে বলা হয়েছিল। তিনি বলেন, কিন্তু আসামের লোকেরা খুশি নয় কারণ প্রত্যাশার চেয়ে বাদ পড়াদের সংখ্যা অনেক কম। বাদ পড়াদের সংখ্যা আরও বেশি হওয়া উচিত ছিল।হিমন্ত শর্মা জানান, বিজেপি ও রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে সীমান্তবর্তী জেলা, যেগুলোতে মুসলিম অভিবাসীদের সংখ্যা বেশি সেগুলোতে তালিকা পুনরায় যাচাইয়ের জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করবেন।এর আগে জুলাই মাসে কেন্দ্র ও আসাম সরকার সুপ্রিম কোর্টে খসড়া এনআরসির ২০ শতাংশ নাম পুনরায় যাচাইয়ের জন্য আবেদন করেছিল। কিন্তু সর্বোচ্চ আদালত আগস্টের শুরুতে এই আবেদন খারিজ করে দেয়।শর্মা বলেন, আমাদের জন্য এই প্রক্রিয়া শেষ হয়ে যায়নি। আমরা আমাদের লড়াই অব্যাহত রাখব।শনিবার স্থানীয় সময় সকাল দশটায় আসামের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা (এনআরসি) প্রকাশ করা হয়েছে। তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন রাজ্যের প্রায় ১৯ লাখ ৬ হাজার ৬৫৭ জন মানুষ। এক বিবৃতিতে এনআরসি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, চূড়ান্ত তালিকায় মোট আবেদনকারী ৩ কোটি ৩০ লাখ ১৭ হাজার ৬৬১ জনের মধ্যে নাগরিক হিসেবে স্থান পেয়েছেন ৩ কোটি ১১ লাখ ২১ হাজার ৪ জন। তালিকায় স্থান না পাওয়া ব্যক্তিরা ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে আপিল করার সুযোগ পাবেন।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ