November 22, 2019, 5:41 am

শিরোনাম :
দেশ ও জাতির কল্যানার্থে র‌্যাব-৫ এর সফলতা সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক ডিআইজি মাহ্ফুজুর রহমান পুলিশের পৃথক ৩টি অভিযানে রাজশাহীর তানোরে ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী ও নারী মাদক ব্যাবসায়ীসহ আটক ৩ র‌্যাব-৫, এর অভিযানে অস্ত্র, বিপুল পরিমান ইয়াবা ও বিভিন্ন সরঞ্জামাদিসহ শীর্ষ অস্ত্র ও মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার লালপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান গাইবান্ধায় কৃষি পণ্যের ন্যায্যমূল্য, কৃষক বান্ধব কৃষি ব্যবস্থা ও ভর্তুকি সহায়তা নিশ্চিতকরণে প্রচারাভিযান রাজারহাটে সরকারি খরচে আইনগত সহায়তা প্রদান বিষয়ক প্রাতিষ্ঠানিক গণশুনানি বগুড়ার ধুনটে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা বাস্তবায়ন না হলে মৃত্যু থামবে না -নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)-এর চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন দুর্নীতি দমন কমিশন দুদকের তালিকায় ১৫৯ জন পূর্ণা নগরের রাস্তা পরিদর্শনে চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ 

চাঁদে পানি খুঁজবে নাসার রোবট

Spread the love

চাঁদে পানি খুঁজবে নাসার রোবট

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

চাঁদে পানি খুঁজতে রোবট পাঠানোর পরিকল্পনা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ সংস্থা নাসা। ২০২২ সালে চন্দ্রপৃষ্ঠে পাঠানো হবে রোভার জাতের গলফ কার্ট আকৃতির রোবটটিকে। সেখানে ‘ওয়াটার আইস’ খোঁজার দায়িত্ব নেবে ভাইপার নামের ওই রোবটটি।

প্রতিবেদনে রয়টার্স বলছে, চন্দ্রপৃষ্ঠে মাইলের পর মাইল শুধু পানির খোঁজে ঘুরে বেড়াবে ভাইপার। পরীা করে দেখবে সেখানে পৃষ্ঠের নিচে কোনো পানি জমে রয়েছে কিনা। চন্দ্রপৃষ্ঠে এই ‘ওয়াটার আইস’ থাকার বিষয়টি নিয়ে ক্রমাগত বলে আসছেন নাসা কর্মকর্তা জিম ব্রিডেনস্টাইন। তার মতে, ‘চাঁদে এভাবে লাখ লাখ টন পানি জমে থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।’

‘ওয়াটার আইস’ ও ভাইপার প্রসঙ্গে ব্রিডেনস্টাইন বলেন, “চাঁদে মূলত কোথায় পানি রয়েছে সে বিষয়টি বুঝার চেষ্টা করবে ভাইপার। সে হিসেবে ‘ওয়াটার আইস’-কে কয়েকটি শ্রেণীতে ভাগ করে খনন কাজ চালানো হবে। কেন এটি জরুরি সে প্রশ্ন আপনি করতেই পারেন। এটি জরুরি, কারণ ‘ওয়াটার আইস’ প্রাণ রার মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়ের ইঙ্গিত করে।” ভাইপার-এর পুরো নামটি হচ্ছে ‘ভলাটাইলস ইনভেস্টিগেটিং পোলার এক্সপ্লোরেশন রোভার।’

২০২২ সালের ডিসেম্বরে চাঁদের দণি মেরু অঞ্চলে নামবে ভাইপার। রয়টার্স বলছে, চাঁদের মাটি পরীা করে পানির মৌলিক উপাদান হাইড্রোজেন ও অক্সিজেন-এর নমুনা খোঁজার জন্য সঙ্গে চারটি যন্ত্র রাখবে রোভারটি। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে অবস্থিত নাসা’র এমস রিসার্চ সেন্টার জানিয়েছে, সবমিলিয়ে নিজের কাজের ‘প্রায় একশ’ দিনের ডেটা’ নথিভুক্ত করবে রোবটটি যা পরবর্তীতে চন্দ্রপৃষ্ঠে থাকা পানির ম্যাপ হিসেবে ব্যবহৃত হবে।

উল্লেখ্য, ২০২৪ সাল নাগাদ পুনরায় চাঁদে মানুষ পাঠাতে চাইছে নাসা। এ জন্যই চন্দ্রপৃষ্ঠে পানি খুঁজে বের করার বিষয়টি নিয়ে এতো আগ্রহী সংস্থাটি।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ