January 15, 2020, 1:56 pm

শিরোনাম :
ভোলা বোরহানউদ্দিনে পরিবেশ দূর্ষনের কারনে ইট ভাটায় অভিযান ভোলা জেলার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠ পদ্মামনসা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী সিনিয়র শিক্ষক মোঃ ছিদ্দিক স্যারের বিদায় অনুষ্ঠান ভোলায় বাবা মায়ের আকুতি ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত শিশু মরিয়মকে বাঁচাতে চায় ফুলবাড়ীর রুদ্রানী উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি উদযাপিত নাটোরে বন্য প্রাণী সংরক্ষণ সেমিনার অনুষ্ঠিত চিরিরবন্দরে ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে পাথর কোয়ারী সচল রাখতে প্রশাসনের সহনশীলতার আহ্বান করেন চেয়ারম্যান ফারুক চট্টগ্রাম দক্ষিন জেলা সৈনিকলীগের সভাপতি কাজীমুল ইসলাম চৌধুরীকে সংবর্দনা হোমনার রামকৃষ্ণপুর কামাল স্মৃতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক এটিএম আবদুল মতিনের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের যৌন হয়রানির প্রমাণ মিলেছে,বিচারের দাবিতে এলাকাবাসী মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ মিছিল করেন আইসিসির ২০১৯ এর বর্ষসেরা ইংল্যান্ডের ক্রিকেটার বেন স্টোকস

চাঁদে পানি খুঁজবে নাসার রোবট

Spread the love

চাঁদে পানি খুঁজবে নাসার রোবট

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

চাঁদে পানি খুঁজতে রোবট পাঠানোর পরিকল্পনা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ সংস্থা নাসা। ২০২২ সালে চন্দ্রপৃষ্ঠে পাঠানো হবে রোভার জাতের গলফ কার্ট আকৃতির রোবটটিকে। সেখানে ‘ওয়াটার আইস’ খোঁজার দায়িত্ব নেবে ভাইপার নামের ওই রোবটটি।

প্রতিবেদনে রয়টার্স বলছে, চন্দ্রপৃষ্ঠে মাইলের পর মাইল শুধু পানির খোঁজে ঘুরে বেড়াবে ভাইপার। পরীা করে দেখবে সেখানে পৃষ্ঠের নিচে কোনো পানি জমে রয়েছে কিনা। চন্দ্রপৃষ্ঠে এই ‘ওয়াটার আইস’ থাকার বিষয়টি নিয়ে ক্রমাগত বলে আসছেন নাসা কর্মকর্তা জিম ব্রিডেনস্টাইন। তার মতে, ‘চাঁদে এভাবে লাখ লাখ টন পানি জমে থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।’

‘ওয়াটার আইস’ ও ভাইপার প্রসঙ্গে ব্রিডেনস্টাইন বলেন, “চাঁদে মূলত কোথায় পানি রয়েছে সে বিষয়টি বুঝার চেষ্টা করবে ভাইপার। সে হিসেবে ‘ওয়াটার আইস’-কে কয়েকটি শ্রেণীতে ভাগ করে খনন কাজ চালানো হবে। কেন এটি জরুরি সে প্রশ্ন আপনি করতেই পারেন। এটি জরুরি, কারণ ‘ওয়াটার আইস’ প্রাণ রার মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়ের ইঙ্গিত করে।” ভাইপার-এর পুরো নামটি হচ্ছে ‘ভলাটাইলস ইনভেস্টিগেটিং পোলার এক্সপ্লোরেশন রোভার।’

২০২২ সালের ডিসেম্বরে চাঁদের দণি মেরু অঞ্চলে নামবে ভাইপার। রয়টার্স বলছে, চাঁদের মাটি পরীা করে পানির মৌলিক উপাদান হাইড্রোজেন ও অক্সিজেন-এর নমুনা খোঁজার জন্য সঙ্গে চারটি যন্ত্র রাখবে রোভারটি। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে অবস্থিত নাসা’র এমস রিসার্চ সেন্টার জানিয়েছে, সবমিলিয়ে নিজের কাজের ‘প্রায় একশ’ দিনের ডেটা’ নথিভুক্ত করবে রোবটটি যা পরবর্তীতে চন্দ্রপৃষ্ঠে থাকা পানির ম্যাপ হিসেবে ব্যবহৃত হবে।

উল্লেখ্য, ২০২৪ সাল নাগাদ পুনরায় চাঁদে মানুষ পাঠাতে চাইছে নাসা। এ জন্যই চন্দ্রপৃষ্ঠে পানি খুঁজে বের করার বিষয়টি নিয়ে এতো আগ্রহী সংস্থাটি।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ