October 22, 2019, 5:31 pm

শিরোনাম :
শার্শার বাগআঁচড়ায় ভাই ভাই বেকারীতে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা আলফাডাঙ্গায় উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা আলফাডাঙ্গায় যৌতুক দাবির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে থানা কমিউনিটি পুলিশিং-ডে উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা শেরপুরে তুচ্ছ ঘটনায় এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা ফুলবাড়ীতে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উদযাপিত মানিকগঞ্জে অপহরণের অনেক দিন পেরিয়ে গেলেও স্কুল ছাত্রী তানজিনাকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ গোয়াইনঘাটে জাতীয় সড়ক দিবসে র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত  পলাশবাড়ীতে চালকের গলায় ছুড়ি মেরে ভ্যান ছিনতাইয়ের চেষ্টা বগুড়ায় হাত ধোয়া দিবস পালিত

চলতি মাসেই চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম

Spread the love

চলতি মাসেই চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক

এ মাসেই আসছে ই-পাসপোর্ট ইলেকট্রনিক পাসপোর্টের (ই-পাসপোর্ট) কার্যক্রম। ইতিমধ্যে ওই সংক্রান্ত প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। এখন প্রধানমন্ত্রী সময় দিলেই পাসপোর্ট তৈরি ও বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন হবে। ইলেকট্রনিক পাসপোর্টে কাগজপত্রের কোনো সত্যায়নের দরকার হবে না। আর কোনো ভ্যাট ছাড়াই ই-পাসপোর্টের সর্বোচ্চ ফি ধরা হয়েছে ১২ হাজার টাকা আর সর্বনিম্ন সাড়ে ৩ হাজার টাকা। বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসে সাধারণ আবেদনকারীদের জন্য সর্বোচ্চ ফি ২২৫ ডলার এবং সর্বনিম্ন ফি ১০০ ডলার ধরা হয়েছে। বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসে শ্রমিক ও শিক্ষার্থীদের জন্য সর্বোচ্চ ফি ২২৫ ডলার এবং সর্বনিম্ন ফি ৩০ ডলার ধরা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, ই-পাসপোর্ট নিয়ে জটিলতার অবসান ঘটছে। প্রকল্প বাস্তবায়নকারী জার্মান প্রতিষ্ঠান ভেরিডোসের সঙ্গে ফিঙ্গার প্রিন্ট নিয়ে বিরোধেরও সুরাহা হচ্ছে। আগামী ৮ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরলে তার সঙ্গে আলোচনাক্রমে ঈদের পর নতুন ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হবে। সবক্ষেত্রে ই-পাসপোর্ট ৪৮ ও ৬৪ পৃষ্ঠার হবে। সাধারণ, জরুরি ও অতি জরুরি এ তিনভাবে ই-পাসপোর্টের ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। পাশাপাশি কাগজপত্র সত্যায়নের ঘর উঠিয়ে দেয়া হয়েছে। ৪৮ পৃষ্ঠার ৬ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ৩৫০০ টাকা, জরুরি ফি ৫৫০০ টাকা ও অতি জরুরি ফি ৭৫০০ টাকা এবং ১০ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ৫০০০ টাকা, জরুরি ফি ৭০০০ টাকা ও অতি জরুরি ফি ৯০০০ টাকা। তাছাড়া বাংলাদেশে আবেদনকারীদের জন্য ৬৪ পৃষ্ঠার ৫ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ৫৫০০ টাকা, জরুরি ফি ৭৫০০ টাকা ও অতি জরুরি ফি ১০৫০০ টাকা এবং ১০ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ৭০০০ টাকা, জরুরি ফি ৯০০০ টাকা ও অতি জরুরি ফি ১২০০০ টাকা।

সূত্র জানায়, ই-পাসপোর্টের আবেদনপত্র অনলাইনেই পূরণ করা যাবে। এছাড়া পিডিএফ ফরম্যাট ডাউনলোড করে যে কোনো কম্পিউটারে ফরমটি পূরণ করা যাবে। ই-পাসপোর্টের আবেদনের ক্ষেত্রে কোনো কাগজপত্র সত্যায়ন করার প্রয়োজন হবে না। এছাড়া কোনো ছবি সংযোজন করা এবং তা সত্যায়ন করারও দরকার হবে না। ই-পাসপোর্টের আবেদনপত্র জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা জন্মনিবন্ধন সনদ (বিআরসি) অনুযায়ী পূরণ করতে হবে। তবে অপ্রাপ্ত বয়স্ক (১৮ বছরের কম) আবেদনকারী যার জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) নেই, তার পিতা এবং মাতার জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) নম্বর অবশ্যই উল্লেখ করতে হবে। ই-পাসপোর্টে কারো আবেদন ১৮ বছরের নিচে হলে জন্মনিবন্ধন সনদ (বিআরসি), ১৮ বছর হলে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা জন্মনিবন্ধন সনদ (বিআরসি) এবং ১৮ বছরের বেশি হলে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) অবশ্যই লাগবে। তবে ১৮ বছরের নিচে সব আবেদনকারীর ই-পাসপোর্টের মেয়াদ হবে ৫ বছর।

এদিকে কূটনৈতিক পাসপোর্ট পেতে আবেদনকারীদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কনস্যুলার অ্যান্ড ওয়েলফেয়ার উইং বা প্রযোজ্য ক্ষেত্রে বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের (ডিআইপি) প্রধান কার্যালয় বরাবর আবেদন করতে হবে। দেশের অভ্যন্তরে অতি জরুরি পাসপোর্ট রি-ইস্যুর ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে পাসপোর্ট দেয়া হবে। জরুরি পাসপোর্ট রি-ইস্যুর ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পাসপোর্ট দেয়া হবে। রেগুলার পাসপোর্ট রি-ইস্যুর ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৭ কর্মদিবসের মধ্যে পাসপোর্ট দেয়া হবে। নির্ধারিত মেয়াদ শেষ হলে পাসপোর্ট রি-ইস্যুর ক্ষেত্রে কোনো অতিরিক্ত তথ্য সংযোজন বা ছবি পরিবর্তনের প্রয়োজন না হলে ব্যক্তিগতভাবে উপস্থিতির দরকার নেই।

অন্যদিকে এ প্রসঙ্গে পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সোহায়েল হোসেন খান জানান, দীর্ঘ প্রচেষ্টায় আমরা এখন সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত। যে কোনো দিন চালু হবে ই-পাসপোর্ট।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ