September 11, 2019, 4:35 pm

শিরোনাম :

গোপালগঞ্জে কৃষি শুমারি উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা

Spread the love

কাজী ওহিদ, গোপালগঞ্জঃ

“কৃষি শুমারি সফল করি, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ি” এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন কৃষি শুমারি-২০১৯ (৯ থেকে ২০ জুন) উপলক্ষে গোপালগঞ্জে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গোপালগঞ্জ জেলা পরিসংখ্যান অফিসের আয়োজনে সোমবার (১০ জুন) সকাল সাড়ে নয় টায় গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালি পরবর্তী জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষ স্বচ্ছতায় কৃষি শুমারি উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় সকলে অংশ নেন। গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান সরকারে সভাপতিত্বে গোপালগঞ্জ জেলা পরিসংখ্যান অফিস এর উপ-পরিচালক ও কৃষি শুমারি-২০১৯ এর জেলা সমন্বয়কারী মোঃ রেজাউল করিমের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক রমেশ চন্দ্র ব্রহ্ম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কাজী শহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন (বিপিএম), পৌর মেয়র কাজী লিয়াকত আলী, জেলা কৃষি প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা হরলাল মধু, জোনাল অফিসারগণ, জেলায় ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যম কর্মবৃন্দ। গোপালগঞ্জ জেলা পরিসংখ্যান অফিসের উপ-পরিচালক ও শুমারি সমন্বয়কারী মোঃ রেজাউল করিম কৃষি শুমারি-২০১৯ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ঝেলার ১৩৫৫টি এলাকায় ১০৯৬ জন গণনাকারী, ১৭৯ জন সুপার ভাইজার, ১৭ জন জোনাল অফিসার ও এক জন সমন্বয়কারীকে নিয়োজিত করা হয়েছে বলে জানান। গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান সরকার তাঁর বক্তব্যে কৃষি শুমারি-২০১৯-কে সামনে রেখে জেলায় অংশগ্রহণকারী সকল জোনাল অফিসার, সুপার ভাইজার, গণনাকারী-সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অর্পিত দায়িত্ব সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পালন করার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, আপনাদের দেয় সঠিক তথ্য, উপাত্ত, বিচার-বিশ্লেষণ করে সরকার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা প্রণয়নে কার্যকরী ভূমিকা রাখতে পারবে। এর পরে তিনি কৃষি শুমারি-২০১৯ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/ ১০ জুন ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ