October 13, 2019, 1:20 pm

গৃহবধুকে মারধর ও হত্যার অভিযোগ তালতলীতে ইউপি মহিলা সদস্যের ছেলেকে যৌতুক নিয়ে বাল্য বিয়ে

Spread the love

 

 

মৃধা শাহীন শাইরাজ তালতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি॥ 

 

বরগুনার তালতলীতে আরও ২লক্ষ টাকা যৌতুকের জন্য গৃহবধুকে মারধর করে হত্যার হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার তালতলী প্রেসক্লাবে এসে সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ করেন।
জানা গেছে, উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নের ছোটআমখোলা গ্রামের রুস্তুম আলীর কন্যা কবিরাজপাড়া মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অস্টম শ্রেণির ছাত্রী কাজল আক্তারের বিয়ে হয় গত বছরের ২৯ অক্টোবর একই উপজেলার বড়বগী ইউনিয়নের সওদাগর পাড়া গ্রামের মহিলা ইউপি সদস্য শিউলি বেগমের ১৯বছরের কিশোর পুত্র মিরাজের সাথে। বিয়ের সময় কনের কাছ থেকে যৌতুক হিসেবে ২লক্ষ টাকা নিয়ে ভূয়া কাগজপত্র তৈরী করে ৪লক্ষ টাকার কাবিন করেন সোনাকাটা ইউনিয়ন কাজী অফিসে। বিয়ের মাত্র এক বছর যেতে না যেতেই কাবিনের বাকী ২লক্ষ টাকা দাবী করেন কনের কাছে। যৌতুকের দাবী মেটাতে না পারায় কাজলের উপর নেমে আসে অমানুষিক নির্যাতন আর হত্যার হুমকি। স্বামী আর শাশুরীর নির্যাতন সইতে না পেরে পিতার অসহযোগীতার কারনে কাজল আশ্রয় নিয়েছে একই গ্রামের খালার বাড়ীতে।
রুস্তুম আলী ও গৃহবধু কাজল জানান, বিয়ের সময় যৌতুক হিসেবে ২লক্ষ টাকা দিলেও আরও ২লক্ষ টাকার দাবীতে মারধর করছে। দাবীকৃত টাকা না দিলে হত্যা করবে বলে হুমকি দিচ্ছে।
ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সিদ্দিকুর রহমান বলেন, বিয়ের সময় কনের কাছ থেকে যৌতুক হিসেবে ২লক্ষ টাকা ও স্বর্নালংকার নেয়া হয়েছে। আরও যৌতুকের দাবীতে কাজলকে মারধর করে পিত্রালয় পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর মিঞা আলম মুন্সি জানান, বিয়ে হয়েছে শুনেছি, তবে যৌতুকের জন্য মারধর বা হত্যার হুমকির ব্যাপারে জানা নেই। আমার কাছে কেউ অভিযোগ দেয়নি।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ