April 2, 2020, 4:42 pm

শিরোনাম :
ছিন্নমূল মানুষের পাশে ঢাকা জেলা পুলিশ কুড়িগ্রামে ট্রাকের ধাক্কায় রিক্সা চালকের মৃত্যু করোনা সন্দেহে যুবকের বাড়িতে লাল পতাকা অসহায় গরীব মানুষদের কে- বেতনের পুরো টাকাই দান করলেন, উপজেলা প্রসাশক মোঃ যোবায়ের হোসেন রাজারহাটে ন্যায্যমূল্যে টিসিবি’র নিত্য পণ্য সামগ্রী বিক্রি শুরু যশোরে বালু ব্যবসায়ীকে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ নাসির উদ্দিন এমপির সতর্ক থাকার আহবান কেশবপুরের শহীদ ফ্লাইট লেঃ মাসুদ মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষের চেয়ার দখলের চেষ্টা চরম উত্তেজনা ওসির হস্তক্ষেপে সমস্যা সমাধান সারিয়াকান্দিতে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় জীবাণুনাশক ঔষধ স্প্রে করা হয় রংপুর মেডিকেল কলেজে করোনা পরীক্ষার যন্ত্র রিয়েল টাইম পিসিআর ব্যবহার শুরু হল

কেশবপুরে আলোচিত বেকারী ব্যবসায়ী শরিফুল হত্যার রহস্য উদঘাটন খুনি আটক

Spread the love

জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর (যশোর)  থেকেঃ

যশোরের কেশবপুরের সাতবাড়িয়ায় অজ্ঞাত দুষ্কৃতকারী কর্তৃক বেকারী ব্যবসায়ী শরিফুলকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় হত্যার কারণ তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই ফজলে রাব্বি উদ্ঘাটন করেছে। তিনি খুনি ইদ্রিসকে গ্রেফতার এবং ঘটনাস্থলের অদূরে একটি পুকুর থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করেছে।আসামী ইদ্রিস ঘটনার দায় স্বীকার করে বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে। টাকা-পয়সা লেনদেনের ঘটনার জের ধরে খুন করা হয় বলে আদালতে স্বীকারুক্তি দেয় প্রাণঘাতক তার আপন বন্ধু ইদ্রিস আলী। দুই দিন রিমান্ড শেষে মঙ্গলবার যশোর আদালতে হাজির করা হলে ইদ্রিস আলী বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট এর সামনে দাঁড়িয়ে এ জবানবন্দি দেয়। বন্ধুর প্রাণঘাতক ইদ্রিস আলী সাতাড়িয়া গ্রামের মুনাম মোড়লের ছেলে। কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ জসিম উদ্দীন জানান, ব্যবসায়ী শরিফুল শুক্রবার রাতে মার্ডার হওয়ার পর শনিবার রাতে ইদ্রিসকে আটক করে ২ দিনের রিমান্ডের আবেদন চেয়ে  যশোর আদালতে প্রেরণ করলে বিজ্ঞ আদালত সেটি মঞ্জুর করেন। থানা রিমান্ডে আটক ইদ্রিস স্বীকার করে বলেন, টাকা-পয়সা দেনদেনের ঘটনা নিয়ে তাদের দুই বন্ধুর মধ্যে দুরত্ব সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে এই লেনদেনের ঘটনার জের ধরে গত ২০ মার্চ রাতে সে নিজে তার বন্ধুকে পূর্ব-পরিকল্পিতভাবে ছুরি দিয়ে খুন করে। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ঘটনাস্থলের পার্শের একটি পুকুর থেকে খুনে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করে পুলিশ।উল্লেখ্য, কেশবপুর উপজেলার সাতবাড়িয়া গ্রামের ইমদাদুল হক মোড়লের ছেলে শরিফুল ইসলাম প্রতিদিনের ন্যায় গত বৃহস্পতিবার তার ব্যবহৃত মটরসাইকেলে  করে পাটকেলঘাটা বাজারের আল মদিনা বেকারী থেকে খাদ্য সামগ্রী  নিয়ে দিনের বেলায় বিভিন্ন এলাকায় দোকানে সরবরাহ শেষে রাতে ওই সব দোকান থেকে টাকা আদায় করে বাড়ি ফেরার সময় পতিমধ্যে সাতবাড়িয়া-কড়িয়াখালী বাজারের মাঝখানে মর্শিনা বিলপাড় এলাকায় খুন হয় সে। এঘটনায় নিহতের পিতা বাদী হয়ে ২০ মার্চ কেশবপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। যার মামলা  নং-১৩।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/২৫ মার্চ ২০২০/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ