June 16, 2019, 2:38 am

শিরোনাম :
রাজধানীতে আনন্দ মিছিল প্রস্তাবিত বাজেট গণমুখী ও সময়োপযোগী: আওয়ামী লীগ সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে ১’শ বোতল ফেন্সিড্রিলসহ মাদক সম্রাট পারুল ও কামাল গ্রেফতার সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে তারাকান্দি স্কুলে ঈদ পূনর্মিলনী সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে ৪ বছরে শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টায় ১ জন আটক তাড়াশের ঈদগাহ্ মাঠ রক্ষায় এলাকাবাসীর বিক্ষোভ সিরাজগঞ্জ সদরের চরসাপড়ী গ্রামের পঞ্চম শ্রেনীর ছাত্রীকে বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা করলেন এসিল্যান্ড সিরাজগঞ্জ জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন জুয়েল সভাপতি একরামুল সম্পাদক বান্দরবানে বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি ওসমান গণিসহ দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ পারকি সৈকতে আটকা পড়া জাহাজ সরিয়ে নেয়ার উদ্যোগ নেই পর্যটন কপোরেশনের “পলি জমছে সৈকতে” বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে সন্ত্রাসী হামলা, আহত ৪

কৃষকের কাছে গিয়ে ধান কিনলেন রাজশাহীর জেলা প্রশাসক এস এম আবদুল কাদের

Spread the love

রুহুল আমীন খন্দকার, ব্যুরো প্রধান :

গ্রামে গিয়ে সরাসরি কৃষকের থেকে সরকারি মূল্যে ধান কিনলেন রাজশাহীর জেলা প্র

শাসক (ডিসি) এস এম আবদুলকাদের। বুধবার ২৩শে মে ২০১৯ ইং দুপুরে জেলার পবা উপজেলার নওহাটার মধুসূদনপুর মহল্লায় গিয়ে ধানকেনেন তিনি। তবে কৃষকদের ধানে কিছুটা আর্দ্রতা থাকায় আগামীকাল বৃহস্পতিবার ওই ধান পবা খাদ্যগুদামেনেওয়া হবে।

পবার মধুসূদনপুর গ্রামের কৃষক মজিবর রহমান জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে ২০ মণ ধান বিক্রির চুক্তি করেছেন।তিনি বলেন, সরকারের নির্ধারিত মূল্যে তিনি ধানের দাম পাচ্ছেন। ধানের এমন মূল্য পেলে কৃষকেরা উপকৃত হবে।

একই গ্রামের কৃষক আবদুল আওয়াল জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বিক্রির জন্য ২০ মণ ধান নিয়ে এসেছিলেন। ধানেকিছুটা আর্দ্রতা থাকায় তাৎক্ষণিকভাবে মূল্য পরিশোধ করা হয়নি। তবে তাঁর ধান কেনার কথা পাকা হয়েছে। তাঁকেআগামীকাল বৃহস্পতিবার খাদ্যগুদামে কৃষি কার্ডসহ ধান নিতে বলা হয়েছে। আওয়াল বলেন, তিনি আগে কখনোখাদ্যগুদামে ধান বিক্রির সুযোগ পাননি। সরকারি দামে ধান বিক্রি করতে পেরে তিনিও খুশি।

পবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ নেওয়াজ বলেন, কৃষকেরা সরকারি মূল্যে সরকারি খাদ্যগুদামে ধান বিক্রিকরতে পারছেন না, এমন খবরের ভিত্তিতে রাজশাহীর ডিসি যেকোনো উপায়ে ধান কেনা-বেচায় কৃষকদের সরাসরিসম্পৃক্ত করার উদ্যোগ নেন। এর অংশ হিসেবে বুধবার দুপুরে ডিসি এস এম আবদুল কাদের জেলা খাদ্যনিয়ন্ত্রকনাজমুল হোসেন ভূইয়াকে সঙ্গে নিয়ে নওহাটা পৌরসভার মধুসূদনপুর গ্রামে যান। সেখানে তিনজন কৃষকের কাছথেকে ২৬ টাকা কেজি দরে আড়াই মেট্রিক টন ধান কেনা হয়।

জেলা প্রশাসক এস এম আবদুল কাদের বলেন, কৃষকদের স্বার্থ রক্ষায় প্রশাসন সব সময় তৎপর থাকবে। তিনি ওতাঁর কর্মকর্তারা কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনার তদারকি করবেন। কোনো ব্যবসায়ী কৃষক সেজে ধান বিক্রিরচেষ্টা করলে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, ‘আজ প্রকৃত কৃষকের কাছ থেকে ধান ক্রয় করা হচ্ছে।কৃষকদের কৃষি কার্ড ও ব্যাংক অ্যাকাউন্ট করতে সংশ্লিষ্ট দপ্তর ও ব্যাংকে তাগিদ দেওয়া হবে।’

পবা উপজেলা খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাকিলা নাসরিন বলেন, তাঁরা এক টন ধান কিনেছেন। কৃষকদেরসঙ্গে আর দুই টনের চুক্তি করেছেন। কৃষকের ধানে একটু আর্দ্রতা রয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার কৃষকদের পবাখাদ্যগুদামে ধান নিয়ে আসার কথা বলা হয়েছে। তিনি বলেন, ধান নিয়ে কৃষকদের সরাসরি খাদ্যগুদামে আসার জন্যতাঁরা মাইকিং করেছেন। কৃষকেরা যাতে সহজেই ধান বিক্রি করতে পারেন, এ জন্য খাদ্যগুদামের ধান কেনারআনুষ্ঠানিকতাও সহজ করা হয়েছে।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/ ২৫ মে ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ